কাঁচা টমাটো খাওয়ার অভ্যাস আছে?

Written By:
Subscribe to Boldsky

সুমন গাঙ্গুলি। পেশায় সফটওয়্যার ইঞ্জিনিয়ার। মেধাবী ছাত্র, কর্মজীবনেও তুমুল সফল। কিন্তু সমস্যা একটা জায়গাতেই, সুমনের পেশাটাই এমন যে হঠাই-ই তাকে চেন্নাই চলে যেতে হল। কম করে ১ বছর তো সেখানে থাকতেই হবে! এদিকে ভাত-মাছ খেয়ে বেড়ে ওঠা, বেজায় পেটুক সুমন রান্না জানে না। তাই যা হওয়ার তাই হল! দিনের পর দিন পছন্দের খাবার না পেয়ে ভাঙতে শুরু করল শরীর। সে সময়ই এক বাঙালি বন্ধুর পরামর্শে দক্ষিণী খাবারের পাশে শুরু হল টমাটো খাওয়া। ২৬-এর সুমন আজ ৪৫ এর কোটায়। কিন্তু সকাল সকাল ২-৩ টে টমাটো খেয়ে পেট ভরানোর অভ্যাস আজও ছাড়েনি সুমন। কেন জানেন?

যেদিন থেকে বঙ্গ তনয়টি টমেটোর প্রেম পরেছিল, সেদিন থেকেই বদলে গিয়েছিল তার জীবন। ভঙ্গুর শরীর বল ফিরে পাচ্ছিল। সেই সঙ্গে আরও সব শারীরিক উপকারিতা মিলতে শুরু করেছিল। তাই তো আজও সুযোগ পেলে টমাটোর গুণাগুণ নিয়ে বন্ধুদের জানিয়ে থাকেন সুমন। আপনিও বা এমন পুষ্টিবর্ধক খাবারের উপকারিতা থেকে বঞ্চিত হবেন কেন! তাই তো ঝটপট প্রবন্ধটি পড়ে ফেলে জেনে নিন প্রতিদিন কাঁচা টমাটো খাওয়ার উপকারিতা সম্পর্কে। লেখাটি পড়তে পড়তে ছোট্ট-গোলগাল এই সবজিটি সম্পর্কে যে আপনার ধরণাটাই বদলে যাবে, তা হলফ করে বলতে পারি।

রান্নায় এই সবজিটির ব্যবহার বাঙালিরা প্রায়শই করেই থাকেন। কিন্তু কাঁচা টমাটো খাওয়ার অভ্য়াস সচরাচর পূর্ব ভারতে খুব একটা চোখে পরে না। কিন্তু একথা বলতে দ্বিধা নেই যে রান্নার পরিবর্তে যদি কাঁচা অবস্থায় নিয়মিত ২-৩ টে করে টমাটো খাওয়া যায় তাহলে দারুন উপকার মেলে। যেমন...

১. ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়:

১. ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়:

টমাটোয় উপস্থিত লাইকোপেন নামে একটি উপাদান ত্বকের সৌন্দর্যতা বৃদ্ধিতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এক্ষেত্রে আরেকভাবেও এই সবজিটিকে কাজে লাগাতে পারেন। কীভাবে? ১০-১২ টা টমাটো নিয়ে ভেতরটা পরিষ্কার করে নিন। তারপর টমনাটোর স্কিনটা ভুল করে সারা মুখে কিছুক্ষণ লাগিয়ে রাখুন। ১০ মিনিট পরে ভাল করে মুখটা ধুয়ে নিন। সপ্তাহে কয়েকবার এমনভাবে ত্বকের পরিচর্যা করলে দেখবেন বলিরেখা কমতে শুর করবে। সেই সঙ্গে স্কিনের ঔজ্জ্বল্যও বৃদ্ধি পাবে।

২. ক্যান্সার বিরোধী:

২. ক্যান্সার বিরোধী:

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে টমাটোয় উপস্থিত লাইকোপেন প্রস্টেট, কলোরেকটাল এবং স্টমাক ক্যান্সার রোধে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। আসলে লাইকোপেন হল একটি প্রাকৃতিক অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট, যা কোষের বিভাজন ঠিক মতো হতে সাহায্য করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ক্যান্সার সেলের জন্ম নেওয়ার আশঙ্কা কমে। আর যদি একবার ক্যান্সার কোষ জন্ম নিয়েও নেয়, তাহলেও যাতে তার বৃদ্ধি দ্রুত গতিতে না হয়, সেদিকে টমাটো খেয়াল রাখে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই এই মারণ রোগ শরীরকে ক্ষয় করার সুযোগ পায় না।

৩. হাড় শক্তপোক্ত হয়:

৩. হাড় শক্তপোক্ত হয়:

ক্যালসিয়াম এবং ভিটামিন-কে সমৃদ্ধি হওয়ার কারণে হাড়ের স্বাস্থ্যের উন্নতিতে টমাটোর কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। তাই তো বুড়ো বয়সে অস্টিওপোরোসিসের মতো রোগের হাত থেকে বাঁচতে এখন থেকেই টমাটো খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন উপকার পাবেন।

৪. ধূমপানের কুপ্রভাব থেকে বাঁচায়:

৪. ধূমপানের কুপ্রভাব থেকে বাঁচায়:

টমাটোয় রয়েছে কিউমেরিক এবং ক্লোরোজেনিক অ্যাসিড, যা কার্সিনোজের প্রভাব থেকে শরীরকে রক্ষা করে। ফলে ক্যান্সার রোগে আক্রান্ত হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস পায়। তাই যারা একান্তই ধূমপান ছাড়তে পারছেন না, তারা দয়া করে দিনে ২-৩ টে কাঁচা টমাটো খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন উপকার পাবেন।

৫. অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ঘাটতি দূর হয়:

৫. অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের ঘাটতি দূর হয়:

কখনও খাবারের সঙ্গে তো কখনও অন্যভাবে আমাদের শরীরে টক্সিক উপাদানের প্রবেশ ঘটে। এই ক্ষতিকারক উপাদানগুলি যাতে শরীরের কোনও ক্ষতি করতে না পারে সেদিকে খেয়াল রাখে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট। সেই সঙ্গে একাধিক রোগের হাত থেকেও রক্ষা করে। টমাটো যেহেতু অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট সমৃদ্ধ, তাই তো শরীরকে সুস্থ রাখতে নিয়মিত কাঁচা টমাটো খাওয়ার পরামর্শ দিয়ে থাকেন চিকিৎসকেরা।

৬. হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়ায়:

৬. হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়ায়:

টমাটোয় উপস্থিত ভিটামিন বি এবং পটাশিয়াম, শরীরে কোলেস্টেরলের মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে রাখে। সেই সঙ্গে রক্তচাপকে স্বাভাবিক রাখতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই হার্টের ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা হ্রাস পায়। প্রসঙ্গত, যাদের পরিবারে হাই কোলেস্টেরল এবং ব্লাড প্রেসার রোগের ইতিহাস রয়েছে তারা আজ থেকেই কাঁচা টমাটো খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন আয়ু বাড়বেই বাড়বে।

৭. চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়:

৭. চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পায়:

চুলের ঔজ্জ্বল্য বৃদ্ধিতে ভিটামিন-এ-এর কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আর এই উপাদানটি প্রচুর মাত্রায় রয়েছে টমাটোতে। তাই দীর্ঘদিন যদি চুলকে সুন্দর রাখতে চান, তাহলে কী করণীয়, তা নিশ্চয় আর আলাদা করে বলে দিতে হবে না। প্রসঙ্গত, দৃষ্টিশক্তির উন্নতিতেও ভিটামিন-এ বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৮. কিডনি স্টোনের আশঙ্কা কমায়:

৮. কিডনি স্টোনের আশঙ্কা কমায়:

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে বীজ সমেত টমাটো খেলে কিডনিতে স্টোন হওয়ার আশঙ্কা একেবারে শূন্যে এসে দাঁড়ায়।

English summary
A number of studies have been conducted that indicate that the high levels of lycopene in tomatoes works to reduce your chances of developing prostate, colorectal and stomach cancer.Lycopene is a natural antioxidant that works effectively to slow the growth of cancerous cells. Cooked tomatoes produce even more lycopene, so go ahead and cook up a batch of your mom’s famous tomato soup.
Story first published: Friday, July 21, 2017, 13:09 [IST]
Please Wait while comments are loading...