অস্কার ২০১৮: অস্কারের মঞ্চে ঘটা সবথেকে লজ্জাজনক "ওয়ার্ডরোব ম্যালফাংশন"!

Subscribe to Boldsky

রেড কার্পেট কাঁপাতে সারা দুনিয়ার তাবড় অভিনতা-অভিনেত্রীরা এই একটা দিনের জন্যই তো অপেক্ষা করে থাকেন। আর কেন করবেন নাই বা বলুন! আজকের দিনে যে যত সুন্দরভাবে নিজেকে ওয়ার্ল্ড প্রেসের সামনে তুলে ধরতে পারবেন, সেই তো আগামী কয়েকদিন আলোচনার কেন্দ্র বিন্দুতে থাকবেন। আর জনপ্রিয় হয়ে ওঠার এর থেকে বড় সুযোগ আর হতে পারে বলুন!

ঠিক, একেবারে ঠিক বলেছেন! কিন্তু দুর্ভাগ্য় যখন কারওকে পিছু নেয়, তখন হাজারো ফ্ল্যাশ লাইটের সামনে নিজেকে ফ্যাশন আইকন হিসেবে প্রতিষ্টিত করার স্বপ্ন ভেঙে চুরচুর হয়ে যেতে সময় লাগে না। যেমনটা হয়েছিল ব্ল্যাঙ্কা ব্ল্যাঙ্কো এবং মারিয়া কেরের ক্ষেত্রে। অস্কারের মঞ্চে নিজেদের তুলে ধরতে তারা "বেস্ট অব বেস্ট ড্রেস" চুজ করেছিলেন, কিন্তু ভাগ্যের দোষে ওয়ার্ল্ড প্রেস সেই ড্রেসিং স্টাইলকে "ওয়ার্ডরোব ম্যালফাংশন" হিসেবে গণ্য করেছিল, ফলে খ্যাতির জায়গা নিয়েছিল লজ্জা। তবে এই লিস্টটা যে বেজায় ছোট, এমন নয় কিন্তু! নানা সময় একাধিক অভিনেত্রী এমন লজ্জাজনক পরিস্থিতির সম্মুখিন হয়েছেন। যেমন ধরুন...

১. এমা স্টোন:

১. এমা স্টোন:

২০১৫ সালে অস্কার রেড কার্পেটে এমা এমন একটি ড্রেস পরেছিলেন, যাকে ফ্যাশন স্টেটমেন্ট তো বলা যেতে পারে না। কারণ তাঁর শরীরের এমন কিছু অংশ দেখা যাচ্ছিল, যা বেজায় অস্বস্তিকর। কেন এমন কথা বলছি, তাই ভাবছেন নিশ্চয়? আসলে এমার গ্রিন ড্রেসের ফাঁক গোলে তার অন্তর্বাস দেখা যাচ্ছিল, যা একাধিক ছবিতে বেজায় স্পষ্টভাবে ধরা পরেছিল। তাই তো এমার সেদিনের ড্রেসকে ফ্যাশন ডিজাস্টার হিসেবে গণ্য করেছিল প্রেস।

picture courtesy

২. জেনিফার লোপেজ:

২. জেনিফার লোপেজ:

ক্লিভেজ শোয়িং গ্রাউনে সেদিন বেজায় সুন্দরি দেখাচ্ছিল জেনিফারকে। কিন্তু হঠাৎই একের পর এক ছবিতে এই বিখ্যাত গায়িকার ব্রেস্টের বিশেষ কিছু অংশ এমনভাবে গ্রাউনের উপর থেকে দেখা যাচ্ছিল, যাকে কোনও ভাবেই ফ্যাশন বলা চলে না। বরং বলা থেকে পারে ওয়ার্ডরোব ম্যালফাংশন! ২০১২ সালের অস্কারের মঞ্চে ঘঠে যাওয়া এই ঘটনার পর জেনিফার নিজের ড্রেসিং স্টাইল নিয়ে অনেকটাই সাবধন হয়েছিল ঠিকই। কিন্তু কে বলতে পারে এমন ঘটনা কখন আবার ঘটে যায়!

picture courtesy

৩. গিনিথ প্ল্যাট্রোর ব্রালেস অবতার:

৩. গিনিথ প্ল্যাট্রোর ব্রালেস অবতার:

২০০২ সালে অস্কার রেড কার্পেটে নিজেকে আকর্ষণীয় করে তোলার চক্করে এমন একটি ড্রেস পরে এসেছিলেন এই সুন্দরী যে সবারই মুখে শুধু তার নামই ছিল, তবে গোসিপের কেন্দ্রবিন্দুতে গিনিথের স্টাউল ছিল না, ছিল তার ব্রালেস গ্রাউন কীভাবে ফ্যাশন ডিজাস্টার ঘটিয়েছিল, সে বিষয়ে। সিলভারি গ্রাউনের মধ্যে থেকে অভিনেত্রীর শরীরের এমন কিছু অংশ দেখা যাচ্ছিল, যা বেজায় অস্বস্তিকর ছিল। শুধু তাই নয়, অস্কারের মঞ্চে ওয়ার্ডরোব ম্যালফাংশন-এর লিস্টে একেবারে উপরের দিকে উঠে এসেছিলেন এই সুন্দরী।

picture courtesy

৪. হেলেন মিরেন:

৪. হেলেন মিরেন:

বর্ষীয়ান এই ব্রিটিশ অভিনেত্রীর একেবারেই ভাল গেল না এবারের অস্কার। কেন! কারণ নীল গ্রাউনে তিনি রেড কার্পেট কাঁপালেও ড্রেসের উপর থেকে তাঁর নিপলস এমনভাবে দেখা যাচ্ছিল যে এই ড্রেসকে ফ্যাশন ডিজাস্টার হিসেবে গণ্য করল ওয়ার্ল্ড প্রেস। আর সব থেকে দুঃখের বিষয় হল এই বিষয়ে একেবারেই অবগত ছিলেন না অভিনেত্রী। যখন জানলেন তখন অনেক দেরি হয়ে গেছে। ততক্ষণে ইন্টারনেটে ভাইরাল হয়ে গেছে হেলেনের ছবি।

picture courtesy

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: বিশ্ব
    English summary

    দুর্ভাগ্য় যখন কারওকে পিছু নেয়, তখন হাজারো ফ্ল্যাশ লাইটের সামনে নিজেকে ফ্যাশন আইকন হিসেবে প্রতিষ্টিত করার স্বপ্ন ভেঙে চুরচুর হয়ে যেতে সময় লাগে না। যেমনটা হয়েছিল ব্ল্যাঙ্কা ব্ল্যাঙ্কো এবং মারিয়া কেরের ক্ষেত্রে।

    Most embarrassing wardrobe malfunctions at Academy Awards everOSCARS 2018 will see the finest celebrities descend on Los Angeles tonight in the most highly-anticipated event of the year. But if these past appearances are anything to go by at the ceremony, the 90th Academy Awards will no doubt bring many wardrobe malfunctions.
    Story first published: Monday, March 5, 2018, 12:42 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more