For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

দুপুরে খাওয়ার পর খুব ঘুম পায়? জেনে নিন ঘুম তাড়ানোর কিছু উপায়

|

দুপুরে লাঞ্চের পর ক্লান্তিভাব বা ঘুমের অনুভূতি হওয়া, খুবই সাধারণ ব্যাপার। কিন্তু খাওয়ার পর ঘুম, কাজের ক্ষেত্রে সমস্যা সৃষ্টি করার পাশাপাশি আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষেও খুব একটা ভাল নয়। তবে এই সব সমস্যা এড়াতে লাঞ্চ স্কিপ করে যাওয়া একেবারেই উচিত নয়, তাহলে সমস্যা আরও বাড়তে পারে। সময় মতন খাবার না খাওয়া হলে, তা শরীরের ক্ষেত্রে ক্ষতিকর।

তাই লাঞ্চের পর ক্লান্তি বা ঘুম ঘুম ভাব কাটিয়ে উঠতে, এনার্জি বাড়াতে নিম্নলিখিত টিপসগুলি মেনে চলতে পারেন।

১) খাওয়ার পর একটু হাঁটুন

১) খাওয়ার পর একটু হাঁটুন

লাঞ্চের পরেই কাজে না বসে, একটু হাঁটাচলা করুন। চাইলে সিঁড়ি দিয়ে ওঠানামাও করতে পারেন। হালকা পরিশ্রম, রক্তে অক্সিজেনের মাত্রা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করে এবং এনার্জি বাড়াতেও অত্যন্ত সহায়ক।

২) চুইংগাম চিবোন

২) চুইংগাম চিবোন

গবেষণায় দেখা গেছে যে, চুইংগাম ক্লান্তি দূর করতে পারে। তাছাড়া চুইংগাম সতর্কতা বৃদ্ধি করে এবং এনার্জি বাড়াতে সহায়তা করে। লাঞ্চের পর মিন্ট চুইংগাম অন্তত পাঁচ মিনিট চিবোলেই ঘুম ঘুম ভাব বা ক্লান্তিভাব কেটে যাবে!

৩) প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন

৩) প্রচুর পরিমাণে জল পান করুন

ডিহাইড্রেশনের ফলে ক্লান্তিভাব, খিটখিটে মেজাজ এবং অমনোযোগিতা দেখা দিতে পারে। তাই শরীরকে হাইড্রেটেড রাখতে, সারাদিনে পর্যাপ্ত পরিমাণে জল পান করা অত্যন্ত জরুরি। তাই যতটা পারবেন জল ও তরল জাতীয় খাদ্য খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৪) খাওয়ার সঠিক সময়

৪) খাওয়ার সঠিক সময়

কী খাচ্ছেন কেবল সেটাই দেখার বিষয় নয়, পাশাপাশি কোন সময়ে খাচ্ছেন, সেদিকে নজর দেওয়াও অত্যন্ত জরুরি। দেরি করে দুপুরের খাবার খাওয়া হলে, অত্যাধিক ক্লান্তি ভাবের সাথে সাথে, ঘুমের অনুভূতিও বেশি হয়। তাই দুপুর ১টা থেকে ২টোর মধ্যে, দুপুরের খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৫) অতিরিক্ত খাবার খাওয়া বিপজ্জনক

৫) অতিরিক্ত খাবার খাওয়া বিপজ্জনক

লাঞ্চের সময় কখনোই অতিরিক্ত খাবার খাবেন না। দুপুরে অতিরিক্ত খাবার খাওয়া হলে, তা হজম করতে শরীরকে প্রচুর পরিমাণে শক্তি খরচ করতে হয়। যার ফলে শরীরে ক্লান্তি বোধও বৃদ্ধি পায়। তাই দুপুরে হালকা খাবার খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৬) সুগার গ্রহণের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন

৬) সুগার গ্রহণের পরিমাণ নিয়ন্ত্রণে রাখার চেষ্টা করুন

লাঞ্চের সময় প্রসেসড সুগার এবং ফ্যাট জাতীয় খাদ্য খুবই কম খাওয়ার চেষ্টা করুন। সুগার কিছুটা সময় এনার্জির মাত্রা বৃদ্ধি করতে সহায়তা করতে পারে, তবে কিছুক্ষণ পর থেকে অত্যাধিক ক্লান্তি বোধ হতে পারে। তাই মিষ্টি খেতে ইচ্ছে হলে, দুপুরে খাওয়ার পরে ফল খাওয়া যেতে পারে।

স্বাস্থ্যকর খাবার খান

স্বাস্থ্যকর খাবার খান

প্রসেসড ফুডের রিফাইন্ড গ্রেইন দ্রুত হজম হয়, যার ফলে রক্তে শর্করার পরিমাণ বৃদ্ধি পায় এবং এনার্জির মাত্রা কমে। তাই এমন খাবার খান যাতে এনার্জি বৃদ্ধি হয়, যেমন - আয়রন সমৃদ্ধ খাবার (শাকসবজি), লিন প্রোটিন (লিন মিট, মাছ, ডিম) এবং গোটা শস্য জাতীয় খাবার বেছে নিতে পারেন।

দুপুরের খাবারে আয়রন, প্রোটিন এবং কমপ্লেক্স কার্বোহাইড্রেট সমৃদ্ধ খাবার রাখুন। আয়রন হিমোগ্লোবিনের উৎপাদন বাড়াবে, যা এনার্জির জন্য সারা শরীরে অক্সিজেন বহন করে। কার্বোহাইড্রেট শরীরের বিভিন্ন অংশে গ্লুকোজ পৌঁছে দেওয়ার কাজ করে, যা শরীরকে সঠিকভাবে কাজ করতে সাহায্য করে। পুষ্টি সমৃদ্ধ খাবার খেলে দুপুরে কম অলস বা ক্লান্তিবোধ হবে।

English summary

Tips To Control Sleepiness After Lunch in Bengali

Try out the following tips to beat sleepiness after lunch and be as productive as you are in the mornings. Read on to know.
X