বাড়িতে কী ধরনের হনুমান জির ফটো রাখলে তা অশুভ জানা আছে?

Subscribe to Boldsky

দুঃখ হরণকারী হনুমান জির পুজো প্রতি মঙ্গলবার আমরা অনেকই করে থাকি। শুধু তাই নয়, এমনটাও বিশ্বাস করা হয় যে নিয়মিত হনুমান চল্লিশা পড়া শুরু করলে জীবনে সুখ-শান্তির ঝাঁপি কখনও খালি হয় না। কিন্তু একথা জানা আছে কি হনুমান জির বেশ কিছু ধরনের ছবি বা মূর্তি রয়েছে, যা বাড়িতে রাখা একেবারেই শুভ নয়!

হিন্দু শাস্ত্রের উপর লেখা বেশ কিছু বইয়ে এই বিষয়ের উল্লেখ পাওয়া যায়। সেখানে লেখা রয়েছে যুদ্ধরত হনুমান জির মূর্তি বা ছবি ভুলেও বাড়িতে রাখা উচিত নয়। কারণ এমনটা করলে গৃহস্থের শান্তি বিগ্নিত হয়। সেই সঙ্গে জীবন নেগেটিভ এনার্জিতে ভরে যাওয়ার আশঙ্কা থাকে। তবে এখানেই শেষ নয়, আরও বেশ কিছু ধরনের ছবি থেকে দূরে থাকাই শ্রেয়।

এক্ষেত্রে কী কী ছবি বাড়িতে তোলা যাবে না? এই প্রশ্নেরই উত্তর দেওয়ার চেষ্টা করা হল এই প্রবন্ধে। তাই সুখে-শান্তিতে যদি সারা জীবনটা কাটাতে চান, তাহলে একবার এই প্রবন্ধে চোখ রাখতে ভুলবেন না যেন! প্রসঙ্গত, শাস্ত্রে উল্লেখিত হনুমান জি-এর যে যে অবতারগুলি গৃহস্তের সুখ-শান্তির পরিপন্থি, সেগুলি হল...

১. যে ছবিতে হনুমান জি নিজের বুক চিরছেন:

১. যে ছবিতে হনুমান জি নিজের বুক চিরছেন:

মারুথি তার বুক চিরে দেখিয়েছিলেন তার হৃদয়ে শুধু ভগবান রাম রয়েছেন। রয়েছেন মা সীতাও। বন্ধুত্বের গভীরতার প্রতীক এই মুহূর্তকে ছবি বা মূর্তি হিসেবে অনেকেই বাড়িতে রাখেন। কিন্তু এমন ছহি গৃহস্থের জন্য একেবারেই শুভ নয়। তাই আপনার বাড়িতেও যদি এমন কোনও ছবি থেকে থাকে, তাহলে এখনই তা সরিয়ে ফেলুন।

২. সঞ্জীবনী বুটির পাহাড় নিয়ে উড়ে চলেছেন:

২. সঞ্জীবনী বুটির পাহাড় নিয়ে উড়ে চলেছেন:

শক্তিশেলের আঘাতে লক্ষণ যখন মৃত্যুর প্রায় দোরগোড়ায়, তখন যোজন মাইল পেরিয়ে হনুমান জি সঞ্জীবনী বুটি সমেত পুরো পাহাড়টাই উঠিয়ে এনেছিলেন। এই গল্প তো কম-বেশি সবারই জানা। কিন্তু একথা জানা আছে কি এমন ছবি ভুলেও ঠাকুর ঘরে বা বাড়িতে রাখা চলবে না। কারণ শাস্ত্র মতে এমন ছবি রাখলে হনুমান জি-এর আশীর্বাদ বেশি দিন বাড়িতে থাকে না। ফলে একটা সময় পরে খারাপ কিছু ঘটে যাওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

৩. যুদ্ধরত হনুমানজি:

৩. যুদ্ধরত হনুমানজি:

এমন ছবিও বাড়িতে রাখা উচিত নয়। কারণ এমনটা বিশ্বাস করা হয়, যে কোনও ধরনের যুদ্ধ বা অস্ত্রের ছবি বাড়াতে রাখা মানে নেগেটিভ এনার্জিকে জায়গা করে দেওয়া। আর যেমনটা আপনাদের সকলেই জানা আছে যে পরিবারে সুখ-শান্তি বজায় রাখতে নেগেটিভ এনার্জির বৃদ্ধি পাওয়া একেবারেই ঠিক নয়। তাই এই বিষয়টি মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন।

৪. হমুমান জি-এর কাঁধে বসে রয়েছেন রাম-লক্ষণ:

৪. হমুমান জি-এর কাঁধে বসে রয়েছেন রাম-লক্ষণ:

শাস্ত্র মতে হনুমান জি কখনই শ্রী রাম এবং লক্ষণকে নিজের কাঁধ থেকে নামাতে চান না। তাই তো এমন ছবি বাড়িতে রাখলে হনুমান জি কীভাবে আপনার পরিবারকে অশুভ শক্তির হাত থেকে বাঁচাবে বলুন! কারণ তিনি তো ব্য়স্ত ভগবান রাম এবং লক্ষণের খেয়াল রাখতে। তাই না!

৫. লঙ্কা দহন পর্ব:

৫. লঙ্কা দহন পর্ব:

যে ছবিতে হনুমান জি লঙ্কাকে ধ্বংস করছেন সে ছবি ভুলেও বাড়িতে রাখা চলবে না। কারণ বাস্তু মতে বাড়ি-ঘর জ্বলছে এমন ছবি ঘরে রাখলে খারাপ কিছু ঘটে যাওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে অর্থনৈতিক সমস্যার সম্মুখিন হওয়ার সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পায়। এই কারণেই তো এমন ছবি বাড়িতে তুলতে মানা করা হয়ে থাকে।

৬. শোয়ার ঘরে হনুমান জি-এর ছবি রাখবেন না:

৬. শোয়ার ঘরে হনুমান জি-এর ছবি রাখবেন না:

এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে স্বামী-স্ত্রী যে ঘরে শোন, সেখানে হনুমান জি-এর ছবি রাখা একেবারেই উচিত নয়। কারণ এমনটা করলে মারুথি-এর শক্তি কমতে শুরু করে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই অশুভ শক্তির ক্ষমতা বৃদ্ধি শুরু করে। আর এমনটা হলে নানা ধরনের সমস্যায় জর্জরিত হয়ে পরার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়।

এখন প্রশ্ন হল তাহলে কেমন ধরনের ছবি রাখা চলতে পারে বাড়িতে?

১. হলুদ বস্ত্রে শোভিত:

১. হলুদ বস্ত্রে শোভিত:

যে ছবিতে ভগবান হলুদ রঙের বস্ত্র পরে রয়েছেন এবং আশীর্বাদ করছেন, এমন ছবি বাড়িতে রাখলে পরিবারে সুখ শান্তি বজায় থাকে। শুধু তাই নয়, যে কোনও ধরনের অশুভ শক্তি দূরে থাকতে বাধ্য হয়।

২. লাল রঙের ধুতি পরে রয়েছেন:

২. লাল রঙের ধুতি পরে রয়েছেন:

যে ছবিতে হনুমান জি লাল রঙের ধুতি পরে রয়েছেন এমন ছবি বাড়িতে রাখলে বাচ্চাদের পড়াশোনায় মন বসে। তাদের মনযোগ ক্ষমতাও বাড়তে শুরু করে। শুধু তাই নয়, খারাপ কিছু ঘটার সম্ভাবনাও একেবারে কমে যায়।

৩. রাম দরবার:

৩. রাম দরবার:

হিন্দু শাস্ত্র মতে যে ছবিতে শ্রী রামের দরবার এবং সেখানে শ্রী হনুমান উপস্থিত রয়েছেন, এমনটা দেখানো হয়েছে এমন ছবি খাবার ঘরে রাখা বেজায় শুভ। কারণ এমনটা করলে পরিবারের প্রতিটি সদস্যের মধ্যে ভালবাসার সম্পর্ক তৈরি হয়। সেই সঙ্গে যে কোনও ধরনের কলহ সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কাও হ্রাস পায়।

৪. শ্রী রামের আরাধনা মগ্ন:

৪. শ্রী রামের আরাধনা মগ্ন:

হনুমান জি ভগবান রামকে স্বরণ করে ধ্যান করছেন, এমন ছবি বাড়িতে রাখলে পজিটিভ এনার্জির মাত্রা বাড়তে থাকে, সেই সঙ্গে অর্থনৈতিক উন্নতির সম্ভাবনাও বাড়ে।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: ধর্ম
    English summary

    দুঃখ হরণকারী হনুমান জির পুজো প্রতি মঙ্গলবার আমরা অনেকই করে থাকি। শুধু তাই নয়, এমনটাও বিশ্বাস করা হয় যে নিয়মিত হনুমান চল্লিশা পড়া শুরু করলে জীবনে সুখ-শান্তির ঝাঁপি কখনও খালি হয় না। কিন্তু একথা জানা আছে কি হনুমান জির বেশ কিছু ধরনের ছবি বা মূর্তি রয়েছে, যা বাড়িতে রাখা একেবারেই শুভ নয়!

    As per sacred Hindu scriptures, it is forbidden to keep in the home, certain ‘murtis’ or statues of gods and goddesses, especially those carrying their weapons of destruction, in a war position or promoting violence in a religious way. It is believed such idols eliminate the positive energy of the house and promotes negativity.
    Story first published: Thursday, February 22, 2018, 11:09 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more