বাড়ির কোন কোন দেওয়ালে ঠাকুরের ছবি ঝোলানো উচিত জানা আছে?

Written By:
Subscribe to Boldsky

অনেকেই ঠিক ঠিক বাস্তু নিয়ম মেনে ঠাকুরের ছবি রাখেন না। ফলে গৃহস্থের কতটা ক্ষতি হয়, জানা আছে! শাস্ত্র মতে দেব-দেবীদের ছবি বাড়ির সব জায়গায় রাখা চলে না। এক্ষেত্রে ঠিক জায়গা যদি নির্বাচন করা না হয়, তাহলে ভিষণ মাত্রায় ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে। আর সব থেকে ভয়ের বিষয় হল, যখন খারাপ সময় আসে তখন অনেকেই ভাগ্যকে দোষ দিয়ে থাকেন, কিন্তু কেউই জানার চেষ্টা করেন না যে তারা ঠিক ঠিক নিয়ম মেনে দেব-দেবীদের প্রতিষ্টা করেছেন কিনা! তাই তো সুখ-শান্তি এবং অফুরন্ত আনন্দের সন্ধান পেতে এই প্রবন্ধে একবার চোখ রাখতেই হবে!

নিশ্চয় ভাবছেন কী এমন লেখা আছে এই প্রবন্ধে যে না পড়লে মহাভারত অশুদ্ধ হয়ে যাবে! আসলে এই লেখায় সেই সব বাস্তু নিয়মের উপর আলোকপাত করার চেষ্টা করা হল, যা মেনে বাড়ির দেওয়ালে ঠাকুরের ছবি ঝোলাতে হবে। আর একবার যদি এই নিয়মগুলি ঠিক ঠিক ভাবে মেনে চলতে পারেন, তাহলে দেখবেন নানাবিধ ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা যাবে কমে। সেই সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে থেকে সামাজিক জীবন, সব ক্ষেত্রেই চরম উন্নতি লাভের সম্ভাবনা বাড়বে। শুধু তাই নয়, অর্থনৈতিক উন্নতি লাভের সম্ভাবনাও বাড়তে শুরু করবে। আর এমনটা হলে আপনার জীবনের ছন্দটা বদলে যেতে যে সময় লাগবে না, তা আর বলার অপেক্ষা রাখে না।

প্রসঙ্গত, বাস্তু নিয়ম মেনে চলার পক্ষে এত সাওয়াল করা হয় কেন জানেন? কারণ ঠিক ঠিক নিয়ম মেনে যদি বাড়ি-ঘর তৈরি করা না যায়, তাহলে গৃহস্থের অন্দরে নেগেটিভ শক্তির প্রকোপ বাড়তে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই খারাপ কিছু ঘটে যাওয়ার আশঙ্কা যায় বেড়ে। এই কারণেই তো সবাইকেই বাস্তুশাস্ত্রে উল্লেখিত নিয়ম মেনে বাড়ি-ঘর তৈরি করার পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে।

এবার ফিরে আসা যাক প্রথম প্রসঙ্গে। বাড়ির কোন কোন দেওয়ালে এবং কোন কোন জায়গায় ঠাকুরের ছবি ঝোলানো উচিত, জেনে নেওয়ার চেষ্টা করা যাক সে বিষয়ে!

১. কৃষ্ণের মূর্তি:

১. কৃষ্ণের মূর্তি:

এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে কৃষ্ণের ছবি বা মূর্তি যদি শোয়ার ঘরে রাখা যায়, তাহলে স্বামী-স্ত্রী মধ্যেকার সম্পর্কের উন্নতি ঘটে। সেই সঙ্গে যে কোনও ধরনের বৈবাহিক সমস্যা মিটে যেতেও সময় লাগে না। প্রসঙ্গত, বেড রুমে রাধা-কৃষ্ণের ছবি যদি রাখতে পারেন, তাহলে আরও উপকার পাওয়া যায়। কারণ বাস্তুশাস্ত্র অনুসারে রাধা-কৃষ্ণ হলেন প্রেমের প্রতীক। তাই তো এদের ছবি গৃহস্থের অন্দরে জায়গা করে নিলে পরিবারে সুখ-সমৃদ্ধি বাজায় থাকে। সেই সঙ্গে কোনও ধরনের পারিবারিক কলহ মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কাও যায় কমে।

২. হনুমান জির ছবি:

২. হনুমান জির ছবি:

হিন্দু শাস্ত্র মতে বাড়িতে হনুমান জির ছবি রাখলে গৃহস্থের অন্দরে পজেটিভ শক্তির প্রভাব বাড়তে শুরু করে। ফলে গুড লাক রোজের সঙ্গী হয়ে ওঠে। আর এমনটা হলে সফলচতার স্বাদ পেতে সময় লাগে না। কিন্তু ভয়ের বিষয় কোথায় জানেন? ঠিক ঠিক বাস্তু নিয়ম মেনে যদি মারুথির ছবি রাখা না হয়, তাহলে কিন্তু উপকারের থেকে অপকার হওয়ার আশঙ্কা যায় বেড়ে। আর এমনটা আপনার সঙ্গেও ঘটুক, যদি না চান, তাহলে হনুমান জির ছবি দক্ষিণ দিকে মুখে করে ঝোলাবেন। আর যদি হনুমান জি-এর মূর্তি রাখতে হয়, তাহলেও একই নিয়ম মেনে চলতে হবে। এমনটা করলে দেখবেন জীবন বদলে যেতে সময় লাগবে না। শুধু তাই নয়, হনুমান জির আশীর্বাদে আপনার মনের অন্দরে লুকিয়ে থাকা ভয় দূরে পালাবে। আর একথা জানেনই তো যে অকুতভয় মন সহজেই যে কোনও বাঁধা পেরিয়ে ফেলতে পারে।

৩. মা লক্ষী:

৩. মা লক্ষী:

শাস্ত্র মতে যে গৃহস্থে মা লক্ষীর প্রবেশ ঘটে, সে বাড়িতে কখনও খাবার এবং ধনের অভাব হয় না। শুধু তাই নয় পরিবারের প্রতিটি সদস্যের উন্নতি ঘটার সম্ভাবনাও যায় বেড়ে। কিন্তু জানা আছে কি মা লক্ষীর কেমন মূর্তি রাখতে হবে বাড়িতে? বাস্তুশাস্ত্র মতে মা লক্ষী আসনে বসে রয়েছেন, এমন ছবি বা মূর্তি ঠাকুর ঘরে রাখতে হবে। কিন্তু খেয়াল রাখবেন মায়ের মুখ যেন পূর্ব দিকে থাকে। তাহলেই দেখবেন অর্থনৈতিক উন্নতি ঘটতে সময় লাগবে না। প্রসঙ্গত, বাড়িতে মা লক্ষীর আগমণ ঘটলে ধন দেবতা কুবেরেরও প্রবেশ ঘটে। ফলে সফলতা এবং অফুরন্ত অর্থের সন্ধান পাওয়া যায়।

৪. রামায়ণ এবং মহাভারতের ছবি:

৪. রামায়ণ এবং মহাভারতের ছবি:

বাস্তু বিশেষজ্ঞদের মতে রামায়ণ এবং মহাভারতে ঘটা যুদ্ধের কোনও ছবি বাড়ির অন্দরে রাখা চলবে না। কারণ এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে এই ধরনের ছবি বাড়িতে রাখলে নেগেটিভ শক্তির প্রভাব বাড়তে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই একের পর এক খারাপ ঘটনা ঘটার আশঙ্কা যায় বেড়ে। শুধু তাই নয়, পরিবারের বাকি সদস্যদের সঙ্গে ঝগড়া-ঝাটি হওয়ার সম্ভাবনাও যায় বেড়ে। আর এমন সব ঘটনা আপনার সঙ্গেও ঘটুক, যদি না চান, তাহলে ভুলেও এমন ছবি বাড়িতে এনে রাখবেন না যেন!

৫. মা দূর্গার ছবি:

৫. মা দূর্গার ছবি:

বাড়ির কোনও দেওয়ালে মা দূর্গার ছবি ঝোলালে উপকার তো পাওয়া যায়। কিন্তু এক্ষেত্রে খেয়াল রাখা জরুরি যে সেই ছবিতে মায়ের বাহন, সিংহের মুখ যেন খোলা না থাকে। কারণ শাস্ত্র মতে এমন ছবি বাড়িতে আনলে কিছু না কিছু খারাপ হওয়ার আশঙ্কা যায় বেড়ে। তাই মা দূর্গার ছবি কেনার ইচ্ছা জাগলে খেয়াল করবেন সিংহের মুখ যেন বন্ধ থাকে।

৬. এই দেব-দেবীদের ছবি রাখতে হবে উত্তর বা পূর্ব দিকে মুখ করে:

৬. এই দেব-দেবীদের ছবি রাখতে হবে উত্তর বা পূর্ব দিকে মুখ করে:

বাস্তুশাস্ত্র মতে ভগবান শীব, মা লক্ষী, মা দূর্গা, সরস্বতী দেবী এবং কুবের দেবতার ছবি ঝোলাতে হবে বাড়ির উত্তর বা পূর্ব দিকে। এমনটা করলে দেখবেন উন্নতির চরমে পৌঁছাতে সময় লাগবে না। শুধু তাই নয়, আজকের দিনে কোনও মানুষের খুশি থাকার জন্য যা কিছু জরুরি, তা সবই পাবেন হাতের কাছে। ফলে লক্ষ জন্ম পেরিয়ে পাওয়া এই মানব জীবনে আনন্দের স্বাদ পেতে সময় লাগবে না।

Read more about: ধর্ম
English summary

Where to hang religious pictures in the house...

Hanging pictures of God and Goddesses in right directions bring happiness and contentment into the household. It can add positivity and tranquility into your lives.