বয়সের কোনও ঊর্ধ্বসীমা নেইঃ একটি গবেষণা

Posted By: Lekhaka
Subscribe to Boldsky

"জন্মিলে মরিতে হবে, অমর কে কোথা রবে"- মধুকবির এই বিখ্যাত উক্তি কে না জানেন! একদিকে পদ্মপাতায় নীরের মতো জীবন যেমন অস্থির, তেমনই অন্যদিকে বয়সের কোনও নির্দিষ্ট ঊর্ধ্বসীমাও নেই। কয়েক বছর আগেও বিশ্বাস করা হতো যে মানুষ একটি নির্দিষ্ট বয়সের পর পরলোকে যাত্রা শুরু করেন। এরপর বিজ্ঞানের বিভিন্ন গবেষণায় জানা যায় যে, একজন মানুষের বয়সের সর্বোচ্চ সীমা প্রায় ১১৫ বছর। যদিও, সাম্প্রতিক গবেষণায় সেই ধারনারও আমুল পরিবর্তন ঘটেছে।

সম্প্রতি নেচার পত্রিকায় এই বিষয়ে একটি গবেষণাপত্র প্রকাশিত হয়েছে। কানাডার ম্যাকগিল বিশ্ববিদ্যালয়ের জীববৈজ্ঞানিক সিগফ্রয়েড হেকিমি তাঁর এই গবেষণাপত্রে জানিয়েছেন, মানবজীবনের যদি হাতে গোনা বয়সসীমা থাকত, তবে তার প্রমাণ পাওয়া যেত। ডাক্তার হেকিমি আরও জানান যে, কোনওভাবেই মানুষের বয়সসীমা নির্দিষ্ট করে বলা যায় না।

lifespan

বৈজ্ঞানিক গবেষণা বিভিন্ন সমীক্ষার দ্বারা মানুষের গড় বয়স এবং নির্দিষ্ট বয়সসীমা অনুমান করতে পারে মাত্র। হেকিমির সঙ্গে একমত পোষণ করেছেন আরও বেশ কয়েকজন বৈজ্ঞানিক। তাঁদের মতে, টেকনোলজি, চিকিৎসা ব্যবস্থার উন্নতি এবং মানুষের জীবনধারণের মানোন্নয়ন সবকিছুই বার্ধক্যজনিত সমস্যাগুলোকে কমিয়ে দিচ্ছে। এমনকি, হেকিমির মতে আগামী প্রজন্মে বার্ধক্যের ঊর্ধ্বসীমা কত হবে, তাও এই মুহূর্তে অনুমান করা কঠিন।

lifespan

এই সূত্রে হেকিমি আরও জানান যে, "তিনশো বছর আগে মানুষ খুব কম সময়ের জন্যই এই পৃথিবীতে কাটাতে পারতেন। তাদের কাছে সেই সময় কোনও মানুষের ১০০ বছর বেঁচে থাকার ঘটনা যেমন অলৌকিক ছিল, তেমনি পাগলের প্রলাপ বলেই মনে করা হত"।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: গবেষণা শরীর
    English summary

    বিজ্ঞানের বিভিন্ন গবেষণায় জানা যায় যে, একজন মানুষের বয়সের সর্বোচ্চ সীমা প্রায় ১১৫ বছর। যদিও, সাম্প্রতিক গবেষণায় সেই ধারনারও আমুল পরিবর্তন ঘটেছে।

    Challenging theories that say human lifespan is approaching a limit, researchers have found that there is no evidence that maximum human lifespan has stopped increasing and could instead far exceed previous predictions.
    Story first published: Thursday, July 6, 2017, 18:06 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more