For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

রোগ ঠেকিয়ে রাখতে পারেন সুপারফুডের সাহায্যে

|

হাজার রকম রোগে এখন মানুষের শরীর জেরবার। কেউ ভুগছেন হাই ব্লাড প্রেশারে তো কেউ আবার ডায়াবেটিসের রোগে, কারও ডাক্তার আবার বলেই দিয়েছে হার্ট অ্যাটাকের সম্ভাবনা আছে। কারও লিভারে ফ্যাট জমে বিপজ্জনক অবস্থা। কেউ কেউ আবার ক্যানসারের ফার্স্ট স্টেজে। এই অবস্থায় শরীরটা বাঁচাবেন কী করে? কোনটা ছেড়ে কোনটা খাবেন? কোনটা খেলে মারণরোগগুলো ঠেকিয়ে রাখা যায়। এটাই এখন আপনার দিনরাতের চিন্তা। আজকের প্রতিবেদনে থাকছে তেমন কিছু খাবারের নাম যেগুলো নানারকম গুণে সমৃদ্ধ। শুধু তাই নয়, যেসব মারণ রোগে আপনি ভুগছেন, তা ঠেকিয়ে রাখার ক্ষমতাও রাখে।

১। আখরোট

১। আখরোট

ডাক্তার বলছেন হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোকের সম্ভাবনা আছে। এদিকে গবেষকরা বলছেন আখরোট খেলে দূরে থাকে যেকোনওরকম হার্টের সমস্যা। প্রতিবছর সারা পৃথিবীতে শুধু হার্টের সমস্যাতেই মৃত্যু হয় প্রায় ১৭ মিলিয়ন মানুষের। আখরোট খেলে কমে যায় হার্ট অ্যাটাকের ঝুঁকি। আখরোটে থাকে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড আর অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এর মত গুরুত্বপূর্ণ উপকরণ যা সুস্থসবল রাখে আপনার হার্টের পেশিগুলোকে। আখরোটের খোসা থেকে ভিতরটা পর্যন্ত সবটাই আপনার হার্টের জন্য উপকারী। এমনকি আখরোটের তেলও স্যালাডের সঙ্গে খেতে অত্যন্ত সুস্বাদু লাগে।

২। বিনস্

২। বিনস্

বিনস শুনেই নাক কুঁচকে গেল? জানেন কি বিনস্-এ আছে প্রচুর পরিমাণ আয়রন আর ফাইবার। বিনস্ একদিকে দূরে রাখে ব্লাড সুগার আর টাইপ ২ ডায়াবেটিস এর মত ভয়ানক রোগকে। আবার অন্যদিকে রক্তে কোলেস্টেরলের পরিমাণ বেড়ে গেলে তা নিয়ন্ত্রণ করে। শুধু তাই নয়, বিনস্-এ রয়েছে এমন ফাইবার যা হজম হতে সময় লাগে বেশ কিছুক্ষণ। ফলে একবার বিনস্ খেলে অনেকক্ষণ পেট ভরা থাকে। তাই ওজন কমাতেও এটা দারুণ উপকারী।

৩। ব্রকলি

৩। ব্রকলি

ক্যানসারের ভয় আর নয়। ব্রকলির খাদ্যগুণেই এবার মারণরোগ ক্যানসার থেকে রেহাই পাবেন আপনি। গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে, ব্রকলিতে রয়েছে এমন একটি এনজাইম যা শরীরে ঢুকে ক্যানসারের জিনগুলির সঙ্গে সরাসরি লড়াই করে। মাইরোসিনেজ নামের এই উৎসেচক থেকে তৈরি হয় সালফোরাফেন নামের একটি যৌগ, এটিই শরীরে থাকা ক্যানসারের জিনগুলোকে নষ্ট করে। শুধু তাই নয় , ক্যানসার হওয়ার পরেও যদি ব্রকলি খেতে শুরু করেন, এই সালফোরাফেন যৌগটি ক্যানসার ছড়িয়ে পড়ার গতিকে বাধা দেয়। ঠিক কী ধরনের ক্যানসার প্রতিরোধ করতে পারে ক্যান্সার? বিশেষজ্ঞদের মত, প্রস্টেট ক্যান্সার , ব্রেষ্ট ক্যান্সার এমনকি ফুসফুস ও ত্বকের ক্যান্সারের মত ভয়াবহ ক্যানসারগুলিকে রোধ করতে পারে ব্রকলির খাদ্যগুণ। ব্রকলি সিদ্ধ করে খান বা মশলা দিয়ে রেঁধেও, এর খাদ্যগুণ কিন্তু সহজে নষ্ট হয় না।

৪। পালং শাক

৪। পালং শাক

রোজ ভাজাভুজি, ফাষ্টফুডের মত খাবার খেতে খেতে লিভারের বারোটা বাজতে শুরু করেছে। এখন অল্প করে সাধারণ বাড়ির খাবার খেলেও হজম হতে চায় না সেই খাবার। এমনকি বাইরের খাবার খেলেই পেটের গোলযোগে ভুগতে হয় বেশ কয়েকদিন। এসবের ইঙ্গিত হল লিভারে ফ্যাট জমা। লিভারের উৎসেচক খাবারের টক্সিনকে নষ্ট করে খাবারকে হজমের উপযোগী করে তোলে। সেই লিভারেই যখন ফ্যাট জমতে শুরু করে, উৎসেচকের কাজ আর ঠিকঠাক হয় না। পালং শাকে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই আর বিটাইন ও কোলিন নামে দুই অত্যন্ত উপকারী উৎসেচক। এই তিনটি উপকরণ একসঙ্গে মিলে লিভারে ফ্যাট জমতে বাধা দেয়। এমনকি কমিয়ে দেয় লিভারে ফ্যাটি অ্যাসিড পরিমাণও।

৫। ডিম

৫। ডিম

ডিমের সাদা অংশ থেকে ভিতরের কুসুম অবধি কোনওকিছুই ফেলনা নয়। অনেকেই কুসুমটা ফেলে দিয়ে খান, যা মোটেই বুদ্ধিমানের কাজ নয় কারণ ডিমের বেশিরভাগ খাদ্যগুণ থাকে কুসুমেই। কিন্তু ডিম খাবেন কেন? কোনও একটা রোগের জন্য নয়, ডিম একাধিক রোগ প্রতিরোধে শরীরকে সাহায্য করে। ডিম ও তার কুসুমে রয়েছে এমন কিছু অ্যামিনো অ্যাসিড যা শরীরের জন্য প্রয়োজনীয় হলেও শরীর তৈরি করতে পারে না। অনেকে মনে করেন, ডিম রক্তে কোলেস্টেরল বাড়িয়ে দেয়। কিন্তু বেশকিছু গবেষণায় প্রমাণিত হয়েছে ডিম খেলে মোটেও কোলেস্টেরল বাড়ে না। বরং ডিমে রয়েছে ভিটামিন এ, বি ১২ , সেলেনিয়াম আর আয়রনের অত্যন্ত দরকারি উপাদান। এগুলো ভিটামিনের অভাবজনিত রোগ থেকে আপনার শরীরকে প্রতিরোধক্ষমতা জোগায়।

English summary

super food that can save your life

super food that can save your life.
X