For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

নিমেষে মন ভাল করতে এই খাবারগুলির জুড়ি মেলা ভার!

|

আজকাল প্রাণ খুলে কেউ হাসে না কেন? কারণ তো অনেক। তবে স্ট্রেসকে এক্ষেত্রে বিশেষভাবে দায়ি করা যেতে পারে। কারণ একাধিক পরিসংখ্যান ঘেঁটে এই তথ্যই সামনে এসেছে যে গত কয়েক দশকে সাধারণ মানুষের উপর মানসিক চাপের নেতিবাচক প্রভাব কয়েক গুণ বৃদ্ধি পেয়েছে। আর এই অবস্থা যে কেবল আমাদের দেশেই, তা নয়। সারা বিশ্বের ছবিটাই একই রকম।

মানসিক ভাবে সুস্থ না থকলে মন ভাল থাকে না। আর মন ভাল না থাকলে মুখে হাসি ফুটবে কী করে বলুন! তাই তো মনকে চাঙ্গা রাখাটা আমাদের সকলেরই প্রখম কর্তব্য হওয়া উচিত। আর এক্ষেত্রে আপনাদের সাহায্য করতে পারে এই প্রবন্ধটি। কারণ এই লেখায় এমন কিছু খাবারের প্রসঙ্গে আলোচনা করা হল, যা নিমেষে মন ভাল করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। কিন্তু খাবারের সঙ্গে মনের কী সম্পর্ক? আমাদের শরীরে ডেপোমিন অথবা সেরোটোনিন হরমোনের ঘাটতি দেখা দিল মন খারাপ হতে শুরু। আর এই ঘটতি মেটাতে বিশেষ কিছু খাবার দারুনভাবে সাহায্য করে।

কী কী খাবার এক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে? চলুন জেনে নেওয়া যাক সে সম্পর্কে।

১. মাছ:

১. মাছ:

এতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, যা ডোপেমিন হরমোনের ক্ষরণ বাড়িয়ে দিয়ে চোখের পলকে মনকে একেবারে চাঙ্গা করে তোলে।

২. তিসি বীজ:

২. তিসি বীজ:

মাছের মতোই তিসি বীজেও রয়েছে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড। এই উপাদানটি ডোপেমিনের পাশপাশি সেরাটোনিনের উৎপাদনও বাড়িয়ে দেয়। ফলে মন খারাপ দূরে পালায়।

৩. মাশরুম:

৩. মাশরুম:

এতে রয়েছে ভিটামিন বি৬, যা ডিপ্রেশন দূর করতে বিশেষভাবে কাজে আসে। তাই এবার থেকে যখনই মন খারাপ হবে, তখনই মাশরুমের নানা পদ বানিয়ে নিজেও খাবেন, পরিবারের বাকি সদস্যদেরও খাওয়াবেন। তাহলেই দেখবেন সবার মন নিমেষে খুশি খুশি হয়ে যাবে।

৪. মসূর ডাল:

৪. মসূর ডাল:

শরীরে সেরোটোনিন হরমোনের ঘাটতি দূর করতে ফলিক অ্যাসিড বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। আর এই উপাদানটি প্রচুর মাত্রায় রয়েছে মসূর ডালে। তাই তো চটজলদি মন ভাল করতে এই খাবারটির কোনও বিরল্প হয় না বললেই চলে।

৫. কাজুবাদাম:

৫. কাজুবাদাম:

এতে রয়েছে বিপুল পরিমাণে জিঙ্ক। এই খনিজটি মন ভাল করতে নানাভাবে সাহায্য করে। প্রসঙ্গত, ডিপ্রেশন বা মানসিক অবসাদের চিকিৎসাতেও এই খাবারটি দারুন কাজে আসে। তাই এবার থেকে মন ভাল না থাকলেই কাজু বাদাম খাবেন। দেখবেন অল্প সময়েই মনের কালো মেঘ কেটে যাবে।

৬. ছোলা:

৬. ছোলা:

ছোলায় উপস্থিত প্রোটিন ব্রেন সেলের কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি করে। ফলে নিমেষে ধুকতে থাকা মন চাঙ্গা হয়ে ওঠে।

৭. কলা:

৭. কলা:

সেরোটনিন হরমোনের ক্ষরণ বাড়াতে পটাশিয়াম এবং ম্যাগনেসিয়াম দারুন ভাবে সাহায্য করে। এই দুটি খনিজ যেহেতু কলায় রয়েছে। তাই তো মন ভাল করতে বেশি করে কলা খাওয়ার পরামর্শ দেন বিশেষজ্ঞরা।

English summary

নিমেষে মন ভাল করতে এই খাবারগুলির জুড়ি মেলা ভার!

Being in a good mood definitely has a positive effect on you, as well as the people around you! If you are in a bad mood, upset or cranky, it can spoil your entire day and come in the way of your work, social activities, etc.
X