এই ৭ টি কারণে জামা-কাপড় আমাদের মারাত্মক অসুস্থ করে তুলতে পারে!

Posted By:
Subscribe to Boldsky

ফ্যাশানেবল ড্রেস পরতে কে না চায় বলুন! কিন্তু স্টাইলের নামে আপনি অসুস্থতা কিনছেন কিনা সে বিষয়েও খেয়াল রাখাটা তো জরুরি! না হলে যে ঘোর বিপদ!

আমরা জামা-কাপড় নিজেদর পছন্দ অনুসারে। তাই তো কখনও ন্যারো-টাইট জিনস, তো কখনও পালাজোর চাহিদা এত তুঙ্গে থাকে। কিন্তু কখনও ভেবে দেখেছেন কি জামা-কাপড়ের সঙ্গে আমাদের সুস্থ থাকার কোনও সম্পর্ক রয়েছে কিনা? শুনলে হয়তো অবাক হয়ে যাবেন একাদিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়েছে যে ঠিক ঠিক জামা-কাপড় না পরলেএকাধিক রোগে আক্রান্ত হওয়াক সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। কিন্তু জামা-কাপড়ের সঙ্গে শরীরে ভাল-মন্দের কী সম্পর্কে?

কেমন ধরনের জামা-কাপড় পরছি তার উপর আমাদের দেখতে কতটা সুন্দর লাগছে তা যেমন অনেকাংশে নির্ভর করে, তেমনি শরীরের ভাল থাকা বা না থাকাও নির্ভর করে। যেমন ধরুন...

১. খুব টাইট জিন্স পরলে কী হয় জানা আছে?

১. খুব টাইট জিন্স পরলে কী হয় জানা আছে?

ন্যারো ফিটিং জিন্স পরলে দীর্ঘক্ষণ আমাদের থাই এবং পেটের নিম্নাংশ চেপে থাকে। ফলে শরীরের এই অংশে রক্ত চলাচল ঠিক মতো হতে পারে না। ফলে পায়ে ক্র্যাম্প লাগা এবং অসারতার মতো সমস্যা হওয়ার সম্ভাবনা থাকে। যেখানে পেটে রক্ত সরবরাহ ঠিক মতো না হওয়ার কারণে অ্যাসিড রিফ্লাক্স এবং বদ হজমের মতো অসুবিধা মাথা চাড়া দিয়ে উঠতে পারে।

২. চাপা স্কার্ট:

২. চাপা স্কার্ট:

অনেকেই তাদের শরীরের কার্ভ দেখানোর জন্য মারাত্মক টাইট স্কার্ট পরে থাকেন। এমন ড্রেসে হয়তো দেখতে খুব সুন্দর লাগে। কিন্তু শরীরের ভাল হয় কি? একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে এমন ধরনের জামা-কাপড় পরলে শ্বাস কষ্ট দেখা দিতে পারে। আসলে টাইট স্কার্ট কোমরের কাছে খুব চেপে থাকে। ফলে শ্বাস-প্রাশ্বাসের প্রক্রিয়া ব্যাহত হয়। এখানেই শেষ নয়, এমন ধরনের ড্রেসের কারণে শরীরের নিচের অংশে স্বাভাবিক রক্ত সরবরাহেও বাঁধা সৃষ্টি হয়। যে কারণে আরও নানা সব শারীরিক সমস্যা হওয়ার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়।

৩. আন্ডারওয়্যার:

৩. আন্ডারওয়্যার:

সঠিক মাপের আন্ডার গার্মেন্ট না পরলে ত্বকের রোগ, ইউরিনারি ট্রাক্ট ইনফেকশন, ভ্যাজাইনাল ইনফেকশন, স্পার্ম কাউন্ট কমে যাওয়া এবং গ্যাস অম্বলের সমস্যা হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। তাই তো সুস্থ থাকতে ঠিক সাইজের আন্ডারওয়্যার পরাটা জরুরি।

৪. কাপড়টা যদি রুক্ষ হয়:

৪. কাপড়টা যদি রুক্ষ হয়:

সম্প্রতি প্রকাশিত একাধিক গবেষণায় একথা প্রমাণিত হয়েছে যে আজকাল বেশিরভাগ জামা-কাপড় এমন সব ফেব্রিক দিয়ে বানানো হচ্ছে, যা শরীরের সংস্পর্শে এলে নানা ধরনের ক্ষতির বৃদ্ধি পাচ্ছে। কিছু ক্ষেত্রে তো এমন জামা-কাপড় পরার কারণে শরীরে হরমোনল ইমব্যালেন্সের মতো সমস্যাও দেখা দিয়েছে। তাই ড্রেস কেনার সময় সাবধান! খুব পরিচিত ব্র্যান্ড ছাড়া কিনবেন না। প্রয়োজনে কী কাপড় দিয়ে আপনার পছন্দের ড্রেসটা বানানো হয়েছে সে সম্পর্কে ভাল করে জেনে নেবেন।

৫. হাই হিল:

৫. হাই হিল:

জুতো হয়তো জামা-কাপড়ের সেগমেন্টে আসবে না, তবু এ সম্পর্কে জেনে রাখাটা একান্ত প্রয়োজন। একাধিক কেস স্টাডি করে জানা গেছে বহুক্ষণ হিল জুতো পরে থাকলে গোড়ালি, পিঠ, ঘার এবং কোমরের একধিক রোগ হওয়ার সম্ভবনা প্রায় ১০০ শতাংশ বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে নিউরোমার মতো ডিজিজ হওয়ার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়।

৬.ভারি গয়না:

৬.ভারি গয়না:

খুব ভারি দুল পরলে দেখতে হয়তো সুন্দর লাগে। কিন্তু এমন ধরনের জুয়েলারির কারণে অনেক সময় কানের পাতায় মারাত্মক যন্ত্রণা হওয়ার আশঙ্কাও থাকে। একইভাবে গলার হারের ওজন যদি বেশি হয়, তাহলে স্পাইনাল কর্ডে যন্ত্রণা বা স্টিফনেসের মতো লক্ষণের বহিঃপ্রকাশ ঘটতে পারে।

৭. টাইট ব্রা:

৭. টাইট ব্রা:

ঠিক সাইজের ব্রা না পরলে নার্ভ ড্যামেজ, শরীরের গঠন বিগড়ে যাওয়া, ঘারে মারাত্মক যন্ত্রণা, কাঁধ এবং পিঠে ব্যথা, শ্বাস কষ্ট এবং ব্রেস্টের সৌন্দর্য কমে যাওয়ার মতো একাধিক সমস্যা দেখা দিতে পারে। তাই সঠিক সাইজের ইনার ওয়্যার কেনাটা জরুরি।

    Read more about: শরীর রোগ
    English summary

    এই ৭ টি কারণে জামা-কাপড় আমাদের মারাত্মক অসুস্থ করে তুলতে পারে!

    We all love to be abreast with the trending fashion in town. Flaunting new peeptoes or chandelier earrings is always a yes-yes for many. But, even the most fashionable amongst us would agree that sometimes, for the sake of fashion, we bear pain. Your trendy clothes may not always be friends with your body. Here is a list of health malfunctions you may be doing every day.
    Story first published: Friday, May 19, 2017, 15:32 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more