ত্বককে নরম এবং প্রাণচ্ছ্বল করে তুলতে আঙুরকে কাজে লাগাতে ভুলবেন না যেন!

Written By:
Subscribe to Boldsky

নানাবিধ রোগের হাত থেকে রক্ষা করার পাশাপাশি ত্বকের সৌন্দর্য বৃদ্ধিতেও এই ফলটির কোনও বিকল্প নেই বললেই চলে। তাই তো ভ্যালেন্টাইন ডের দিন নিজ সৌন্দর্য ছটায় যদি প্রেমিককে তাক লাগিয়ে দিতে চান, তাহলে আজই ত্বকের পরিচর্যায় এই ফলটিকে কাজে লাগাতে ভুলবেন না যেন!

"ফলের রাণি" নামে খ্যাত এই ফলটিতে উপস্থিত ভিটামিন সি, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং আরও সব উপকারি উপাদান শরীরে প্রবেশ করার পর ত্বকের অন্দরে জমে থাকা টক্সিক উপাদানদের বের করে দেয়। ফলে স্কিন সুন্দর হয়ে উঠতে একেবারেই সময় লাগে না। তবে এখানেই শেষ নয়, আঙুর আরও নানাভাবে ত্বকের দেখভাল করে থাকে। যেমন ধরুন...

১. সূর্যের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে ত্বককে বাঁচায়:

১. সূর্যের ক্ষতিকর প্রভাব থেকে ত্বককে বাঁচায়:

গরম কালে আজকাল রাজ্যে এমন তাপ প্রবাহ চলে যে সূর্যের তাপে ত্বকের দফারফা হয়ে যায়। অনেকেরই এই সময় মুখ কালো হয়ে যাওয়া এবং সান বার্নের মতো সমস্যা হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে ডার্মাটোলজিস্টরা সান স্ক্রিন ব্যবহারের পরামর্শ দিয়ে থাকেন। কিন্তু আপনাদের কি জানা আছে সূর্য রশ্মির খারাপ প্রভাব থেকে ত্বককে বাঁচাতে আঙুরের কোনও বিকল্প নেই বললেই চলে। এক্ষেত্রে অল্প পরিমাণে আঙুর নিয়ে তা দিয়ে পেস্ট বানিয়ে সারা মুখে লাগিয়ে ফেলুন। কম করে ৩০ মিনিট রেখে মুখটা ধুয়ে ফেলুন। এমনটা নিয়মিত করলে দেখবেন মুখের ছোপ ছোপ দাগ কমে যেতে সময়ই লাগবে না।

২. ত্বকের বয়স কমায়:

২. ত্বকের বয়স কমায়:

বয়স বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে ত্বকের বয়স বেড়ে যাওয়া এবং বলিরেখার প্রকাশ ঘটা বেজায় স্বাভাবিক ঘটনা। কিন্তু এমনটা যাতে আপনার সঙ্গেও না ঘটুক, তা সুনিশ্চিত করতে আঙুরের সঙ্গে বন্ধুত্ব পাতাতে ভুলবেন না যেন! এক্ষেত্রে নিয়মিত এক মুঠো আঙুর যেমন খেতে হবে, তেমনি এই ফলটি দিয়ে বানানো ফেস প্যাক মুখে লাগাতে হবে। এমনটা যদি নিয়মিত করতে পারেন, তাহলে খাতায় কলমে বয়স বাড়লেও ত্বকের উপর কোনও প্রভাব পরবে না দেখবেন! এতদূর পরার পর নিশ্চয় ভাবছেন আঙুরের মধ্যে এমন কী আছে যে এত উপকারে লাগে? আসলে এই ফলটির অন্দরে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি এবং অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা ত্বকের অন্দরে জমে থাকা টক্সিক উপাদানদের বের করে দেয়, যাদের কারণে মূলত ত্বকের বয়স বেড়ে যায়।

৩. ত্বক হয়ে ওঠে নরম তুলতুলে:

৩. ত্বক হয়ে ওঠে নরম তুলতুলে:

আঙুরের অন্দরে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন ই, যা পুষ্টির ঘাটতি দূর করে ত্বককে ভিতর থেকে সুন্দর এবং নরম করে তুলতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এক্ষেত্রে অল্প পরিমাণ আঙুর নিয়ে সেগুলি দিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিতে হবে প্রথমে। তারপর সেই পেস্টটি মুখে লাগিয়ে ভাল করে মাসাজ করতে হবে। শেষে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফলতে হবে সারা মুখ।

৪. স্কিন টোনের উন্নতি ঘটায়:

৪. স্কিন টোনের উন্নতি ঘটায়:

দূষণ, স্ট্রেস এবং তাপ প্রবাহের কারণে অনেকেরই স্কিন খুব খারাপ হয়ে যায়। বিশেষত যাদের দিনের বেশিরভাগ সময়ই রাস্তায় কাটাতে হয়, তাদের ত্বকের তো বেশি মাত্রায় ক্ষতি হয়ে থাকে। এক্ষেত্রে যদি আঙুরকে কাজে লাগাতে পারেন, তাহলে দেখবেন এই ধরনের সমস্যা কমতে একেবারেই সময় লাগবে না। কারণ এই ফলটির শরীরে রয়েছে পলিফেনল নামক একটি উপাদান, যা এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এখন প্রশ্ন এমন সমস্যায় কীভাবে কাজে লাগাতে হবে আঙুরকে? এক্ষেত্রে পরিমাণ মতো আঙুরের রস নিয়ে ভাল করে মুখে লাগাতে হবে। যতক্ষণ না রসটা শুকিয়ে যাচ্ছে, ততক্ষণ অপেক্ষা করার পর ঠান্ডা জল দিয়ে মুখটা ধুয়ে ফেলতে হবে।

৫. সব ধরনের দাগ কমিয়ে ফেলে:

৫. সব ধরনের দাগ কমিয়ে ফেলে:

ব্রণর দাগ থেকে শুরু করে যে কোনও ধরনের স্কার, সব ধরনের দাগকে মুছে ফলতেই আঙুর দারুন কাজে আসে। আসলে ফলটির অন্দরে থাকা ভিটামিন সি, ত্বকের কোষেদের ভিতর থেকে সারিয়ে তোলে। ফলে ক্ষতের দাগ মুছে যেতে সময় লাগে না। এক্ষেত্রে প্রয়োজন পরবে অল্প পরিমাণ আঙুর এবং ১ চামচ নুনের। এই দুটি উপাদান একসঙ্গে মিক্সিতে ফেলে ভাল করে মিশিয়ে নিতে হবে। তারপর সেই পেস্টটা মুখে লাগিয়ে কম করে ১৫ মিনিট রেখে দিতে হবে। সময় হয়ে গেলে ধুয়ে পেলতে হবে মুখটা। এমনটা যদি নিয়মিত করতে পারেন। তাহলে দেখবেন অপরূপ সুন্দরি হয়ে উঠতে একেবারেই সময় লাগবে না।

Read more about: শরীর, রোগ
English summary
Grapes are an elixir for our skin. Regular consumption and application of grapes can give us smooth and supple skin.
Story first published: Tuesday, February 13, 2018, 12:30 [IST]