সারাদিন কাজের পর স্নান করা জরুরি কেন?

Posted By:
Subscribe to Boldsky

আজ আমরা এমন এক পরিবেশের মধ্যে বসবাস করছি যা দিনে দিনে বিষাক্ত থেকে বিষাক্ততর হয়ে উঠছে। চারিদিকে শুধু বিষ বাস্প আর ধোঁয়া। সেই সঙ্গে কলকারখানা থেকে নির্গত ক্ষতিকর কেমিকেলের যোগন তো রয়েছেই। এমন পরিস্থিতিতে মন, মেজাজ আর স্বাস্থ্য ঠিক রাখাটা যেন সত্য়িই কঠিন কাজ হেয় দাঁড়িয়েছে। আর এই কাজটিকেই সহজ করে দিতে পারে স্নান। একদম ঠিক শুনেছেন। দিনের শেষে ঠান্ডা জলে স্নান করলে অনেক উপকার পাওয়া যায়। শুনতে একটু আজব লাগছে, তাই তো! কিন্তু এমনই ছোট ছোট বিষয়ের উপরই কিন্তু আমাদের ভাল-মন্দ অনেকাংশে নির্ভর করে।

সারা দিন কাজের পর বাড়ি ফিরে স্নান করলে কী কী উপকার পাওয়া যায়? সে সম্পর্কেই বিস্তারিত আলোচনা করা হল এই প্রবন্ধে।

উপকারিতা ১:

উপকারিতা ১:

দিনের শেষে বাড়ি ফেরার সময় শুধু ক্লান্তি আপনার সঙ্গী হয় না। সেই সঙ্গে ধুলো-বালি, ময়লা, এমনকি নানা ক্ষতিকর জীবাণুকেও আপনি সঙ্গে করে বাড়ি ফেরেন। আর স্নান করার সময় এগুলি সব ধুয়ে চলে যায়। ফলে সংক্রমণে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা অনেকাংশেই হ্রাস পায়। আর যদি স্নান না করেন, তাহলে কী হবে? কিছুই না আপনার শরীরে লেগে থাকা ময়লা এবং জীবাণুগুলি বেডরুমেও জায়গা করে নেবে। ফলে শুধু আপনি নয়, সেই সঙ্গে আপনার পরিবারের বাকি সদস্য়দেরও শরীর খারাপ হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পাবে।

উপকারিতা ২:

উপকারিতা ২:

আপনি কি কোনও ত্বকের সমস্যায় ভুগছেন? অথবা মাত্রাতিরিক্ত ঘামের কারণে সারাক্ষণই বেশ অস্বস্তিতে থাকেন? তাহলে তো দিনের শেষে আপনার স্নান করা মাস্ট! কারণ এমনটা করলে ঘাম, ময়লা, ধুলো সব ধুয়ে চলে যায়। ফলে ত্বকের সমস্যার প্রকোপ যেমন কমে। সেই সঙ্গে শরীরের ক্লান্তিও দূর হয়। ফলে মন এবং শরীর, উভয়ই অনেকটা চাঙ্গা হয়ে ওঠে।

উপকারিতা ৩:

উপকারিতা ৩:

সারা দিন অক্লান্ত পরিশ্রমের পর স্নান করলে আমাদের শ্বাস-প্রশ্বাসের হার, হার্ট রেট এবং মেটাবলিজম খুব কমে যায়। ফলে শরীর আরাম পায়। শুধু তাই নয়, সারা শরীরে রক্ত চলাচল আরো ভাল ভাবে হতে শুরু করে। যে কারণে মানসিক অবসাদ, ক্লান্তি, চিন্তা প্রভৃতি ক্ষতিকর ফ্যাক্টরগুলির প্রভাবও কমতে থাকে। তাহলে বুঝতেই পারছেন তো আপাত দৃষ্টিতে সামান্য একটা কাজ মনে হলেও স্নান এত রকমভাবে আমাদের সুস্থ রাখতে সাহায্য করে।

উপকারিতা ৪:

উপকারিতা ৪:

অফিস থেকে ফিরে ঠান্ডা ঠান্ডা জলে স্নান করলে ঘুম খুব ভাল হয়। তবে একটা জিনিস মনে রাখবেন, স্নান করার সঙ্গে সঙ্গেই শুয়ে পরবেন না। এমনটা করলে কিন্তু ক্ষতি হবে। বরং স্নান করার এক ঘন্টা পর শুতে যাবেন। তাতে ফল পাবেন বেশি।

উপকারিতা ৫:

উপকারিতা ৫:

কাজের চাপের কারণে কি আপনি খুব খিটখিটে হয়ে যাচ্ছেন? উত্তর যদি হ্যাঁ হয়, তাহলে অফিস থেকে ফিরে স্নান করা মাস্ট! কারণ এমনটা করলে শরীরে এমন কিছু হরমোনের ক্ষরণ হয়, যা নিমেষে সব চিন্তা কমিয়ে মন ভাল করে দেয়।

উপকারিতা ৬:

উপকারিতা ৬:

আজকের জেট যুগে সর্বত্র শুধু প্রতিযোগিতা আর প্রতিযোগিতা। এমন পরিবেশে টিকে থাকতে সবাইকেই মারাত্মক মানসিক চাপ নিতে হয়। যে কারণে ক্লান্তির পাশাপাশি স্ট্রেস এবং টেনশনেও যেন নিত্য দিনের সঙ্গী হয়ে উঠেছে। আর এমন মানসিক অবস্থায় দীর্ঘদিন থাকলে শরীর এবং মনের ক্ষয় হতে বাধ্য। তাহলে উপায়! চিন্তা নেই। প্রতিদিন বাড়ি ফিরে স্নান করা শুরু করুন। এমনটা করলেই দেখবেন মানসিক শান্তি ফিরে পাবেন। সেই সঙ্গে শারীরও অনেক চাঙ্গা হয়ে উঠবে। শুধু তাই নয়, স্নান করার কারণে শরীরের পেশিগুলি খুব আরাম পায়। তাতে হঠাৎ চোট-আঘাত লাগার আশঙ্কা কমে।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    English summary

    সারাদিন কাজের পর স্নান করা জরুরি কেন?

    At the end of the day, when you reach home from work, lots of dust and pollen will be sitting on your body. One shower would clean all that and prevent infections or allergies.
    Story first published: Tuesday, April 4, 2017, 11:00 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more