For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

গুরুপূর্ণিমা আমরা কেন পালন করি? জেনে নিন দিন-ক্ষণ ও গুরুত্ব

|

হিন্দু এবং বৌদ্ধ ধর্মে গুরুপূর্ণিমা উৎসবটি খুব বিশেষ বলে মানা হয়। গুরুপূর্ণিমা একটি বৈদিক প্রথা, যার মধ্য দিয়ে শিষ্য তাঁর গুরুকে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন। গুরুকে শ্রদ্ধা জানাতে বৈদিক যুগ থেকেই আষাঢ় মাসের পূর্ণিমা তিথিতে 'গুরুপূর্ণিমা' উদযাপন করা হচ্ছে। সেইমতো, ইংরাজী ক্যালেন্ডার অনুযায়ী ২০২০ সালে ৫ জুলাই গুরুপূর্ণিমা উদযাপিত হবে। গ্রেগরিয়ান ক্যালেন্ডার অনুসারে, গুরুপূর্ণিমা প্রতি বছর জুলাই মাসে পড়ে। ৫ জুনের চন্দ্রগ্রহণের পরে, আবার চন্দ্রগ্রহণ হতে চলেছে এবং এবারের চন্দ্রগ্রহণটি গুরুপূর্ণিমার দিনই হবে। এই গ্রহণটি ভারতে দৃশ্যমান হবে না।

২০২০ সালের গুরুপূর্ণিমা তিথি

২০২০ সালের গুরুপূর্ণিমা তিথি

গুরুপূর্ণিমা উদযাপিত হবে - ৫ জুলাই, রবিবার

পূর্ণিমা তিথি শুরু - ৪ জুলাই, বেলা ১১টা বেজে ৩৩ মিনিটে

পূর্ণিমা তিথি সমাপ্ত - ৫ জুলাই, সকাল ১০টা বেজে ১৩ মিনিটে

গুরুপূর্ণিমার গুরুত্ব

গুরুপূর্ণিমার গুরুত্ব

'গুরু' শব্দটি 'গু' এবং 'রু' এই দুটি সংস্কৃত শব্দ দ্বারা গঠিত। 'গু' শব্দের অর্থ 'অন্ধকার' বা 'অজ্ঞতা' এবং 'রু' শব্দের অর্থ 'অন্ধকার দূরীভূত করা'। 'গুরু' শব্দটি দ্বারা এমন ব্যক্তিকে নির্দেশ করা হয় যিনি অন্ধকার দূরীভূত করেন, অর্থাৎ যিনি অন্ধকার থেকে আলোয় নিয়ে যান তিনিই গুরু। গুরু আমাদের মনের সব সংশয়, সন্দেহ, অন্ধকার দূর করেন এবং নতুন পথের দিশা দেখান।

ভারতে গুরুদের ঈশ্বরের সমান মর্যাদা দেওয়া হয়। একজন গুরুই পারে কোনও ব্যক্তিকে অজ্ঞতার অন্ধকার থেকে আলোর দিকে নিয়ে যেতে। প্রাচীনকাল থেকেই এই দেশে গুরুদের সম্মানজনক স্থান দেওয়া হয়েছে। গুরুপূর্ণিমার দিন তাঁদের পূজা করলে বিশেষ আশীর্বাদ প্রাপ্ত হয়।

গুরুপূর্ণিমার দিন চন্দ্রগ্রহণের সময়

গুরুপূর্ণিমার দিন চন্দ্রগ্রহণের সময়

আমাদের দেশে গ্রহণ শুরু হবে ৫ জুলাই সকাল ৮টা ৩৮ মিনিটে। গ্রহণের সর্বাধিক প্রভাব পড়বে সকাল ৯টা ৫৯ মিনিটে। ভারতীয় সময়ে গ্রহণ ছেড়ে যাবে বেলা ১১টা ২১ মিনিটে। এই চন্দ্রগ্রহণটি আমেরিকা, ইউরোপ এবং আফ্রিকার বিভিন্ন অংশ থেকে দেখা যাবে। ভারত থেকে এই গ্রহণ দেখা যাবে না, কারণ যে সময়ে গ্রহণটি হবে ভারতে তখন দিন থাকবে।

চন্দ্রগ্রহণের প্রভাব

চন্দ্রগ্রহণের প্রভাব

এটি বিশ্বাস করা হচ্ছে যে, গুরুপূর্ণিমার দিন চন্দ্রগ্রহণ ভারতে খুব বেশি কার্যকর হবে না। প্রকৃতপক্ষে এটি একটি উপচ্ছায়া চন্দ্রগ্রহণ। জ্যোতিষ শাস্ত্র অনুসারে, ধনু রাশিতে এই চন্দ্রগ্রহণ হতে চলেছে। ধনু রাশিতে গুরু বৃহস্পতি এবং রাহু উপস্থিত আছেন। এই গ্রহণটি ধনু রাশির জাতকদের উপর সবচেয়ে বেশি প্রভাব ফেলবে। নেতিবাচক চিন্তা আপনার মনে আসতে পারে। মনকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে ধ্যান করা উচিত। ধনু ছাড়া কর্কট, সিংহ এবং কন্যা রাশির উপর এই গ্রহণের প্রভাব পড়তে পারে।

English summary

Guru Purnima 2020 : Date, Time And Importance

Lunar Eclipse and Guru Purnima to take place on same day, here’s everything you need to know.
X