পান খাওয়া কি আদৌ উচিত?

Written By:
Subscribe to Boldsky

ধর্মিও নানা কাজে পান পাতার ব্যবহার তো সেই কোনও যুগ থেকে হয়ে আসছে। কিন্তু আপনাদের কি জানা আছে চিকিৎসা শাস্ত্রে এই পাতাকে কাজে লাগিয়ে একাধিক রোগের উপশম করাও হয়ে থাকে। একেবারেই ঠিক শুনেছেন। পান পাতায় উপস্থিত একাধিক উপাদান নানাবিধ রোগের প্রকোপ হ্রাসে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। বেশ কিছু প্রাচীন পুঁথি ঘেটে জানা গেছে আমাদের দেশে পান পাতার ব্যবহার শুরু হয়েছে প্রায় ২৬০০ বি সি-রও আগে থেকে। একেবারে প্রথমদিকে কেবল মাত্র মুখের বদ গন্ধ দূর করতে পান পাতাকে কাজে লাগানো হত। তারপর থেকে যত দিন গেছে তত পান পাতার ব্যবহার বেড়েছে। এক সময়ে গিয়ে তো আয়ুর্বেদ শাস্ত্রেও এই পাতাকে কাজে লাগিয়ে নানা রোগের চিকিৎসা শুরু হয়। সেই থেকে শুরু হয় পান পাতা নিয়ে নানা গবেষণা। এখনও নানা শারীরিক সমস্যায় এই পাতাকে কাজে লাগিয়ে চিকিৎসা করা হয়ে থাকে। যেমন ধরুন...

১. কনস্টিপেশনের মতো রোগের প্রকোপ কমায়:

১. কনস্টিপেশনের মতো রোগের প্রকোপ কমায়:

পান পাতার অন্দরে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং উপকারি উপাদান,যা বর্জ্যের উৎপাদন বাড়িয়ে দিয়ে কোষ্ঠকাঠিন্যের মতো সমস্যা কমাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই তো দিনের শুরুটা যদি বেজায় কষ্টকর হয়ে থাকে, তাহলে প্রতিদিন ঘুম থেকে উঠে খালি পেটে পান পাতার রস খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন উপকার পাবেন।

২. গলা ব্যথা কমায়:

২. গলা ব্যথা কমায়:

অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল এবং অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান থাকার কারণে গলা ব্যথা এবং ঠান্ডা লাগার মতো সমস্যা কমাতে পান পাতা বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। শুধু তাই নয়, প্রতিদিন পান পাতার সঙ্গে অল্প করে মধু খেলে গলার সংক্রমণও দূর হয়। তাই ওয়েদার চেঞ্জের সময় যারা খুব রোগে ভুগে থাকেন, তারা এমন সময় সঙ্গে পান পাতা রাখতে ভুলবেন না।

৩. মুখের গন্ধ দূর করে:

৩. মুখের গন্ধ দূর করে:

মুখ গহ্বরে উপস্থিত ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে মুখের বদ গন্ধ দূর করতে পান পাতার কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আসলে পান পাতা চেবানোর সময় প্রচুর মাত্রায় স্যালাইভা তৈরি হয়, যা গন্ধ সৃষ্টিকারি ব্যাকটেরিয়াদের মেরে ফেলে। সেই সঙ্গে পি এইচ লেভেলকে স্বাভাবিক মাত্রায় নিয়ে আসে। ফলে গন্ধ একেবারে গায়েব হয়ে যায়।

৪. জয়েন্ট পেন:

৪. জয়েন্ট পেন:

পলিফেনাল নামে এক ধরনের অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান রয়েছে পান পাতায়, যা প্রদাহ বা যন্ত্রণা কমাতে দারুন কাজে আসে। সেই কারণেই তো আর্থ্রাইটিস রোগীদের পান পাতার রস লাগানোর পরামর্শ দেন চিকিৎসকেরা।

৫. মুখ গহ্বরের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়:

৫. মুখ গহ্বরের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটায়:

বেশ কিছু গবেষণায় দেখা গেছে নিয়মিত পান পাতা খাওয়া শুরু করলে মুখের অন্দরে বাসা বেঁধে থাকা ক্ষতিকর ব্যাকটেরিয়ার মেরে ফেলে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ক্যাভিটি এবং দাঁতের ক্ষয় হয়ে যাওয়ার মতো সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা কমে।

৬. অবসাদ কমাতে এবং মন ভাল করতে কাজে আসে:

৬. অবসাদ কমাতে এবং মন ভাল করতে কাজে আসে:

যারা মারাত্মক মানসিক চাপে ভুগছেন তারা আজ থেকেই পান পাতা খাওয়া শুরু করুন। কারণ এতে উপস্থিত বেশ কিছু প্রাকৃতিক উপাদান নিমেষে মন ভাল করে দেয়। সেই সঙ্গে ডিপ্রেশন কমাতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এক্ষেত্রে রাতের খাবার শেষ করে ১-২ টো পান পাতা চিবোলেই দারুন উপকার পাওয়া যায়।

৭. ওজন হ্রাসে সাহায্য করে:

৭. ওজন হ্রাসে সাহায্য করে:

যে কোনও অনুষ্টান বাড়িতে মহাভোজের পর পান পরিবেশন করার রেওয়াজ রয়েছে কেন জানেন? কারণ পান পাতায় এমন কিছু উপাদান রয়েছে যা আমাদের বিপাক প্রক্রিয়াকে জোরদার করে। সেই সঙ্গে হজমে সহায়ক রসের ক্ষরণ বাড়িয়ে দিয়ে হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়। এখানেই শেষ নয়, পান পাতায় উপস্থিত ফাইবার, কনস্টিপেশন দূর করে এবং শরীরে জমে থাকা অতিরিক্ত চর্বিকে গলিয়ে দেয়। ফলে একাধারে যেমন ওজন হ্রাস পায়, তেমনি নানাবিধ শারীরিক সমস্যাও কমতে শুরু করে।

৮. ক্ষত সারাতে কাজে দেয়:

৮. ক্ষত সারাতে কাজে দেয়:

পান পাতায় রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট। এই উপাদানটি যে কোনও ক্ষত সারিয়ে তুলতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এক্ষেত্রে ক্ষতস্থানে প্রথমে অল্প করে পান পাতার রস দিয়ে দিন। তারপর তার উপর কয়েকটি পান পাতা রেখে ব্য়ান্ডেজ দিয়ে বেঁধে দিন। এমনভাবে ১-২ দিন থাকলেই দেখবেন ক্ষত একেবারে সেরে গেছে।

৯. বদ হজমের সমস্যা দূর করে:

৯. বদ হজমের সমস্যা দূর করে:

যারা প্রায়শই বদ হজমে ভুগে থাকেন, তারা আজ থেকেই পান পাতা খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন দারুন উপকার পাবেন। কারণ এতে রয়েছে গ্য়াস্ট্রো প্রটেকটিভ এজেন্ট। সেই সঙ্গে রয়েছে অ্যান্টি-ফ্লটুলেন্ট এবং কার্মিনেটিভ এজেন্ট, যা স্যালিভারি জুসের উৎপাদন বাড়িয়ে দেয়। ফলে হজম ক্ষমতার যেমন উন্নতি ঘটে, তেমনি খাবারে উপস্থিত খনিজ এবং বাকি পুষ্টিকর যাতে ঠিক মতো শরীর দ্বারা শোষিত হয় সেদিকেও খেয়াল রাখে। ফলে সার্বিকবাবে শরীরের কর্মক্ষমতা ব-দ্ধি পায়। সেই সঙ্গে একাধিক রোগও দূরে পালায়।

Read more about: রোগ শরীর
English summary

যত দিন গেছে তত পান পাতার ব্যবহার বেড়েছে। এক সময়ে গিয়ে তো আয়ুর্বেদ শাস্ত্রেও এই পাতাকে কাজে লাগিয়ে নানা রোগের চিকিৎসা শুরু হয়। সেই থেকে শুরু হয় পান পাতা নিয়ে নানা গবেষণা।

Betel leaf contains the goodness of antioxidants. Antioxidants clear free radicals from the body. This restores the normal PH level of an upset stomach. As a result, constipation is eased. You can simply chew the betel leaf and ingest its juice on an empty stomach each day to get relief from constipation. Another way is mincing betel leaf with water and storing it overnight. Drink the stored water on an empty stomach the next day.
Story first published: Monday, January 29, 2018, 16:39 [IST]