নিমেষে মাথার যন্ত্রণা কমাতে চান? কাজে লাগান এই ঘরোয়া টোটকাগুলিকে!

Written By:
Subscribe to Boldsky

মাথার যন্ত্রণাকে একেবারে সমূলে উৎখাত করবে এমন ওষুধ না থাকলেও এমন কিছু ঘরোয়া চিকিৎসা আছে যা দিয়ে যন্ত্রণাকে নিমেষে কাবু করে ফেলা সম্ভব। এই ঘরোয়া ওষধগুলি আপনার পকেটকে ফুঁটো তো করবেই না, উলটে আরাম দেবে। তাই এই প্রবন্ধটি সেইসব মানুষদের জন্য় যারা মাথার যন্ত্রণায় প্রায়শই ভুগে থাকেন। প্রসঙ্গত, নানা করণে মাথায় যন্ত্রণা হতে পারে। আর সেই কারণগুলির পিছনে যেমন আমাদের জীবনযাত্রা দায়ি থাকে, তেমনি নানা রোগের ভূমিকাকেও অস্বীকার করা যায় না। তবে আজকাল স্ট্রেস একটা বড় কারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে মাথা ব্যথার ক্ষেত্রে। তাই তো আরও বেশি করে এইসব ঘরোয়া ওষুধগুলিকে সঙ্গে রাখতে হবে। কেন? পরিসংখ্য়ান বলছে যত দিন যাচ্ছে স্ট্রেস আক্রান্ত মানুষের সংখ্য়াও বৃদ্ধি পাচ্ছে। তাই আগে থেকেই সাবধান হওয়াটা জরুরি।

১. দারচিনি:

১. দারচিনি:

আয়ুর্বেদ বিশেষজ্ঞরা এই মশলাটিকে "মিরাকেল স্পাইস" নামে ঢেকে থাকেন। দারচিনিকে কেন এমন নাম দেওয়া হয়েছে জানা আছে? আসলে দেখতে ছোট্ট হলেও আমাদের শরীরকে চাঙ্গা রাখতে এই প্রকৃতিক উপাদানটি বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। শুধু তাই নয়, মাথার যন্ত্রণা কমাতেও দারচিনি দারুন কাজে আসে। এক্ষেত্রে অল্প পরিমাণ দারচিনি পাউডার নিয়ে পরিমাণ মতো জলে মিশিয়ে একটা পেস্ট বানাতে হবে প্রথমে। তারপর সেই পেস্টটা কপালে কম করে ৩০ মিনিট লাগিয়ে রাখলেই দেখবেন মাথার যন্ত্রণা উবে যাবে।

২. অ্যালো ভেরা:

২. অ্যালো ভেরা:

এতে রয়েছে অ্যামাইনো অ্যাসিজ এবং বেশ কিছু কার্যকরি এনজাইম, যা মাথার যন্ত্রণা এবং একাধিক স্কিনের সমস্যা কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৩. ল্যাভেন্ডার:

৩. ল্যাভেন্ডার:

এতে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লমেটরি এবং অ্যান্টি-সেপটিক প্রপাটিজ, যা যে কোনও ধরনের যন্ত্রণা কমাতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে। পরিমাণ মতো গরম জলে কয়েকটি ল্যাভেন্ডার পাতা ফেলে ভাপ নিন। দেখবেন আনেক আরাম পাবেন।

৪. লবঙ্গ:

৪. লবঙ্গ:

এর অন্দরে উপস্থিত পেন-রিলিভিং প্রপাটিজ সারা শরীরের ঠান্ডার স্রোত বইয়ে দেওয়ার মধ্যে দিয়ে কপালে হওয়া প্রদাহকে একেবারে কমিয়ে দেয়। তাই তো এবার থেকে কপালে ঠিপ ঠিপ করলেই অল্প কয়েকটা লবঙ্গ বেটে একটা পরিষ্কার রুমালে রেখে বারে বারে গন্ধ নিতে থাকবেন। এমনটা কয়েক মিনিট করলেই দেখবেন কষ্ট কমে যাবে।

৫. তুলসি:

৫. তুলসি:

কয়েকটি তুলসি পাতা নিয়ে হাতে ঘোষে কপালে লাগিয়ে ফেলুন। আরাম পাবেন। কারণ এই পাতাটির অন্দরে ঠাসা রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি উপাদান, যা এই ধরনের কষ্ট কমাতে দারুন কাজে আসে।

৬. সেগে পাতা:

৬. সেগে পাতা:

এই পাতাটি মাথার ব্যথা তো কমায়ই, সেই সঙ্গে আরও নানা ধরনের সমস্যার প্রকোপ কমাতে কাজে লাগে।

৭. পার্সলে:

৭. পার্সলে:

রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটানোর পাশাপাশি মাথার যন্ত্রণা কামতে এটি দারুন কাজে আসে। তাই এবার থেকে মাথার যন্ত্রণা হলেই অল্প করে পার্সলে শাখের পাতা খেয়ে নেবেন। নিমেষে কমে যাবে ব্যথা।

৮. থাইম পাতা:

৮. থাইম পাতা:

ল্য়াভেন্ডার পাতার মতনই এতে রয়েছে অ্যান্টি-ইনফ্লমেটরি প্রপাটিজ যা প্রদাহ কমায়। তাই মাথায় যন্ত্রণা হলেই থাইম পাতার রস খান। ফল পাবেন হাতে-নাতে।

৯. মিন্ট পাতা:

৯. মিন্ট পাতা:

প্রতিদিন নিয়ম করে মিন্ট পাতা দিয়ে বানানো চা খেলে শুধু মাথায় যন্ত্রণা নয়, সেই সঙ্গে পেটের ব্যথা এবং মাথা ঘোরার মতো সমস্যায় কমে।

১০. আদা:

১০. আদা:

মাথা যন্ত্রণা কমাতে এই প্রকৃতিক উপাদানটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। কারণ আদার অন্দরে থাকা অ্যান্টিইনফ্লেমেটরি উপাদান কপালের অন্দরে থাকা ব্লাড ভেসেলের প্রদাহ কমানোর মধ্যে দিয়ে নিমেষে মাথা যান্ত্রণা কমাতে দারুন উপযোগি ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই তো এবার থেকে কপালে আগুন জ্বললেই এক কাপ আদা চা বানিয়ে ঝটপট খেয়ে ফলেবেন। তাহলেই দেখবেন কেল্লাফতে!

১১. লেবু:

১১. লেবু:

মাথা যন্ত্রণা কমাতে এটি দারুন কাজে আসে। এমনকি যে কোনও ধরনের চুলকানি কমাতেও এই ঘরোয়া ওষুধটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে।

Read more about: শরীর রোগ
English summary

মাথার যন্ত্রণাকে একেবারে সমূলে উৎখাত করবে এমন ওষুধ না থাকলেও এমন কিছু ঘরোয়া চিকিৎসা আছে যা দিয়ে যন্ত্রণাকে নিমেষে কাবু করে ফেলা সম্ভব। এই ঘরোয়া ওষধগুলি আপনার পকেটকে ফুঁটো তো করবেই না, উলটে আরাম দেবে।

Whether you suffer from sinus headaches or tension headaches, they’re unbearable to say the least. If you find that headaches are taking over your life, you might be tempted to pop a painkiller. While pain medication can offer quick relief, taking it too often can cause severe side effects.Instead of loading up on meds, here are home remedies for headache that will cure them in a pinch.
Story first published: Saturday, March 3, 2018, 15:52 [IST]
We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more