বসের মন জয় করে চটজলদি প্রমোশম পেতে চান নাকি? তাহলে ঝটপট জেনে ফেলুন তার রাশি!

Subscribe to Boldsky

চাণক্য বলতেন যে কোনও যুদ্ধ জেতার জন্য প্ল্যানিংটা বেজায় গুরুত্বপূর্ণ জিনিস। কারণ যুদ্ধে কে বিজয় লাভ করবে, তা কোন পক্ষ যুদ্ধক্ষেত্রে ভাল লড়ছে তার উপর কিন্তু মোটেও নির্ভর করে না। বরং যার গেম প্ল্যান টানটান হয়, তার জেতার সম্ভাবনা বেশি থাকে। তাই তো বলি বন্ধু, অফিস নামক যুদ্ধক্ষেত্রে যদি চটজলদি বিজয় লাভ করতে হয়, তাহলে আপনাকেও কিন্তু প্রতিটা পদক্ষেপ ভেবে চিন্তে ফেলতে হবে, বিশেষত বসকে কীভাবে পকেটতস্থ করবেন সেই প্ল্যানটা করে না ফললে কিন্তু বিপদ!

এখন প্রশ্ন হল অফিসের হাজারো এমপ্লয়ি তো হাজার রকমভাবে বসকে তুষ্ট করার চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছে, তার মাঝে আপনি কীভাব সফল হবেন? এক্ষেত্রে আমেরিকান ইন্টেলিজেন্স এজেন্সি "সি আই এ"এর একটা ট্যাকটিক্সকে কাজে লাগাতে পারেন। কী ট্যাকটিক্স? সি আই এ স্পাইদের মতে কাউকে মাইন্ড গেমে হারাতে হলে যুদ্ধ শুরুর অনেক আগেই তার শক্তি এবং দুর্বলতা সম্পর্কে জেনে নেওয়াটা একান্ত প্রয়োজন। আর একবার যখন কোনও মানুষের মনের অন্দরে চলতে থাকা খুঁটিনাটি বিষয় সম্পর্কে আপনি অবগত থাকবেন, তখন সেই ব্যক্তি যে নিমেষেই আপনার হাতের পুতুলে পরিনত হবে, তা কি আর বলার অপেক্ষা রাখে!

এখন প্রশ্ন হল বসের মনটা পড়ে ফলবেন কীভাবে, তাই তো? এক্ষেত্রে ইচ্ছা হলে হাজার বছর আগে লেখা একটি শাস্ত্রের সাহায্য নিতে পারেন, যাকে চলতি ভাষায় সবাই জ্যোতিষশাস্ত্র নামে চিনে থাকেন। বিশেষজ্ঞদের মতে কে কোন রাশির জাতক, তার উপর তার চরিত্র অনেকাংশেই নির্ভর করে থাকে। তাই তো একবার বসের রাশি জেনে ফললেই কেল্লা ফতে!

তাহলে আর অপেক্ষা কেন বন্ধু, রাশি অনুসারে কোন বস কী চায়, তা জানতে যদি মন চায়, তাহলে বাকি প্রবন্ধে চোখ রাখতে ভুলবেন না যেন!

১. মেষরাশি:

১. মেষরাশি:

এই রাশির জাতক-জাতিকারা যে কোনও মূল্যে জিততে চান, আর তাতে যদি কারও ক্ষতি করতে হয়, তাতেও এরা পিছপা হন না। তাই আপনার বস যদি মেষরাশির জাতক বা জাতিকা হয়ে থাকেন, তাহলে নিজেকে উজাড় করে বসকে তার যুদ্ধে জয়লাভ করতে সাহায্য করুন। এমনটা যদি করতে পারেন, তাহলে দেখবেন আপনাকে আর পিছনে ফিরে তাকাতে হচ্ছে না। প্রসঙ্গত, এক্ষেত্রে আরেকটি জিনিস জেনে নেওয়াটাও একান্ত প্রয়োজন। তা হল এই রাশির জাতক-জাতিকারা "আমিই ঠিক", এমনটা ভাবতে ভালোবাসেন। তাই বস ভুলভাল যা কিছুই বলুন না কেন তাতে হ্যাঁবলতে দেরি করবেন না যেন!

২. বৃষরাশি:

২. বৃষরাশি:

এরা শর্টকাটে নয়, বরং পরিশ্রমে বিশ্বাস রাখেন। একথা মনপ্রাণ দিয়ে মানেন যে ঠিক দিশায় পরিশ্রম করলে সফলতা আসবেই আসবে। তাই তো এমন মানুষকে যদি ইমপ্রেস করতে হয়, তাহলে তা কাজ দিয়েই করতে হবে। তবে আরেকটি উপায়ও আছে। কী উপায়? এই রাশির জাতক-জাতিকাদের উপর শুক্র গ্রহের প্রভাব বেশি থাকার কারণে এরা সুন্দর এবং শৌখিন জিনিস খুব পছন্দ করেন। তাই তো বলি বন্ধু, আপনার বস যদি বৃষরাশির হয়ে থাকেন, তাহলে পরিশ্রমের সঙ্গে সঙ্গে তাঁকে মাঝে মধ্যে ভাল মন্দ জিনিস গিফ্ট দিতে ভুলবেন না যেন! তাহলেই দেখবেন পরের অ্যাপ্রাইজালে আপনার মাইনেটা বাড়বে বই কমবে না!

৩. মিথুনরাশি:

৩. মিথুনরাশি:

এরা যেমন বুদ্ধিমান হন, তেমনি যে কোনও মানুষের মনে কী চলছে সে সম্পর্কে সহজেই ধরণা করে নিতে পারেন। তাই তো এদেরকে ঠকানো বেজায় মুশকিলের কাজ। তাই আপনার বস যদি এই রাশির অধিকারী হয়ে থাকেন, তাহলে বুদ্ধির জোর দেখিয়ে ওনার মন জয় করার চেষ্টা করুন, দেখবেন ফল পাবেই পাবেন!

৪. কর্কটরাশি:

৪. কর্কটরাশি:

ঝুট-ঝামেলা এদের না পাসান্দ। তাই তো কর্কটরাশির বসের মন জয় করতে যদি চান, তাহলে বস যখনই বিপদে পরবে, তখনই সেই বিপদ থেকে বেরিয়ে আসার উপায় বাৎলে দিতে দেরি করবেন না, দেখবেন নিমেষে আপনি বসের চোখের মণি হয়ে উঠছেন। তবে এক্ষেত্রে আরও কতগুলি বিষয় মাথায় রাখা একান্ত প্রয়োজন। তা হল কর্করাশির অধিকারীরা বেজায় পার্ফেকশানিস্ট হন। তাই আপনি যত গুছিয়ে কাজ করবেন, তত তাড়াতাড়ি বেসের নেক নজরে আসার সম্ভাবনা কিন্তু বাড়বে!

৫. সিংহরাশি:

৫. সিংহরাশি:

বস হিসেবে এদের থেকে খারাপ কেউ হতে পারে বলে তো মনে হয় না। কারণ এরা একদিকে যেমন ইগোইস্টিক, তেমনি ক্ষমতা প্রদর্শনের হাফ চান্সও চাড়তে চান না। শুধু তাই নয়, কীভাবে আরও ক্ষমতা দখন করা যায়, সেদিকেই সদা নজর থাকে এদের। তাই এমন মানুষের যদি মন জয় করতে হয় তাহলে চোখ-কান বুজে শুধু অয়েলিং করে যেতে হবে। শুধু তাই নয়, এরা যেহুতু সারাক্ষণ লাইম লাইটে থাকতে পছন্দ করেন, তাই এমন কিছু কাজ আপনাকে করতে হবে, যাতে বসের এই ইচ্ছাটা পূরণ হয়, তাহলেই দেখবেন কেল্লা ফতে!

৬. কন্যারাশি:

৬. কন্যারাশি:

এরা তথ্য নির্ভর আলোচনা বেজায় পছন্দ করেন। তাই যখনই বসের সঙ্গে কোনও বিষয় নিয়ে কথা বলতে যাবেন, তখনই হাতে সেই সংক্রান্ত ডেটা রেডি রাখতে ভুলবেন না যেন! আর একবার যদি আপনার কাজকে সঠিক ডেটার সাহায্যে বসের সামনে রাখতে পারেন, তাহলে প্রমোশন নিয়ে আর কোনও চিন্তাই থাকবে না দেখবেন। তবে প্রমোশন পেতে ভুলেও এদের ইমোশনাল ব্ল্যাকমেইল করতে যাবেন না যেন! কারণ কন্যারাশির বসেরা এতটাই বাস্তববাদী হন যে ইমোশনালান করে এদের মন জয় করাটা মোটে সম্ভব নয়।

৭. তুলারাশি:

৭. তুলারাশি:

এরা নিজের সম্পর্কে ভাল কিছু শুনতে সদা প্রস্তুত থাকেন। তাই চটজলদি যদি বসের মন জয় করতে হয়, তাহলে যখনই সুযোগ পাবেন, তখনই ভাল ভাল কথা বলবেন। এমনটা করলে দেখবেন আপনার উন্নতি কেউ আটকাতে পারবে না।

৮. বৃশ্চিকরাশি:

৮. বৃশ্চিকরাশি:

এক কথায় এরা বেশ কঠিন বস। কারণ এরা সফলতা ছাড়া আর কিছু পছন্দ করেন না, আর নিজের গোল অ্যাচিভ করতে যদি ইমপ্লয়িদের গাধার মতো খাটাতেও হয়, তাতেও এরা পিছপা হন না। তাই এমন বসের মন জয় যদি করতে হয়, তহলে তিনি কী চাইছেন তা বুঝে নিয়ে সেই মতো মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কাজ করে যেতে হবে। একবার যদি আপনার পরিশ্রমে বসে স্বপ্ন পূরণ হয়, তাহলে আপনারও যে পকেট ভরে উঠতে সময় লাগবে না, তা বলাই বাহুল্য!

৯. ধনুরাশি:

৯. ধনুরাশি:

এরা প্ল্যান করে চলতে একেবারই পছন্দ করেন না। যখন যা মন চায় তাই করেন। বিশেষত এদিক-সেদিক ঘুরতে যেতে এরা বেজায় ভালোবাসেন। তাই তো এমন বেহিসেবি মানুষের মন জয় করতে যদি চান, তাহলে তিনি যা চান, তাতে সাহায্য করে যান। আর যদি সম্ভব হয়, তাহলে শহরে ভাল পাবগুলি ঠিক কোথায় কোথায় আছে, কোথায় আছে ভাল রেস্ট্ররেন্ট অথবা কোথায় গেলে এখনও ভার্জিন সমুদ্র তটের সন্দান মিলবে, এই সব সম্পর্কে যদি অনবরত এদের জানাতে থাকেন, তাহলে বসের সেকেন্ড-ইন-কমান্ড হয়ে উঠতে আপনার যে একেবারেই সময় লাগবে না, সে কতা হলফ করে বলতে পারি।

১০. মকররাশি:

১০. মকররাশি:

কথা না শুনলে কিন্তু এরা বেজায় ক্ষেপে যান। তাই ভুল বলুক কী ঠিক, "বস ইজ অলওয়েজ রাইট", এই কথাটিকে সত্যি মেনে বস যা বলছেন তাই করে যান। সেই সঙ্গে মন দিয়ে কাজ করে যান এবং সম্ভব হলে সপ্তাহে ৪ দিন ওভার টাইম করুন। তাহলেই দেখবেন বসের প্রিয় পাত্র হয়ে উঠতে আপনাকে কেউ আটকাতে পারবেন না। কারণ মকররাশির জাতক-জাতিকারা কাজ খুব ভালোবাসেন, তাই তো যারা মন দিয়ে কাজ করেন তাদের সাপোর্ট করতে এরা পিছপা হন না।

১১. কুম্ভরাশি:

১১. কুম্ভরাশি:

এরা বেজায় আনপ্রেডিকটেবল। কিসে যে এদের ভাল লাগে, আর কিসে মন্দ, তা আগে থেকে বুঝে ওটা বেজায় শক্তকর। সেই সঙ্গে এদের ধৈর্য বড় কম হয়। তাই এমন বসকে যদি পকেটস্ত করতে হয়, তাহলে সময়ের আগে কাজ শেষ করার অভ্যাস করুন। সেই সঙ্গে কোন সময় বস কী চায়, সেদিকে সজাগ দৃষ্টি রাখুন, তাহলেই দেখবেন আপনার ম্যানেজার বা বস আপনার হাতের পুতুলে পরিনত হয়েছে।

১২. মীনরাশি:

১২. মীনরাশি:

ব্যবসায় লাভ হলেই এরা খুশি। তাই বসের সঙ্গে মিটিং করে জেনে নিন তিনি ঠিক কী চাইছেন আপনার থেকে। আর সেই মতো কাজে করে যান। তাহলেই দেখবেন পদন্নতি আপনার রোজের সঙ্গী হয়ে উঠেছে।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: বিশ্ব
    English summary

    Understand Your Boss by Astrology Sign

    Does your boss routinely wake up on the wrong side of the bed, or is he always chipper? Whether he's likeable or moody, low-key or high-strung, you may be able to shed light on his approach to work -- and how you might work with him -- by aligning his astrological sign with his management style.
    Story first published: Thursday, September 20, 2018, 12:56 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more