আজ মা দুর্গার দিন! তাই তো প্রতি শুক্রবার রাশি অনুসারে এই মন্ত্রগুলি পাঠ করা জরুরি কেন জানেন?

Subscribe to Boldsky

হিন্দু শাস্ত্র অনুসারে সপ্তাহের এক একটা দিন এক একটা দেব-দেবীর আরাধনা করার জন্য বরাদ্দ রয়েছে। কেন এমন নিয়ম? আসলে এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে ওই বিশেষ দিনে সেই দেবে-দেবীর অরাধনা করলে নাকি এত মাত্রায় সুফল পাওয়া যায় যে জীবনের ছবিটা আরও রঙিয়ে উঠতে সময় লাগে না। যেমন শুক্রবারের কথাই ধরুন না। এদিন হল মাতৃশক্তির আরাধনা করার দিন। শাস্ত্র মতে প্রতি শুক্রবার মা দুর্গার পুজো করলে ভক্তের মনের সব ইচ্ছা যেমন পূরণ হয়, তেমনি আরও নানাবিধ উপকার মেলে। যেমন ধরুন- কোনও ধরনের বিপদ ঘটার আশঙ্কা কমে, পরিবারে সুখ-শান্তি বজায় থাকে, বৈবাহিক জীবন শান্তিতে কাটে, অর্থনৈতিক উন্নতি ঘটে, টাকা-পয়সা সংক্রান্ত নানা ঝামেলা মিটে যায়, কালো যাদুর প্রভাব কাটতে সময় লাগে না এবং রোগ-ব্যাধি সব দূরে পালায়।

এখন প্রশ্ন হল এতসব উপকার পেতে প্রতি শুক্রবার কী কী নিয়ম মেনে করতে হবে দেবীর আরাধনা? এক্ষেত্রে সকাল সকাল ঘুম থেক উঠে পরিষ্কার জামা-কাপড় পরে মায়ের ছবি বা মূর্তি, সেই সঙ্গে ঠাকুর ঘরও ভাল করে পরিষ্কার করে নিতে হবে। তারপর চারিপাশে গঙ্গা জল ছিটিয়ে পুনরায় প্রতিষ্টা করতে হবে দেবীকে। এরপর মায়ের সামনে প্রদীপ জ্বালিয়ে নিবেদন করতে হবে সিঁদুর, চন্দন, জবা ফুল, পান পাতা এবং যে কোনও একটি ফল। এরপর শুরু করতে হবে পুজো। আর পুজোর সময় এই প্রবন্ধে, প্রতিটি রাশি অনুসারে যে যে মন্ত্রগুলির উল্লেখ করা হয়েছে সেগুলি এক মনে ১০৮ বার পাঠ করতে হবে। তাহলেই দেখবেন কেল্লা ফতে!

রাশি অনুসারে আলাদা আলাদা মন্ত্র কেন? আসলে জ্যোতিষ শাস্ত্র মতে রাশি ভেদে গ্রহ-নক্ষত্রের অবস্থানে পরিবর্তন হয়ে যায়। তাই তো সাধারণ কিছু মন্ত্র পাঠ করলে কোনও সুফল মেলে না। এই কারণেই তো প্রতিটি রাশি অনুসারে আলাদা আলাদা দুর্গা মন্ত্রের সন্ধান পাওয়া যায়। যেমন ধরুন...

১. মেষরাশি:

১. মেষরাশি:

জ্যোতিষ বিশেষজ্ঞদের মতে এই রাশির জাতক-জাতিকারা যদি প্রতি শুক্রবার দেবীর অরাধনা করার সময় "আইম ক্লি শৌন", এই মন্ত্রটি ১০৮ বার জপ করেন তাহলে দেবী দুর্গা এতটাই প্রসন্ন হন যে ভক্তের মনের সব ইচ্ছা পূরণ হতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে আরও নানাবিধ উপকারও মেলে। প্রসঙ্গত, এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে দুর্গা পুজোর সময়ও যদি এই মন্ত্রটি জপ করে মেষরাশির জাতক-জাতিকারা মা দুর্গার আরাধনা করেন, তাহলে কিন্তু বেজায় সুফল মেলে।

২. বৃষরাশি:

২. বৃষরাশি:

অনেক অনেক টাকার মালিক হয়ে ওঠার পাশাপাশি পরিবারে সুখ-সমৃদ্ধি এবং খুশির ছোঁয়া লাগুক এমনটা চান নাকি? তাহলে আজ থেকে টানা ৯ দিন মা দুর্গার ছবি বা মূর্তির সামনে বসে এক মনে "ওম জাটা জুট শ্যামাউকতামরাহেদু ক্রিট লক্ষনাম লোচায়ান্ত্র সনযুক্তাম পাদমেন্দু সদা শান নম", এই মন্ত্রটি জপ করতে হবে। প্রসঙ্গত, দুর্গা ধ্যান মন্ত্র নামে পরিচিত এই মন্ত্রটি পাঠ করলে মনের জোর তো বাড়বেই, সেই সঙ্গে হারিয়ে যাওয়া মানসিক শান্তিও ফিরে আসবে। ফলে জীবন অনন্দে ভরে উটতে দেখবেন সময় লাগবে না।

৩. মিথুনরাশি:

৩. মিথুনরাশি:

জীবন পথে চলতে চলতে মাথা চাড়া দিয়ে ওঠা যে কোনও সমস্যা নিমেষে মিটে যাক, এমনটা যদি চান, তাহলে প্রতি শুক্রবার মা দুর্গার আরাধনা করতে ভুলবেন না যেন! আর পুজোর সময় খেয়াল করে পাঠ করতে হবে "শান্তি কার্মেনি সর্ত্র তথা দুহ স্বপ্ন দর্শনে গ্রহ পিদাসু চোগ্রাসু মহাত্মমায়ম শ্রিনু ইয়ানমান", এই মন্ত্রটি। তাহলেই দেখবেন সুফল মিলতে শুরু করেছে। প্রসঙ্গত, এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে এই মন্ত্রটি নিয়মিত পাঠ করলে খারাপ স্বপ্ন আসার আশঙ্কা যেমন কমে, তেমনি নানাবিধ গ্রহ দোষ কেটে যেতেও সময় লাগে না।

৪. কর্কটরাশি:

৪. কর্কটরাশি:

কর্মক্ষেত্রে চরম সফলতার স্বাদ পেতে আপনাদের আজ থেকে টানা ৯ দিন নিয়মিত মা দুর্গার পুজো করতে হবে এবং আরাধনা করার সময় কম করে ১০৮ বার পাঠ করতে হবে "হ্রিন শ্রিন শন", এই মন্ত্রটি, তাহলেই দেখবেন কেল্লা ফতে!

৫. সিংহরাশি:

৫. সিংহরাশি:

মা দুর্গার আশীর্বাদে অফুরন্ত সুখ-শান্তির সন্ধান পেতে প্রতি শুক্রবার মায়ের পুজো তো করতেই হবে, তার পাশাপাশি দুর্গা পুজোর সময়ও দেবীর অরাধনা করা মাস্ট! আর এই সময় যে মন্ত্রটি পাঠ করতে হবে, সেটি হল-"সর্ব মঙ্গল মঙ্গল্যে শিব সর্বার্থ সাধিকে স্বরন্যে ত্রমবকে গৌড়ি নারায়ণ নমস্তুতে"।

৬. কন্যারাশি:

৬. কন্যারাশি:

মা দুর্গার আশীর্বাদে টাকা-পয়সা সংক্রান্ত সব ঝামেলা মিটে যাক, সেই সঙ্গে যারা আপনার ক্ষতি করতে চায়, তাদেরও নিকেশ ঘটুক, এমনটা যদি চান, তাহলে প্রতি শুক্রবার "রিপভ শঙ্কশাম ইয়ান্তি কল্যাণাম চপ প্রদ্যুতে নন্দতে চ কুলাম পুনশাম মহাত্মামায়ম মাম শ্রিনু ইয়ানমান", এই মন্ত্রটি জপ করতে করতে দেবীর অরাধনা করতে ভুলবেন না যেন!

৭. তুলারাশি:

৭. তুলারাশি:

এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে শুক্রবারের পাশাপাশি প্রতিদিন "ইন ক্লি শন" মন্ত্রটি জপ করতে করতে দেবীর নাম নিলে নাকি তুলারাশির জাতক-জাতিকাদের চরম অর্থনৈতিক উন্নতি ঘটতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে টাকা-পয়সা সংক্রান্ত নানা ঝামেলাও মিটে যায়ই। শুধু তাই নয়, খারাপ শক্তির প্রভাবে কোনও ধরনের বিপদ ঘটার আশঙ্কাও যায় কমে। তাই তো বলি বন্ধু, বাকি জীবনটা যদি সুখ-শান্তিতে এবং নিরাপদে কাটাতে চান, তাহলে এই মন্ত্রটি জপ করতে ভুলবেন না যেন!

৮. বৃশ্চিকরাশি:

৮. বৃশ্চিকরাশি:

"ওম সর্ব বাঁধা বিনিরমুক্ত, ধন ধান্যে সুতানবিথা। মনুষ্য মতপ্রাসাদেন ভবিষ্যতি নম সনশয়া ওম", বৃশ্চিকরাশির জাতক-জাতিকারা যদি প্রতি শুক্রবার এই মন্ত্রটি ১০৮ বার পাঠ করেন, তাহলে মা দুর্গা এতটাই প্রসন্ন হন যে যে কোনও সমস্যা মিটে যেতে সময় লাগে না। সেই সঙ্গে জীবন পথে চলতে চলতে মাথা চাড়া দিয়ে ওঠা নানা বাঁধার পাহাড়াও সরে যায়।

৯. ধনুরাশি:

৯. ধনুরাশি:

মায়ের মন জয় করে নানা সুফল পেতে চান, তাহলে প্রতি শুক্রবার দেবীর পুজোর আয়োজন তো করতেই হবে, সেই সঙ্গে মায়ের আরাধনা করার সময় জপ করতে হবে "শান্তি কর্মানি স্বপ্ন দর্শনে গ্রহ পিদাশু চোগ্রাসু মহাত্মমায়াম শ্রুনু ইয়ানমান", এই মন্ত্রটি। তাহলেই দেখবেন নানাবিধ উপকার মিলতে সময় লাগবে না।

১০. মকররাশি:

১০. মকররাশি:

এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে প্রতি শুক্রবার মায়ের অরাধনা করার সময় যদি "ক্লি হিন শ্রী শন", এই মন্ত্রটি এক মনে ১০৮ বার জপ করা যায়, তাহলে চরম অর্থনৈতিক উন্নতি ঘটতে সময় লাগে না। শুধু তাই নয় দুর্গা পুজোর সময়ও যদি আপনারা এই মন্ত্রটি নিয়মিত পাঠ করতে পারেন, তাহলেও কিন্তু নানা উপকার পাওয়ার সম্ভাবনা বেড়ে যায়।

১১. কুম্ভরাশি:

১১. কুম্ভরাশি:

এই রাশির জাতক-জাতিকাদের যদি দুর্গা মায়ের আশীর্বাদ লাভ করতে হয়, তাহলে নিয়ম করে প্রতি শুক্রবার "বল গ্রহ বিভুতানাম বলনাম শান্তিকর্কম শংগাহাতভেদে চ নৃনাম মাতৃ করণ মুতমাম", এই মন্ত্রটি জপ করতে করতে দেবীর অরাধনা করতে হবে। যদি এমনটা করতে পারেন, তাহলে যে কোনও সমস্যা মিটে যেতে দেখবেন সময় লাগবে না।

১২. মীনরাশি:

১২. মীনরাশি:

বাকি জীবনটা আনন্দে কাটুক, সেই সঙ্গে অনেক অনেক টাকায় ভরে উঠুক পকেট, এমনটা যদি চান, তাহলে মীনরাশির জাতক-জাতিকাদের নিয়ম করে "হ্রিং ক্লিং শন ফট ওম দুর্গায় নমহ", এই মন্ত্রটি জপ করতে হবে এবং এক মনে দেবীর নাম নিতে হবে। তাহলেই দেখবেন কেল্লা ফতে!

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: বিশ্ব
    English summary

    Navratri 2018: Chant These Mantras As Per Your Zodiac Sign To Get Goddess Durga's Blessings

    During Navaratri festival devotees are offering prayers to Goddess Durga and taking her blessings. The third day of Navaratri is associated with Maa Chandraghanta. During these nine days, a devotee should chant these mantras as per zodiac signs.
    Story first published: Friday, October 5, 2018, 13:05 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more