অস্কারের ভুলভুলিয়া

Posted By:
Subscribe to Boldsky

৮৯তম অস্কারের রেশ কাটার আগেই চলচিত্র জগতের সেরা এই পুরষ্কারটি সম্পর্কিত এমন কিছু আজব তথ্য় আপনাদের পরিবেশন করতে চলেছে, যা পড়তে পড়তে চোখ কপালে উঠতে বাধ্য়! সেই শুরুর সময় থেকেই অস্কার অনুষ্টান মানে চুরান্ত নিয়মানুবর্তিতা, যার আপাদ মস্তক বাঁধা নিপুন স্ক্রিপ্টের বাঁধনে। কোন অভিনেতা কখন পুরষ্কার নেবেন, কে সেই পুরষ্কার বিতরণ করবেন অথবা কোন সংগীত শিল্পী কী গান গাইবেন, সব কিছুই ঠিক থাকে আগে থেকেই। তবু যে অঘটন ঘটে না, এমন নয় কিন্তু!

অস্কারের সমারহে ঘটে যাওয়া এমনই কিছু আজব ঘটনার পসরা সাজিয়ে বসলাম আপনাদের জন্য়। তাহলে অপেক্ষা কিসের! চলুন ফিরে দেখা যাক ঝাঁক-জমকের মোড়কে মোড়া বিনোদন জগতের সর্বত্তম এই অনুষ্টানের কিছু ঘটনার দিকে, যা বদলে দিয়েছিল অস্কারের আপাত স্পন্দনহীন ইতিহাসকে।

অস্কারের ভুলভুলিয়া

না, কোনও মতেই নেব না!

চলচিত্র নির্মানের সঙ্গে যুক্ত প্রায় সব কলাকূশলিরাই স্বপ্ন দেখেন অস্কার জয় করার। অনেক পারেন, বেশিরভাগই স্বপ্নকে মনের মণিকোঠায় যত্নে সাজিয়ে পৃথিবী ছাড়েন। আচ্ছা আপনাদের যদি বলি এমন অনেক শিল্পী আছেন, যারা অস্কারকে জিতেও এই বহু মূল্যবান ট্রফিটি নিতে চাননি।

বিশ্বাস হচ্ছে না তো? হওয়ার কথাও নয়। তবু বলতে হয়, "সত্য় যে গল্পের থেকেও বেশি অবিশ্বাস্য হয়"।

সময়টা ১৯৩৬ সাল। সেই প্রথমবার কোনও শিল্পী অস্কার জিতেও পুরষ্কার নিতে চাইলেন না। "দা ইনফোরমার" সিনেমার জন্য় সেরা স্ক্রিপ্ট রাইটিং-এর জন্য় অস্কার জিতেছিলেন ডুডলে নিকোলাস। কিন্তু কোনও এক আজানা কারণে তিনি সেই পুরষ্কার নেননি। এর অনেক বছর পর ১৯৭২ সালে বিখ্য়াত অভিনেত্রী মারলন ব্রান্ডো, দি গডফাদার সিনেমার জন্য় সেরা অভিনেত্রীর পুরষ্কার জিতেও অস্কার নেননি। কেন জানানে? তিনি অভিযোগ করেছিলেন ফিল্ম ইন্ডাস্ট্রির অনেকে নাকি তার সঙ্গে বেজায় খারাপ ব্য়বহার করেছিলেন, কারণ তিনি একজন নেটিভ আমেরিকান ছিলেন। যার প্রতিবাদে তিনি অস্কার বর্জন করছিলেন। একানেই শেষ নয়, এই লিস্ট বেজায় লম্বা! তবে অস্কারের মঞ্চ যাকে কোনও দিন ভুলতে পারবে না, সে হল জর্জ সি স্কট। তিনি একাধিক বার অস্কার জিতেও তা নেননি। উলটে বলে বেরিয়েছেন এই পুরষ্কার বিতরণি অনুষ্টানটি নাকি যারপরনাই দু ঘন্টার "মিট" প্য়ারেড। ভাবতে পারেন!

মিনিস্কার্ট পড়া বন্ধ হয় হোক:

কেমন ড্রেস পরে আসতে হবে অস্কার সেরিমনিতে। ১৯৬৭ সালের আগে এই বিষয়ে সেভাবে কোনও নিয়ম ছিল না। নানা কারণে ৪০তম একাডেমি অ্যাওয়ার্ড সেরিমনিতে হঠাৎই মিনি স্কার্ট পরে আসতে এক প্রকার মানা করা হয় অভিননেত্রীদের। এই নিয়ে ফরমানও জারি হয়। তারপর থেকে আজও সেই নিয়মকে অক্ষরে অক্ষরে পালন করে আসছেন উদ্যোক্তারা।

অস্কারের ভুলভুলিয়া

অস্কারের দাম কত!

সোনায় মোড়া যে ট্রফিটি একাডেমি অ্যাওয়ার্ড উইনারদের দেওয়া হয় তার মূল্য় কত জানেন? শুনলে আবাক হয়ে যাবেন, মাত্র ১ ডলার। ১৯৫০ সাল থেকে অস্কার বিজেতাদের একটা এগ্রিমেন্ট সাইন করতে হয়। যাতে লেখা থাকে, কোনও দিন কোনও অস্কার বিজেতা যদি তার ট্রফিটি বিক্রি করে দিতে চান, তাহলে মাত্র ১ ডলারের পরিবর্তে একাডেমি অ্যাওয়ার্ডসের উদ্য়োক্তারা সেটি কিনে নেবেন। অন্য কাউকে সেই ট্রফি বেশি দামে বিক্রি করা যাবে না।

কেমন ছিলাম আমি?

আজ অস্কার অ্যাওযার্ডকে যেমন দেখতে লাগে, প্রথম থেকে ট্রফিটি কিন্তু এমন ছিল না। একেবারে শুরুর সময়ে ট্রফিটি ছিল কাঠের তৈরি। ধীরে ধীর যত সময় এগিয়েছে বদলে গেছে অ্যাকাডেমি অ্যাওয়ার্ডের বহিরাঙ্গ। যেমন,দ্বিতীয় বিশ্ব যুদ্ধের আগে ট্রফিটির বেসটি তৈরি হত পাথর দিয়ে। আর যুদ্ধ যখন তুঙ্গে, তখন প্লাস্টার দিয়ে বানাতে হয়েছিল ট্রফ্রিটি। যদিও যুদ্ধের পরে বিজেতারা প্লাস্টারের সেই ট্রফিটির বদলে পেয়েছিলেন মেটাল দিয়ে তৈরি নতুন পুরষ্কার।

রেকর্ডের ফুলঝুড়ি:

আজ পর্যন্ত একটি রেকর্ড কেউ ভাঙতে পারেননি। প্রয়াত ওয়াল্ড ডিজনি ২৬ টি অস্কার জিতেছিলেন। যে রেকর্ড আজও অক্ষত। অপরদিকে সাউন্ড ইঞ্জিনায়র কেভিন ও'কোনাল ২০ বার নমিনেটেড হয়েও একবারও হাতে তুলতে পারেননি এই প্রসটিজিয়াস অ্যাওয়ার্ডটি। এটাও কিন্তু একটা রেকর্ড, তবে দুর্ভাগ্যের। তাই না!

Read more about: আজব, বিশ্ব
English summary
strange stories from academy awards
Story first published: Monday, February 27, 2017, 16:43 [IST]
Please Wait while comments are loading...