সাবধান: পরিবারে যদি সুখ-শান্তি বজায় রাখতে চান তাহলে মেনে চলুন এই নিয়মগুলি!

Subscribe to Boldsky

বাস্তু শাস্ত্র হল সেই বিজ্ঞান যা পৃথিবী, জল, আগুন, বাতাস এবং আকশ, এই পাঁচটি এলিমেন্টকে নিয়ন্ত্রণে রেখে কীভাবে গৃহস্থে সুখ-শান্তি বজায় রাখা যায়, তার পথ নির্দেশ করে। তাই তো অফুরন্ত সুখ-শান্তির সন্ধান পেতে এই শাস্ত্র মেনে যেমন বাড়ি তৈরি করা উচিত, তেমনি ঘরের অন্দরে কী কী জিনিস রাখা উচিত, আর কী কী নয়, সে বিষয়েও জেনে নেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। কারণ দেখা গেছে বাস্তু শাস্ত্র না মেনে চললে নানা ধরনের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়, সেই সঙ্গে দুঃখের খপ্পরে পরার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়।

এখন প্রশ্ন হল গৃহস্থের অন্দরে সুখ-শান্তি এবং সমৃদ্ধির আগমণ ঘটাতে কী কী নিয়ম মেনে চলা উচিত?

১.খালি দেওয়াল নৈব নৈব চ:

১.খালি দেওয়াল নৈব নৈব চ:

বাড়ির প্রবেশ পথে যে খালি কোনও দেওয়াল থাকে, তাহলে শীঘ্র সেখানে গণেশ ঠাকুরের একঠা ছবি লাগানোর ব্যবস্থা করুন। কারণ বাস্তুশাস্ত্র মতে খালি দেওয়াল নিঃসঙ্গতার প্রতীক, যা মোটেও শুভ নয়!

২. পঞ্চমুখি হনুমান:

২. পঞ্চমুখি হনুমান:

আপনার বাড়ি যদি দক্ষিণ-পশ্চিম মুখি হয়, তাহলে সময় নষ্ট না করে আজই বাড়ির প্রবেশ পথে পঞ্চমুখি হনুমানজির ছবি লাগান। কেন এমন পরামর্শ দেওয়া হয়ে থাকে জানা আছে? কারণ বাস্তু শাস্ত্রে এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে দক্ষিণ-পশ্চিম দিক থেকেই খারাপ শক্তির আগমণ ঘটে। তাই তো হনুমানজিগ ছবি রাখলে নেগেটিভ শক্তি বাড়ির ধারে কাছে ঘেঁষারও সুযোগ পায় না।

৩. মেডিটেশনের স্থান:

৩. মেডিটেশনের স্থান:

প্রাণায়মের মাধ্যমে যদি শরীর এবং ব্রেনের বিকাশ ঘটাতে চান, তাহলে উত্তর-পূর্ব দিকে মুখ করে বসে ধ্যান করুন। দেখবেন বেশি উপকার পাবেন। শুধু তাই নয়, এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে এই নিয়ম মেনে প্রাণায়ম করলে স্পিরিচুলান গ্রোথও বেশ দ্রুত গতিতে হতে থাকে। আর যেমনটা আপনাদের সকলেরই জানা আছে যে স্পিরিচুয়াল গ্রোথ হলে মন এতটাই শান্ত হয়ে যায় যে, যে কোনও কঠিন পরিস্থিতির সম্মুখিন হতে মন ডরায় না।

৪. পারিবারিক ছবি:

৪. পারিবারিক ছবি:

খেয়াল করে দেখবেন অনকেই বাড়িতে পরিবারিক ছবি রেখে থাকেন। এমন ছবি সব সময় দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে রাখা উচিত। শুধু তাই নয়, সেই ছবি বাঁধাতে হবে রুপালী বা সোনালি ফ্রেমে। এমনটা করলে দেখবেন পরিবারের প্রতিটি সদস্যের মধ্যে সুখ-শান্তি বজায় থাকবে। সেই সঙ্গে কোনও ধরনের বিপদ হওয়ার আশঙ্কাও কমবে।

৫. উদিত সূর্যের ছবি:

৫. উদিত সূর্যের ছবি:

সূর্যোদয়ের ছবি যদি বাড়িতে রাখতে হয়, তাহলে তা ঝোলাতে হবে পূর্ব দিকে মুখ করে। কারণ এমনটা করলে সমাজিক সম্পর্কের উন্নতি ঘটে। সেই সঙ্গে সমৃদ্ধির সন্ধান পেতেও সময় লাগবে না।

৬. পড়াশোনার টেবিল:

৬. পড়াশোনার টেবিল:

যে টেবিলে বসে বাচ্চারা পোড়াশোনা করেন বা আপনি অফিসের কাজ করে থাকেন, সেই টেবিল সব সময় পূর্ব দিকে রাখা উচিত। এমনটা করলে একদিকে যেমন পড়াশোনার উন্নতি ঘটে, তেমনি কর্মক্ষেত্রে সাফল্য পাওয়ার সম্ভাবনাও বৃদ্ধি পেতে শুরু করে।

৭. জানলা এবং দরজা:

৭. জানলা এবং দরজা:

বাস্তুশাস্ত্রে এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে বাড়িতে সুখ-শান্তি বজায় রাখতে ঘরের অন্দরে জানলা এবং দরজার মোট যোগফল জোড় সংখ্যায় হওয়া উচিত। অর্থাৎ ১০,১২,১৪ প্রভৃতি। আর যদি বিজোড় সংখ্যায় যদি হয়, তাহলে! সেক্ষেত্রে বাড়িতে নেগেটিভ শক্তির বিকাশ ঘটতে শুরু করে। ফলে খারাপ কিছু ঘটে যাওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। তাই এই নিয়মটি মাথায় রাখাটা জরুরি।

৮. বিছানার নিচে কাগজ এবং প্লাস্টিকের ব্যাগ রাখবেন না:

৮. বিছানার নিচে কাগজ এবং প্লাস্টিকের ব্যাগ রাখবেন না:

অনেকেই বিছানার গোদির নিচে পুরনো কাগজ, প্লাস্টিকের ব্যাগ এবং আরও নানা কিছু রেখে থাকেন। এমনটা করা একেবারেই উচিত নয়। কারণ বাস্তুশাস্ত্র মতে এমনটা করলে অতীতে ঘটে যাওয়া খারাপ কোনও ঘটনা পিছু ছাড়ে না। ফলে সুখের সন্ধান পাওয়া বেজায় কঠিন হয়ে দাঁড়ায়। তাই সুখ-সমৃদ্ধির সন্ধান যদি পেতে চান, তাহলে এই ভুল কাজটা করবেন না যেন!

৯. শোয়ার ঘর কোনও সময় অন্ধকার করবেন না:

৯. শোয়ার ঘর কোনও সময় অন্ধকার করবেন না:

বাস্তুশাস্ত্র মতে শোয়ার ঘর কখনও অন্ধকার করে রাখা একাবারেই উচিত নয়। কারণ এমনটা করলে নাকি সুখ-শান্তি দূরে পালাতে থাকে। ফলে নানা ঝামেলায় জড়িয়ে পরার সম্ভাবনা বাড়ে। তাই পরিবারের অন্দরে শান্তি বজায় রাখতে বেড রুমে সব সময় কম পাওয়ারের একটা আলো জ্বালিয়ে রাখবেন। এমনটা করলে দেখবেন উপকার পাবেন।

১০. অ্যাকোয়ারিয়াম:

১০. অ্যাকোয়ারিয়াম:

বাড়ির উত্তর-পূর্ব দিকে অ্যাকোয়ারিয়াম রাখলে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির পথ প্রশস্ত হয়। সেই সঙ্গে সুখ-শান্তিরও সন্ধান মেলে। প্রসঙ্গত, বাস্তুশাস্ত্রের উপর লেখা বেশ কিছু বইয়ে এমনটাও লেখা রয়েছে যে অ্যাকোয়ারিয়াম যদি এমন মাছ রাখা যায়, যারা সরাক্ষণ এদিক-সেদিক ছোটাছুটি করে, তাহলে বেশি উপকার পাওয়া যায়।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: বিশ্ব
    English summary

    সুখ-শান্তির সন্ধান পেতে এই শাস্ত্র মেনে যেমন বাড়ি তৈরি করা উচিত, তেমনি ঘরের অন্দরে কী কী জিনিস রাখা উচিত, আর কী কী নয়, সে বিষয়েও জেনে নেওয়ার প্রয়োজন রয়েছে। কারণ বাস্তু শাস্ত্র না মেনে চললে নানা ধরনের ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা বেড়ে যায়, সেই সঙ্গে দুঃখের খপ্পরে পরার আশঙ্কাও বৃদ্ধি পায়।

    Practical Vaastu changes for a happy homeVaastu, which literally means 'house', is a science (shastra) of arranging the five elements - earth, water, fire, air and sky in complete harmony. Experts say that the fundamental principle of vaastu shastra is to add value to a man's life. Behind every vaastu guideline, there is a scientific reasoning that aims at providing an organized and convenient life to everyone. Believe it or not, vaastu does have its effects and a few changes in your house can bring a lot of peace in your life.
    Story first published: Tuesday, March 6, 2018, 12:59 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more