ত্বকের আমুল পরিবর্তনে আমলকী কিভাবে কাজে আসতে জানেন?

By: Swaity Das
Subscribe to Boldsky

আমলকী শরীরের যত্নে কতটা কাজে দেয়, তা তো আগেই বলা হয়েছে। আজ, ফেসমাস্ক হিসাবে এই প্রকৃতিক উপাদানটি কতটা কার্যকরি ভূমিকা নেয় সেই নিয়ে আপনাদের জানাবো। ভিটামিন সি এবং অ্যান্টি অক্সিডেন্টে সমৃদ্ধ আমলকী ত্বকের যত্নে দারুণ উপকারি। আমলকীর রসের সঙ্গে আরও কিছু প্রাকৃতিক উপাদান মিশিয়ে মুখে মাখলে ত্বক থাকবে উজ্জ্বল এবং স্বাস্থ্যসম্মত। তাহলে আর দেরি কেন, দেখে নেওয়া যাক ত্বকের যত্নে আমলকী ঠিক কিভাবে কাজ করে।

১. ত্বক মসৃণ করে:

১. ত্বক মসৃণ করে:

আমলকী ত্বকের রং উজ্জ্বল করতে দারুণ কাজে দেয়। এক্ষেত্রে প্রতিদিন সকালে আমলকীর রসের সঙ্গে মধু মিশিয়ে পান করলে একমাসের মধ্যেই ত্বকের পরিবর্তন হয় চোখে পরার মতো। এছাড়াও আমলকীর রস মুখে সরাসরি ব্যবহার করলে ত্বকের রঙ উজ্জ্বল হয় এবং ত্বকের স্বাস্থ্য ভালো থাকে।

২. স্কিনের বয়স কমে:

২. স্কিনের বয়স কমে:

আমলকীর রস নিয়মিত পান করলে ত্বকে বার্ধক্যের ছাপ সহজে পরে না। আর যদি এমনটা করতে ইচ্ছা না হয়, তাহলে আমলকীর রসের সঙ্গে বাদাম তেল মিশিয়ে মুখে মাখতে পারেন। এমনটা করলে ব্রণ সহ যে কোনও দাগ দূর হয় এবং ত্বককে সুন্দর রাখে।

৩. মৃত কোষের স্থর সরে যায়:

৩. মৃত কোষের স্থর সরে যায়:

আমলকীর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে। যে কারণে এই ফলটির নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের মরা কোষ দূর হয়ে যায়। এক্ষেত্রে আমলকীর রসের সঙ্গে চালের গুঁড়ো, মধু, গোলাপ জল মিশিয়ে একটি পেস্ট বানাতে হবে। অল্প পরিমাণে এই পেস্ট নিয়ে মুখে ম্যাসাজ করলে ত্বক থেকে মরা কোষ দূর হবে এবং ত্বক উজ্জ্বল হয়ে উঠবে। ভাল ফল পেতে সপ্তাহে দুবার এই পেস্ট ব্যবহার করতে হবে।

৪. ছোপ দূর করে:

৪. ছোপ দূর করে:

আমলকীর রসের সঙ্গে লেবুর রস মিশিয়ে মুখে মাখলে মুখের কালো ছোপ ভাব দূর হয়। শুধু তাই নয়, তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এই মিশ্রন খুবই উপকারি ভূমিকা নেয়।

৫. টক্সিক উপাদানদের শরীরে থেকে বার করে দেয়:

৫. টক্সিক উপাদানদের শরীরে থেকে বার করে দেয়:

আমলকীর রস প্রাকৃতিক উপায়ে রক্ত শোধন করতে পারে। ফলে ত্বকের যাবতীয় সমস্যাও দূর হতে সময় লাগে না। এছাড়াও আমলকীর রসের সঙ্গে পুদিনা পাতার রস মিশিয়ে ব্রণের ওপর লাগালে খুব দারুন উপকার পাওয়া যায়। এই মিশ্রণটি মুখে সারা রাত লাগিয়ে রেখে পরের দিন দিন ধুয়ে নিলে ব্রণ এবং অ্যাকনের মতো সমস্যা থেকে খুব সহজে মুক্তি পাওয়া যায়।

৬. কোলাজেনের ঘাটতি দূর হয়:

৬. কোলাজেনের ঘাটতি দূর হয়:

আমলকীর মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন সি রয়েছে, যা ত্বকের অন্দরে প্রচুর পরিমাণে কোলাজেন তৈরি করে, সেই সঙ্গে ত্বকে স্থিতিস্থাপক গুণ বৃদ্ধি করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই ত্বক ফর্সা হতে শুরু করে। এক্ষেত্রে কয়েক চামচ বাদাম গুঁড়ো, ২ চামচ চন্দন গুঁড়ো, তিন চামচ আমলকীর রস মিশিয়ে একটি মিশ্রন তৈরি করে নিতে হবে। এই মিশ্রন মুখে মাখলে যে কোনও দাগ এবং বয়সের ছাপ দূর হবে।

৭. স্কিন ডিজিজের চিকিৎসায় কাজে আসে:

৭. স্কিন ডিজিজের চিকিৎসায় কাজে আসে:

আমলকী বাঁটা, কয়েক চামচ দুধের সঙ্গে মিশিয়ে সারা মুখে মেখে নিন। ৪০ মিনিটের জন্য রেখে দিন। এই মিশ্রণটি ত্বককে যে কোনও ধরনের সমস্যা থেকে দূরে রাখে এবং ত্বককে উজ্জ্বল রাখতে সাহায্য করে।

৮. দাগ দূর করে:

৮. দাগ দূর করে:

আমলকীর রসের সঙ্গে অ্যালোভেরার রস মিশিয়ে মুখে মাখুন। এতে মুখের যাবতীয় দাগ দূর হয় এবং বয়সের ছাপ কমতে শুরু করে।

Read more about: রোগ, শরীর
English summary
Being a natural blood purifier, gooseberry (Amla) paste is a worthy solution for your skin woes like acne and pimples. It fights the micro-organisms present in the skin. It is also effective in treating the marks left behind by pimples and restores skin to its normal coloration. Apply gooseberry (Amla) paste on your face for 15-20 minutes to get rid of acne and its ugly spots.
Story first published: Tuesday, October 3, 2017, 17:52 [IST]
Please Wait while comments are loading...