খুব চুল পড়ছে নাকি? তাহলে এই ঘরোয়া হেয়ার মাস্কগুলি ব্যবহার করতে ভুলবেন না যেন!

Written By:
Subscribe to Boldsky

স্ট্রেস, পরিবেশ দূষণ এবং আরও সব নানা কারণে চুল পড়ার হার বেড়ে যাওয়াটা মোটেও অস্বাভাবিক ঘটনা নয়। কিন্তু সমস্যাটা অন্য জায়গায়। যদি সময় থাকতে থাকতে চুল পড়ার হার কমানো না যায়, তাহলে কিন্তু বেজয় বিপদ! কারণ সেক্ষেত্রে মাথা ফাঁকা হয়ে যেতে কিন্তু সময় লাগবে না। তাই সাবধান হওয়াটা জরুরি!

এখন প্রশ্ন হল চুল পড়ার হার যাতে কমে, তা সুনিশ্চিত করতে কী করা যেতে পারে? এক্ষেত্রে একটা কাজ করতে পারেন। কী কাজ? পাঁচ মিনিট সময় নষ্ট করে এই প্রবন্ধটি একবার পড়ে ফেলুন। দেখবেন শুধু চুল পড়ার হার কমবে না। সেই সঙ্গে চুলের সৌন্দর্যও বৃদ্ধি পাবে চোখে পরার মতো।

তাহলে আর অপেক্ষা কেন! চলুন কম খরচে কীভাবে চুলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি পেতে পারে, সে সম্পর্কে জেনে নেওয়া যাক! সেই সঙ্গে চুল পড়ার হার কীভাবে কমতে পারে, সে বিষয়েও বিস্তারিত আলোচনা করা হবে। প্রসঙ্গত, এক্ষেত্রে বেশ কিছু ঘরোয়া হেয়ার মাস্ককে কাজে লাগানো যেতে পারে। যেমন ধরুন...

১. ডিম দিয়ে তৈরি হেয়ার মাস্ক:

১. ডিম দিয়ে তৈরি হেয়ার মাস্ক:

ডিম বাস্তবিকই একটি পুষ্টিকর খাবার। যার মধ্যে প্রচুর পরিমাণে যেমন ভিটামিন রয়েছে, তেমনি রয়েছে নানা সব উপকারি উপাদান। তাই তো চুল এবং স্কাল্পের অন্দরে পুষ্টির ঘাটতি দূর করতে ডিমের কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। তাই যদি চটজলদি হেয়ার ফল কমাতে চান, তাহলে ডিম দিয়ে তৈরি হেয়ার মাস্ককে কাজে লাগাতে ভুলবেন না যেন! এক্ষেত্রে প্রয়োজন পরবে ১ টা ডিম, ১ কাপ দুধ, ২ চামচ লেবুর রস এবং ২ চামচ অলিভ অয়েলের। সব কটি উপাদান একসঙ্গে মেশানোর পর তা ভাল করে স্কাল্পে লাগিয়ে কম করে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে চুলটা। প্রসঙ্গত, সপ্তাহে কয়েকবার এই ভাবে চুলের পরিচর্যা করলে চুলের অন্দরে প্রোটিন এবং অ্যামাইনো অ্যাসিডের মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করবে। ফলে চুল পড়ার হার তো কমবেই, সেই সঙ্গে চুল হয়ে উঠবে উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত!

২. কলা:

২. কলা:

এই ফলটিতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় পটাশিয়াম, প্রকৃতিক অয়েল, ভিটামিন এবং আরও অনেক ধরনের উপকারি উপাদান, যা চুলের অন্দরে প্রবেশ করার পর এমন খেল দেখায় যে চুল পড়ার হার কমতে সময় লাগে না। তাই তো বলি বন্ধু, মাথা ফাঁকা হয়ে যাওয়ার আগে ২ টো কলার চোটকে, তার সঙ্গে ১ চামচ অলিভ অয়েল, ১ চামচ নারকেল তেল এবং ১ চামচ মধু মিশিয়ে একটা পেস্ট বানিয়ে নিন। তারপর সেই মিশ্রনটি স্কাল্পে লাগিয়ে কিছু সময় অপেক্ষা করুন। সময় হয়ে গেলে হালকা গরম জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন চুলটা। প্রসঙ্গত, চুলের পরিচর্যায় আরেকভাবেও কলাকে কাজে লাগানো যেতে পারে। কীভাবে? ২-৩ টে কলা নিয়ে প্রথমে ভাল করে চোটকে নিন। তারপর তাতে ৫-৮ ড্রপ বাদাম তেল মেশান। এবার সেই পেস্টটা ভাল করে স্কাল্পে লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করুন। সময় শেষে ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন মাথাটা।

৩. দই:

৩. দই:

চুলের হারিয়ে যাওয়া আদ্রতা ফিরিয়ে আনতে এবং অল্প সময়ে চুলকে সুন্দর করে তুলতে এই ঘরোয়া টোটকাটির কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। শুধু তাই নয়, চুলকে শক্তপোক্ত করে হেয়ার ফল কমাতেও এই হেয়ার মাস্কটি নানাভাবে সাহায্য করে থাকে। আসলে দইয়ের অন্দরে থাকা ভিটামিন বি, ডি, প্রোটিন এবং ক্যালসিয়াম এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এখন প্রশ্ন হল, এই হেয়ার মাস্কটি বানাতে হবে কীভাবে? ১ কাপ দইয়ে ১ চামচ অ্যাপেল সিডার ভিনিগার এবং ১ চামচ মধু মিশিয়ে বানিয়ে নিতে হবে এই হেয়ার মাস্কটি। এরপর সেটি চুলের গোড়ায় লাগিয়ে ১৫-২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। তারপর ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলতে হবে মাথাটা।

৪. অ্যাভোকাডো হেয়ার মাস্ক:

৪. অ্যাভোকাডো হেয়ার মাস্ক:

এই ফলটিতে রয়েছে প্রচুর পরিমাণে ওমেগা থ্রি ফ্যাটি অ্যাসিড, যা চুলের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘঠাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে। সেই সঙ্গে চুলের গোড়া শোক্ত-পোক্ত করে হেয়ার ফল কমাতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই অল্প দিনে যদি অপূর্ব সুন্দর চুলের অধিকারি হতে চান, তাহলে এই ঘরোয়া হেয়ার মাস্কটিকে কাজে লাগাতে ভুলবেন না যেন! এই হেয়ার মাস্কটি বানাতে প্রয়োজন পরবে একটা পাকা অ্যাভোকাডো, হাফ কাপ দুধ, ১ চামচ অলিভ অয়েল এবং ১ চামচ বাদাম তেলের। সবকটি উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে চুলের গোড়ায় লাগাতে হবে। ১৫ মিনিট অপেক্ষা করে ধুয়ে ফেলতে হবে চুলটা।

৫. স্ট্রবেরি হেয়ার মাস্ক:

৫. স্ট্রবেরি হেয়ার মাস্ক:

আপনার চুল কি বেজায় তেলতেলে? এই কারণেও কিন্তু অনেক সময় চুলের গোড়া দুর্বল হয়ে গিয়ে চুল পড়ার হার বেড়ে যেতে পারে। তাই এই বিষয়টি খেয়াল রাখাটা একান্ত প্রয়োজন। প্রসঙ্গত, এমন পরিস্থিতিতে চুলের সৌন্দর্য ধরে রাখতে দারুনভাবে সাহায্য করতে পারে স্ট্রবেরি হেয়ার মাস্ক। এই মাস্কটি নিয়মিত ব্যবহার করলে চুলের তেলতেলে ভাব তো কমবেই, সেই সঙ্গে চুলের গোড়া শক্তপোক্ত হবে এবং অবশ্যই হেয়ার ফলের হার কমতে শুরু করবে। প্রসঙ্গত, এই হেয়ার মাস্কটি বানাতে প্রয়োজন পরবে ৩-৪ টি স্ট্রবেরি, ১ চামচ নারকেল তেল এবং ১ চামচ মধুর। সবকটি উপাদান একসঙ্গে মিশিয়ে বানানো পেস্টটি স্কাল্পে লাগিয়ে ২০ মিনিট অপেক্ষা করতে হবে। সময় হয়ে গেলে ধুয়ে ফেলতে হবে চুলটা।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: শরীর রোগ
    English summary

    5 Effective Hair Masks To Treat Hair Loss

    Hair fall is a huge concern for many women across the globe, and if you are one of them, you should know that there are many treatments that can help you deal with this issue. The only problem is that not everyone has enough time to visit the salon to get one of these treatments. With your busy schedule, taking time out to get your hair treated can be a hassle. However, there are various options. An efficient and smart way to prevent and stop hair loss permanently is to try out some homemade hair masks.
    Story first published: Thursday, April 26, 2018, 15:34 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more