শনিদেবকে যদি রাগাতে না চান তাহলে ভুলেও শনিবার এই জিনিসগুলি কাউকে গিফ্ট হিসেবে দেবেন না যেন!

Subscribe to Boldsky

শাস্ত্র মতে শনি হল গ্রহদের মধ্যে সবথেকে শক্তিশালী গ্রহ এবং এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে কারও জন্ম কুষ্টিতে যদি শনি গ্রহের অবস্থান বিগড়ে যায়, তাহলে জীবন নানাবিধ সমস্য়ায় এত মাত্রায় জর্জরিত হয়ে পরে যে প্রতিটি দিন দুঃখে কাটে। শুধু তাই নয়, শনি দেব ক্ষেপে গেলেও কিন্তু বিপদ! কারণ এক্ষেত্রেও জীবনে দুঃখের ছোঁয়া লাগতে সময় লাগে না। তাই তো বলি বন্ধু বাকি জীবনটা যদি সুখ-শান্তিতে কাটাতে চান, তাহলে ভুলেও শনিবার এই জিনিসগুলি কাউকে গিফ্ট হিসেবে দেবন না যেন! কারণ বিশেষজ্ঞদের মতে এই প্রবন্ধে আলোচিত জিনিসগুলি সপ্তাহের এই বিশেষ দিনে কাউকে দিলে শনি দেব বেজায় রুষ্ট হন। আর এমনটা হলে কী ধরনের ক্ষতি হতে পারে, তা নিশ্চয় আর বলে দিতে হবে না!

এখন প্রশ্ন হল শনি দেবের প্রকোপ থেকে বাঁচতে শনিবার কী কী জিনিস উপহার দেওয়া একেবারেই চলবে না?

১. চকোলেট:

১. চকোলেট:

একেবারেই ঠিক শুনেছেন বন্ধু! এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে শনিবার কাউকে গিফ্ট হিসেবে চকোলেট দিলে যিনি দিচ্ছেন তার উপর শনির এমন বক্র দৃষ্টি পরে যে মানসিক শান্তি দূরে পালায়, সেই সঙ্গে নানা কারণে স্ট্রেস এবং মানসিক অবসাদও বাড়তে শুরু করে। ফলে সুখ-শান্তি ঝাঁপি খালি হতে সময় লাগে না।

২. মুক্ত:

২. মুক্ত:

এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে ভুলেও শনিবার কাউকে মুক্ত উপহার দেওয়া উচিত নয়। কারণ এমনটা করলে যিনি দিচ্ছেন এবং যিনি নিচ্ছেন, উভয়েরই মারাত্মক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে। বিশেষত হঠাৎ করে দুর্ঘটনা ঘটে যাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

৩. কাঁচি:

৩. কাঁচি:

সাধারণত কেউকে কাউকে কাঁচি উপহার দেয় না। কিন্তু ভুলেও কখনও এ জিনিস যদি শনিবার কাউকে দিয়ে ফেলেন, তাহলে পরিবারের অন্দরে ঝগড়া-ঝাটি এবং কলহ মাথা চাড়া দিয়ে ওঠার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। সেই সঙ্গে আত্মীয়-স্বজনদের সঙ্গে সম্পর্কের আবনতি ঘটতেও সময় লাগে না। প্রসঙ্গত, শনিবার লোহার কোনও জিনিসও কিনতে এবং উপহার হিসেবে দিতে মানা করা হয়। কারণ এক্ষেত্রেও সমান বিপদ ঘটার সম্ভাবনা থাকে।

৪. রূপোর গয়না:

৪. রূপোর গয়না:

শুনতে আজব লাগলেও এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে শনিবার কাউকে রূপোর কোনও জিনিস, বিশেষত গয়না উপহার হিসেবে দিলে যিনি গিফ্ট দিচ্ছেন, তার মারাত্মক অর্থনৈতিক ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা বৃদ্ধি পায়। কারণ সপ্তাহের এই বিশেষ দিনে এমন জিনিস উপহার হিসেবে দিলে শনি দেব বেজায় রুষ্ট হন, যার প্রভাবে অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখিন হতে সময় লাগে না।

৫. লাল রঙের পেন:

৫. লাল রঙের পেন:

অন্য যে কোনও রঙের পেন শনিবার উপহার হিসেবে দেওয়া যেতে পারে, কিন্তু ভুল করে লাল রঙের পেন নয় কিন্তু! কারণ এমনটা করলে যিনি গিফ্ট দিচ্ছেন এবং যিনি নিচ্ছেন, উভয়েরই মারাত্মক অর্থনৈতিক ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়।

এখন প্রশ্ন হল কেউ যদি ভুল করে এই জিনিসগুলি কাউকে উপহার হিসেবে দিয়ে ফেলেন, তাহলে? সেক্ষেত্রে ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা থাকে ঠিকই, তবে এই মন্ত্রগুলি যদি পাঠ করতে পারেন, তাহলে শনি দেব বেজয় প্রসন্ন হন। ফলে মারাত্মক কোনও ক্ষতি হওয়ার সম্ভাবনা কমে যায়। প্রসঙ্গত, শনি দেবকে সন্তুষ্ট করতে যে যে মন্ত্রগুলি জপ করা জরুরি, সেগুলি হল...

১. শনি মন্ত্র:

১. শনি মন্ত্র:

"ওম ত্রয়ম্বকম ইজামাহে সুগন্ধম পুষ্টি-বার্ধানাম উর্বারুকা মিভা বন্ধনাম মৃত্যুর মুকশো মামরাত...", এই মন্ত্রটি ১০৮ বার পাঠ করলে শনির দোষ কেটে যেতে সময় লাগে না। ফলে দীর্ঘ সাত বছর শনি দেবের প্রকোপ সহ্য় করতে আর হয় না। আর যেমনটা আপনাদের সকলেরই জানা আছে যে শনির সাড়ে সাতি কেটে গেলে জীবনের প্রতিটি বাঁকে সফলতার স্বাদ মেলে। শুধু তাই নয়, শাস্ত্র মতে এই শনি মন্ত্রটি জপ করা শুরু করলে আশেপাশে পজেটিভ শক্তির প্রভাব এতটা বেড়ে যায় যে কোনও খারাপ ঘটনা ঘটার আশঙ্কাও যায় কমে।

২. শনি গায়েত্রী মন্ত্র:

২. শনি গায়েত্রী মন্ত্র:

মনের জোর বাড়াতে এবং অর্থনৈতিক উন্নতি লাভের পথ প্রশস্ত করতে এই মন্ত্রটি জপ করা যেতে পেরে। শুধু তাই নয়, শাস্ত্র মতে এই মন্ত্রটি নিয়মিত পাঠ করলে কর্মক্ষত্রে পদন্নতি লাভের সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পায়। এক্ষেত্রে সকাল সকাল উঠে স্নান সরে এক মনে ১০৮ বার মন্ত্রটি জপ করতে হবে। তাহলেই ধীরে ধীরে সুফল মিলতে শুরু করবে। তাই তো বলি বন্ধু ভুল করে কোনও শনিবার যদি উপরে আলোচিত জিনিসগুলির কোনওটি কাউকে উপহার হিসেবে দিয়ে থাকে, তাহলে এই মন্ত্রটি জপ করতে ভুলবেন না যেন! প্রসঙ্গত, মন্ত্রটি হল: "আম শনৈশ্চরায় ভিদ মাহে ছায়াপুত্রায়া ধিমাহে তার মান্দঃ প্রচোদয়াৎ"।

৩. শনি বেজ মন্ত্র:

৩. শনি বেজ মন্ত্র:

শনি দবকে প্রসন্ন করসে প্রতি শনিবার সকাল সকাল উঠে স্নান সেরে পরিষ্কার জামা-কাপড় পরে শনি বেজ মন্ত্র জপ করুন। এমনটা করলে দেখবেন একের পর এক দুঃখের পাহাড় সরে যেতে শুরু করবে। সেই সঙ্গে খারাপ দৃষ্টির প্রভাবে কোনও ধরনের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কাও যাবে কমে। সেই সঙ্গে শনি দেবের আশীর্বাদে জীবন সুখ-শান্তিতে ভরে উঠবে। প্রসঙ্গত, মন্ত্রটি হল- "আম প্রাণ প্রেম প্রান সে শনৈশ্চরায় নমঃ"।

৪. সুখ সমৃদ্ধির ছোঁয়া পেতে মন্ত্র:

৪. সুখ সমৃদ্ধির ছোঁয়া পেতে মন্ত্র:

আজ আপনাদের এমন একটি শনি মন্ত্রের সম্পর্কে জানাতে চলেছি, যা নিয়মিত ১০৮ বার পাঠ করলে শনি দেব এতটাইঈ প্রসন্ন হন যে পরিবারে সুখ-সমৃদ্ধির ছোঁয়া লাগতে সময় লাগে না। এক্ষেত্রে আজ শনি দেবের সামনে বসে একটি প্রদীপ জ্বালিয়ে "শাজায়াম চ ভার্তিশানইয়াকতাম ভাহানিনা ইয়াজিতাম মায়া দীপাম গ্রিহান দেবাশন ত্রিলোকিয়া তিমিরা পাহাম!", এই মন্ত্রটি জপ করতে হবে। প্রসঙ্গত, পর পর চারটি শনিবার এই ভাবে যদি শনি দেবের আরাধনা করতে পারেন, তাহলে লুফল নিলতে দেখবেন সময় লাগবে না।

৫. এককশারি মন্ত্র:

৫. এককশারি মন্ত্র:

শাস্ত্র মতে আজ "ওম শাম শনৈশ্চরায় নমঃ", এই মন্ত্রটি ১০৮ বার জপ করলে জীবন পথে মাথা চাড়া দিয়ে ওঠা নানাবিধ বাঁধার পাহাড় সরে যায়। সেই সঙ্গে কর্মক্ষেত্রে চরম সফলতা লাভের সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পায়। এখানেই শেষ নয়, এই মন্ত্রটিকে সমৃদ্ধির মন্ত্রও বলা হয়। তাই তো নিয়ম করে এই মন্ত্রটি পাঠ করলে এবং শনি দেবের আরাধনা করলে জীবনে সুখ-সমৃদ্ধির ছোঁয়া লাগতে সময় লাগে না।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: ধর্ম
    English summary

    Gifting these things on a Saturday will anger Shanidev!

    Saturday is considered to be Lord Shani's day -- It is said that when the Sun took Shani in its mouth, he sustained a lot of injuries. It is hence Shani is bathed with oil every Saturday -- to ease off his pain. Moving on, do you know that Shani is easily angered? Well, gifting these things to someone on a Sat can make Shani really angry. Read on.
    Story first published: Saturday, August 18, 2018, 11:31 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more