শনি মহাদশা থেকে পরিত্রাণ পেতে প্রতিকার

Posted By: Tulika Ghoshal
Subscribe to Boldsky

বৈদিক জ্যোতিষ অনুযায়ী শনি, সবচেয়ে অগ্নিময় গ্রহ| শনি সৌরজগতের ধীরতম চলন্ত গ্রহ| এই কারণে, এটি একটি ঠান্ডা, অনুর্বর, শুষ্ক গ্রহ এবং তার প্রভাব অধিক তীব্রতার সঙ্গে এবং অন্য কোন গ্রহের চেয়ে বেশি সময়সীমার জন্য অনুভূত হয়|

কথিত আছে যে, শুক্রের অধীনে যে সকল মানুষ জন্মায় তারা শনির অনুকূলে থাকে| অপরপক্ষে, যারা বুধের অধীনে জন্মায় তাদের পক্ষে শনি মন্দ| জ্যোতিষশাস্ত্রে শনি একটি সাপ, যার মাথাকে রাহু এবং লেজকে কেতু বলা হয়| কেতু কে অগ্রাধিকার দিলে কোন ব্যক্তির অত্যন্ত উপকার হয়|

অতএব, শনির অবস্থান কোন ব্যক্তির সাফল্য ও ব্যর্থতা নির্ধারণ করে থাকে| শনি মহাদশা উনিশ বছরের কঠোর পরিশ্রম ও অধ্যাবসায়ের হয়ে থাকে| শনি, কোন ব্যক্তির কঠোর শৃঙ্খলা ও শ্রমের উপর বিলম্ব এবং অসুবিধা ও অতিরিক্ত দায়িত্ব তৈরি করে|

সংক্ষেপে বলতে গেলে, এই সময়টি আগামী দিনের জন্য, একজন ব্যক্তিকে সক্ষম, শক্তিশালী ও কার্যকরী পরিণত করার ভিত্তিপ্রস্তর স্থাপন করে| এই সময়টি ব্যক্তির জন্য চাপ ও দুর্ভোগ বয়ে আনতে পারে| শনি যদি দুর্বল ভাবে স্থাপন করা হয় তাহলে, স্বাস্থ্য সমস্যা যেমন দীর্ঘস্থায়ী এবং যন্ত্রণাদায়ক রোগ, ক্যান্সার, চর্মরোগ, পক্ষাঘাত, বাত, গেঁটেবাত, বদহজম, বাতুলতা, পুরুষত্বহীনতা, হাঁপানি, প্রস্রাব এবং অন্ত্রের বিঘ্ন হতে পারে|

আত্মীয়স্বজন, গার্হস্থ্য সঙ্কট ও শ্রমিকদের সঙ্গে মতানৈক্য হতে পারে| সম্পদ হানি, মানসিক অস্থিরতা, চক্ষু ও কিডনির সাথে সম্পর্কিত রোগের প্রভাব দেখা যেতে পারে| পত্নী ভুগতে পারেন এবং পরিবারের প্রবীণদের ব্যথার কারণ হতে পারে|

শনি মহাদশার এই সব খারাপ প্রভাব কাটিয়ে ওঠার জন্য কয়েকটি কার্যকর প্রতিকার আপনি চেষ্টা করে দেখতে পারেন| এই প্রতিকার সম্পূর্ণরূপে মহাদশা কাটাতে সাহায্য নাও করতে পারে| কিন্তু এটা শনি মহাদশার যথেষ্ট প্রভাব কমিয়ে আনব| এক নজর দেখে নিন|

রুদ্রাভিষেক

রুদ্রাভিষেক

সোমবার ও শনিবার শিবলিঙ্গে জল ঢালা শনি মহাদশার জন্য একটি কার্যকর প্রতিকার বলা হয়|

হনুমানের উপাসনা

হনুমানের উপাসনা

মঙ্গলবার ও শনিবার হনুমানের উপাসনা মনকে শান্ত করতে সাহায্য করে| এছাড়াও হনুমান চালিসা প্রতিদিন পাঠ করলে শনির দশা শান্ত করতে সাহায্য করে|

কালো তিল

কালো তিল

শিবের কাছে প্রার্থনা করলে শনি দেবতা সন্তুষ্ট হন| প্রতিদিন বা বিশেষভাবে শনিবারে কাঁচা দুধের সাথে কালো তিল শিবলিঙ্গের ওপর ঢাললে শনির বিরূপ প্রক্রিয়া শান্ত করতে সাহায্য করে|

মাষকলাইয়ের ডাল দান

মাষকলাইয়ের ডাল দান

দরিদ্র মানুষকে কালো মাষকলাইয়ের ডাল দান করুন এবং প্রবাহিত নদীতে কিছু ভাসিয়ে দিন|

সরিষা তেল

সরিষা তেল

একটি বাটিতে সরিষার তেলে আপনার ছায়া দেখুন এবং শনিবারে তেলটি দান করে শনি দেবতার অনুগ্রহ পান|

খিচুড়ি

খিচুড়ি

শনি দেবতার অনুগ্রহ পেতে শনিবারে, চাল এবং কালো মাষকলাই ডালের খিচুড়ি খান এবং ওই দিন আমিষ খাবার এড়িয়ে চলুন|

উপবাস

উপবাস

যেসব লোকেরা সাধে সতী, শনি ধাইয়া, মহাদশা বা অন্তর্দশার প্রভাবে পড়েন তাদের শনিবারে উপবাস করা প্রয়োজন| শনিবার উপবাস পালনে মানুষের বাত, পৃষ্ঠবেদনা, পেশির সমস্যা দূর হয়| এছাড়াও এই উপবাস একজন ব্যক্তিকে আশাবাদী করে তোলে এবং মানসিক চাপ থেকে রেহাই দেয়|

তেল

তেল

প্রতি শনিবার, রাতে ঘুমাতে যাওয়ার আগে শরীর ও নখের উপর তেল প্রয়োগ করুন| মাদক বা কোনো ধরনের আসক্তির ব্যবহার এড়িয়ে চলুন|

কালো রং পরুন

কালো রং পরুন

কালো শনি দেবের পছন্দের রং| সুতরাং, শনিবার কালো পরুন যদি আপনি শনি গ্রহর দ্বারা বিচলিত থাকেন এবং তাঁর অনুগ্রহ চান|

শনি মন্ত্র

শনি মন্ত্র

"নীলাঞ্জন সমভাষাম রবিপুথোরাম যমরাজাম ছায়া মার্থন্দ সম্ভূতম থম নমামি সানাইশ্যারাম"| যত বার সম্ভব শনিবারে এই মন্ত্র উচ্চারণ করুন| কমপক্ষে একশো আট বার পাঠ করার চেষ্টা করুন|

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    English summary

    শনি মহাদশার প্রতিকার | শনি মহাদশা | শনি গ্রহের মহাদশা

    Shani or Saturn is the most fiery planet, according to Vedic astrology. Saturn is the slowest moving planet in the solar system. Due to this, it is a cold, barren, dry, secretive planet and its effects are felt with greater intensity and for longer periods than any other planet.
    Story first published: Friday, December 23, 2016, 14:50 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more