For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

জেনে নিন অম্বুবাচীর সময়সূচি ও তাৎপর্য

|

হিন্দুধর্মের অন্যতম একটি ব্রত হল অম্বুবাচী। প্রচলিত বিশ্বাস অনুযায়ী, আষাঢ় মাসের মৃগশিরা নক্ষত্রের তৃতীয় পদ শেষ হলে পৃথিবী বা ধরিত্রী মা ঋতুমতী হন। এই সময়টিতে অম্বুবাচী পালন করা হয়, অর্থাৎ চতুর্থ পদের শুরু থেকে তিন দিন অম্বুবাচী ব্রত পালন করা হয়। পূর্ণ বয়স্কা মহিলা যেমন ঋতুকালের পরে সন্তান ধারণে সক্ষম হন, ধরিত্রী মাতাও অম্বুবাচীর পর শস্য শ্যামলা হয়ে ওঠেন।

Ambubachi 2020 : Date, Time And Significance

প্রচলিত বিশ্বাস অনুযায়ী, এই সময় কৃষিকাজ বন্ধ রাখা হয়। জমিতে কোনও রকম খোঁড়াখুড়ি থেকে বিরত থাকা হয়। এই তিন দিন কোনও মাঙ্গলিক কাজ করা হয় না। হাল ধরা, গৃহ প্রবেশ, বিবাহ ইত্যাদি শুভ কাজ করা নিষিদ্ধ থাকে এইসময়। তিন দিন পর মাঙ্গলিক কাজ বা চাষের কাজে কোনও বাধা থাকে না। এইসময় মঠ-মন্দিরের প্রবেশদ্বার এবং পুজোও বন্ধ থাকে। সন্ন্যাসী এবং বিধবারা এই তিন দিন বিশেষভাবে পালন করেন।

অম্বুবাচীর সময় ভুলেও এই কাজগুলি করবেন না, তাহলেই বিপদ!

২০২০ সালের অম্বুবাচীর দিন-ক্ষণ

অম্বুবাচী শুরু - ২২ জুন, বাংলার ৭ আষাঢ় সকাল ৭টা বেজে ৫৪ মিনিটে।

অম্বুবাচী সমাপ্ত - ২৫ জুন, বাংলার ১০ আষাঢ় রাত ৮টা বেজে ১৮ মিনিটে।

কামাখ্যা মন্দিরে অম্বুবাচী পালন

অসমের কামাখ্যা মন্দিরের অম্বুবাচী পালন সারা ভারত বিখ্যাত। কামাখ্যা মায়ের মন্দির তন্ত্র সাধনার অন্যতম পীঠ। হিন্দুদের কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ এই তীর্থক্ষেত্র এবং এটি ৫১টি সতীপীঠের অন্যতম। এই স্থানে দেবী সতীর গর্ভ এবং যোনি পড়েছিল। অম্বুবাচীর তিন দিন কামরুপ কামাখ্যায় বিশেষ উৎসব পালিত হয়। কামাখ্যা মন্দিরে এই উপলক্ষ্যে দেবীর ঋতুকাল সমাগত মনে করে উৎসব পালন করা হয়। তিন দিন দেবীর মন্দির বন্ধ থাকলেও চতুর্থ দিনে সর্বসাধারণের জন্য মন্দির খুলে দেওয়া হয়।

Ambubachi 2020 : Date, Time And Significance

কামাখ্যা দেবীর মন্দিরে প্রতি বৎসর বিরাট অম্বুবাচী মেলার আয়োজন করা হয়। দেশ বিদেশের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে আসা লাখ লাখ ভক্ত কামাখ্যা মন্দিরের চতুর্দিকে বসে কীর্ত্তন করেন। মন্দিরের বাহিরে প্রদীপ ও ধূপকাঠি জ্বালিয়ে দেবীকে প্রণাম করেন তারা। তবে এইবছর করোনা আবহে নিয়ম বদলেছে। আগামী ৩০ জুন থেকে খুলবে মন্দির। অম্বুবাচীতে ওড়িশাতেও বিশেষ উৎসব পালন করা হয়।

English summary

Ambubachi 2020 : Date, Time And Significance

Significance and history of ambubachi mela.
X