For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

এই খাদ্যগুলি গ্রহণ করুন, ত্বক স্বাস্থ্যকর রাখুন

|

আমাদের ত্বক প্রতিদিনই দূষণ, ব্রণ, জ্বালা, অ্যালার্জি, ব্ল্যাকহেডস, এই সবকিছুর সঙ্গে লড়াই করে। কম-বেশি সবাই এই ধরনের সমস্যায় ভোগে। ত্বকের এইসব সমস্যাগুলি থেকে কীভাবে মুক্তি পাওয়া যায় এবং এর জন্য কী কী করা উচিত, আয়নার সামনে দাঁড়ালে এই ধরনের সাধারণ প্রশ্ন সবার মাথায়ই ঘুরতে থাকে।

ত্বক ভালো রাখার জন্য কৃত্রিম প্রসাধনীর চেয়ে নিয়মিত খাবার খাওয়ার বিষয়ে মনোযোগ দেওয়া উচিত, কারণ প্রসাধনীর চেয়েও ত্বকের জন্য বেশি জরুরী হলো পুষ্টি। ত্বক যদি ভেতর থেকে পুষ্টি না পায় তাহলে আপনি যাই ব্যবহার করুন না কেন ত্বককে সেই নির্জীব দেখাবে। তাই সঠিক খাদ্য গ্রহণ এই ধরনের সমস্যা থেকে বাঁচতে সাহায্য করে এবং ত্বক ভালো রাখে। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক এমন কিছু খাবারের নাম যা ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারী এবং যেগুলি ত্বককে ভেতর থেকে পুষ্টির যোগান দেয়।

১) বেরি

১) বেরি

বেরিতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি এবং ই রয়েছে। ভিটামিন সি যুক্ত ফল ত্বকের সজীবতার জন্য জরুরী। বেরি জাতীয় ফল ত্বক ভালো রাখে। ত্বকের উজ্জ্বলতা বজায় রাখতে আপনার খাদ্যতালিকায় স্ট্রবেরি এবং ব্ল্যাকবেরি জাতীয় সব ধরনের বেরি অন্তর্ভুক্ত করুন। নিয়মিত ফলমূল খেলে ত্বক ভালো থাকে।

লকডাউনের সময় প্রিয়াঙ্কা চোপড়া জানালেন তাঁর সিল্কি চুলের গোপন রহস্য, আপনিও ট্রাই করতে পারেন

২) শাকসবজি

২) শাকসবজি

সবুজ শাকওয়ালা সবজিতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, খনিজ এবং ভিটামিন থাকে। তাই এগুলি আমাদের ত্বকের সেরা বন্ধু। ব্রোকলি, পালং শাক, বাঁধাকপি ইত্যাদিতে ফোলেট, আয়রন, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম, ফাইবার, ভিটামিন জাতীয় পুষ্টি রয়েছে, যা দেহে সামগ্রিক পুষ্টির ভারসাম্য বজায় রাখার জন্য প্রয়োজনীয়। আর, নিজেকে স্বাস্থ্যকর রাখা মানে স্বাস্থ্যকর ত্বক পাওয়া। খাদ্য ঠিক রাখলে, চেহারাও উজ্জ্বল হয়।

৩) মাছ

৩) মাছ

মাছে ওমেগা-৩ ফ্যাট থাকে, যা ত্বকের জন্য খুবই উপকারী। মাছ ত্বকের কোষ সজীব রাখে। চর্বিযুক্ত মাছ ত্বকে স্থিতিস্থাপকতা বজায় রাখতে সহায়তা করে।

৪) গাজর

৪) গাজর

গাজর শরীরকে বিটা ক্যারোটিন সরবরাহ করে এবং শুষ্ক ত্বককে সুস্থ রাখতে সহায়তা করে। নিয়মিত গাজর খেলে ত্বক সজীব থাকবে ও উজ্জ্বল হয়ে উঠবে। গাজর ক্ষতিকর সূর্যরশ্মি থেকে ত্বককে রক্ষা করতে সহায়তা করে।

৫) টমেটো

৫) টমেটো

ত্বক-বান্ধব খাবারগুলির মধ্যে টমেটো একটি। এটিতে অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, ভিটামিন, খনিজ এবং ক্যান্সারের বিরুদ্ধে লড়াইয়ের বৈশিষ্ট্যও রয়েছে।

৬) কুমড়োর বীজ

৬) কুমড়োর বীজ

কুমড়োতে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই এবং জিঙ্ক থাকে, তাই কুমড়োর বীজ ত্বকের জন্য অত্যন্ত উপকারি। জিঙ্ক ত্বকের কোষকে সজীব করে এবং ভেতর থেকে পুষ্টি যোগায়। এছাড়াও, এগুলি ওমেগা ৩ এবং ওমেগা ৬ ফ্যাটি অ্যাসিডের সমৃদ্ধ উৎস। তাই আপনার খাদ্যতালিকায় কুমড়োর বীজ অন্তর্ভুক্ত করুন।

৭) বাদাম

৭) বাদাম

আমন্ড এবং আখরোট ত্বকের খাদ্য হিসেবে পরিচিত, এগুলি ওমেগা-৩ ফ্যাটি অ্যাসিড এবং স্বাস্থ্যকর ফ্যাটগুলিতে সমৃদ্ধ, যা আপনার ত্বকের স্বাস্থ্যের জন্য অতি প্রয়োজনীয়। এছাড়াও এগুলি অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ এবং অ্যান্টি-ইনফ্ল্যামেটরি বৈশিষ্ট্যযুক্ত, যা ব্রণ নিরাময়ে সহায়তা করে। নিয়মিত খাবারের তালিকায় বাদাম রাখলে এর পুষ্টি উপাদান ত্বককে আরও সজীব করে তুলবে।

৮) অলিভ অয়েল

৮) অলিভ অয়েল

স্কিন বিশেষজ্ঞরা খাদ্যাতালিকায় অলিভ অয়েল ব্যবহারের পরামর্শ দেন, কারণ এটি ভিটামিন ই এবং বিভিন্ন ত্বক-বান্ধব পুষ্টিতে সমৃদ্ধ।

অলিভ অয়েল অলিক অ্যাসিড সমৃদ্ধ, যা ত্বককে কোমল এবং মজবুত করতে সহায়তা করে। এটিতে কিছু ফ্যাটি অ্যাসিড রয়েছে, যা প্রদাহের সাথে লড়াই করতে সহায়তা করে।

৯) বীটরুট

৯) বীটরুট

এতে ত্বক পরিষ্কারের অনেকগুলি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এতে ভিটামিন এ, পটাসিয়াম, সোডিয়াম, ক্যালসিয়াম, ম্যাগনেসিয়াম এবং ভিটামিন ই রয়েছে, যা এপিডার্মাল হেল্থ এবং নিরাময়ের জন্য প্রয়োজনীয়। এটি শরীর থেকে টক্সিন নির্মূল করতে সাহায্য করে।

১০) গ্রিন টি

১০) গ্রিন টি

স্বাস্থ্যকর ত্বক পেতে এটি অবশ্যই পান করুন। এই পানীয়তে ত্বকের জন্য অনেক উপকারি বৈশিষ্ট্য রয়েছে। এর প্রদাহ বিরোধী বৈশিষ্ট্য ত্বকের ক্যান্সার প্রতিরোধে সহায়তা করে। এটি অতিবেগুনি রশ্মি থেকে ক্ষতির ঝুঁকি কমাতেও সহায়তা করে। গ্রিন টি-এর অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট শরীরের বিষাক্ত পদার্থ দূর করতে সাহায্য করে।

English summary

Skin Friendly Foods For Healthy Skin

There are some foods that help your skin. Eat them regularly. Here is the list of skin friendly foods.
X