For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

(ছবি) ভারত নিয়ে এই ৮ গুজবে কান দিয়ে আপনিও বোকা বনেছেন নাকি?

By Oneindia Bengali Digital Desk
|

ফটোশপ, ফটো এডিটিংয়ের মতো নানা অ্যাপ-সফটওয়্যার দিয়ে ছবিতে কারচুপি করার চল নতুন নয়। আর এই ধরণের ভুয়া ছবি থেকেই তৈরি হয় গুজব। [(ছবি) পৃথিবীর বিভিন্ন দেশের নানা কুসংস্কার]

এই প্রতিবেদনে আমরা ভারতের এমনই কিছু গুজব নিয়ে আলোচনা করব। এই ঘটনাগুলি এত ভাইরাল হয়েছিল যে এর সম্পর্কে আমরা শুনিনি তা হতে পারে না। তবে অনেকেই হয়তো এই ঘটনাগুলিকে সত্যি বলে মেনে নিয়েছেন। [(ছবি) বিয়ে সংক্রান্ত আজব আচার-রীতি যা এখনও মানা হয়!]

মূলত ভুয়ো ছবির মাধ্যমে ইন্টারনেটেই এই গুজবগুলি ছড়ানো হয়েছিল। আর একদিন বা দুদিন নয়, এই গুজব বছরের পর বছর আমরা সত্য়ি বলে বিশ্বাসও করে এসেছি। [(ছবি) এই ১০টি কুসংষ্কার মেনে চলে অধিকাংশ ভারতীয়]

ভারত নিয়ে সেরা এই ৮ গুজবের গল্প আসুন দেখে নেওয়া যাক। [পুণ্যস্নান এবং সঙ্গে ১১ টাকা দিলেই এই মন্দিরে মিলবে পাপমুক্তির লিখিত 'সার্টিফিকেট'!]

তিনমুখো সাঁপ

তিনমুখো সাঁপ

রাস্তার ধারে নাকি দেখা গিয়েছিল একটি তিনমুখী পাইথন সাঁপ। কিন্তু যদি ভাল করে লক্ষ্য করে দেখেন দেখতে পাবেন তিনটি মাথাই একদিকে একভাবে রয়েছে। আসলে ছবিটি এডিট করে এটি তৈরি করা হয়েছে। তিন মুখের সাঁপ সত্যিকারের নয়।

ভারতের জাতীয় সঙ্গীতকে ইউনেসকো-র তরফে সেরা বলে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে

ভারতের জাতীয় সঙ্গীতকে ইউনেসকো-র তরফে সেরা বলে স্বীকৃতি দেওয়া হয়েছে

'জণগণমন' আমাদের জাতীয় সঙ্গীত। আর এই গান আমাদের গর্বের জায়গা। তাই এই খবর ইন্টারনেটে ছড়িয়ে পড়তে সময়ও বেশি লাগেনি। ভারতবাসী তা সত্যি ভাবতেও শুরু করেছিল। কিন্তু আসলে এটা একটা গুজব মাত্র। ইউনেসকো-র তরফে পরে বিবৃতি দিয়ে এই খবরের কথা অস্বীকার করা হয়েছে।

হনুমানের গদা খুঁজে পাওয়া গিয়েছে

হনুমানের গদা খুঁজে পাওয়া গিয়েছে

এই ছবিটির এডিটিং এত পাকা হাতে হয়েছে যে সত্যিই বোঝা দায় এই ছবি ভুয়া। এই ছবির সঙ্গে রটে গিয়েছিল হনুমানের গদা খুঁজে পাওয়া গিয়েছে শ্রীলঙ্কায়। কিন্তু আসলে এই গদা হল ইন্দোরের বিশালায়তন হনুমান মূর্তির হাতের গদা।

এক মাতাল ব্যক্তিকে জ্যান্ত গিলেছে পাইথন

এক মাতাল ব্যক্তিকে জ্যান্ত গিলেছে পাইথন

কেরলের অট্টাপড়িকে এক মাতাল ব্যক্তিকে নাকি একটি পাইথন সাঁপ গিলে খেয়েছিল। ওই ব্যক্তি নাকি ঘুমোচ্ছিলেন। কিন্তু এই ঘটনা সর্বৈব মিথ্যা। এই ঘটনার কোনও প্রমান নেই। এই ছবিটি দিয়ে শুধুমাত্র আতঙ্ক তৈরি করা হয়েছিল।

১১ সন্তানের জন্ম দিলেন এক ভারতীয় মহিলা

১১ সন্তানের জন্ম দিলেন এক ভারতীয় মহিলা

এই ছবিটি সত্যি। কিন্তু এই ছবির পিছনের গল্পটা পুরোপুরি মিথ্যা। এই ছবিটি একটি হাসপাতালে যেখানে ১১/১১/১১ তারিখে জন্ম নেওয়া ১১টি শিশুর ছবি। কোনও এক মহিলা একসঙ্গে ১১ সন্তানের জন্ম দেয়নি।

অসমের ধর্ষণ উৎসব

অসমের ধর্ষণ উৎসব

অসমের ধর্ষণ উৎসব নিয়ে একেবারে তোলপাড় হয়ে উঠেছিল সোস্যাল দুনিয়া। মার্কিন ওয়েবসাইটে এই তথ্য দেওয়া হয়েছিল। যদিও এই কথা সম্পূর্ণ অস্বীকার করেছিল অসমের স্থানীয়রা। অসমের সিআইডি এই ধরণের গুজব রটাবো বন্ধ করার জন্য অভিযাবে নামতে বাধ্য হয়েছিল।

দীপাবলিতে মহাকাশ থেকে ভারতের দৃশ্য

দীপাবলিতে মহাকাশ থেকে ভারতের দৃশ্য

প্রত্যেক বছরই প্রায় দীপাবলীর সময় এই ছবি ইন্টারনেটে ঘোরাফেরা করতে শুরু করে। দীপাবলীর আলোতে উজ্জ্বল ভারতের ছবি বলে দাবি করা হয় একে। কিন্তু আসলে তা না ১৯৯২-২০০৩ সাল পর্যন্ত ভারতের ক্রমবর্ধমান জনবসতি বোঝাতেই এই ছবি।

দৈত্য কঙ্কাল উদ্ধার

দৈত্য কঙ্কাল উদ্ধার

এই ছবিটি দেখার পর মানুষের বিশ্বাস দৈত্য কঙ্কালটি ভারত থেকেই উদ্ধার করা হয়েছে। কিন্তু আসলে ইমেজ ম্যানুপুলেশন বা কারচুপি করা ছবি নিয়ে একটি প্রতিযোগীতায় পাঠানো হয়েছিল। সেখান থেকেই এটি ভাইরাল হয়ে যায়।

English summary

Top 8 Hoaxes About India

Top 8 Hoaxes About India
X