পকেট ভর্তি টাকার মালিক হতে চান? চাহলে বাড়িতে এই জিনিসগুলি রাখতে ভুলবেন না যেন!

Written By:
Subscribe to Boldsky

পেটে ক্ষিদে এবং খালি মানি ব্যাগের যন্ত্রণা যারা সয়নি, তারা কখনও টাকার অর্থ বুঝবেন না। তাই এই প্রবন্ধ তাদের জন্য লেখা, যারা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কঠিন পরিশ্রম করলেও নানা কারণে অনেক টাকার মালিক হয়ে উঠতে পারেন না। পারেন না টাকা ভর্তি ব্যাগের স্বপ্ন পূরণ করতে। এমন মানুষেরা যদি এই প্রবন্ধে আলোচিত নিয়মগুলি মেনে চলেন, তাহলে দেখবেন অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির স্বাদ পেতে সময় লাগবে না। সেই সঙ্গে জীবন ভরে উঠবে আনন্দে।

বাস্তু শাস্ত্রের উপর লেখা একাধিক বইয়ে এমনটা উল্লেখ পাওয়া যায় যে বাড়িতে যদি এই প্রবন্ধে আলোচিত জিনিসগুলি রাখা যায়, তাহলে গৃহস্থের অন্দরে উপস্থিত নেগেটিভ এনার্জির প্রকোপ যেমন কমে, তেমনি ধনদেবতা কুবের বেজায় প্রসন্ন হয়, ফলে মানিব্যাগ টাকায় ভরে উঠতে সময় লাগে না। এই কারণেই তো বাস্তু বিশেষজ্ঞরা এইসব জিনিলগুলি বাড়ির অন্দরে রাখার পরামর্শ দিয়ে থাকেন।

প্রসঙ্গত, চরম অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির সাক্ষী থাকতে যে যে নিয়মগুলি মেনে চলা জরুরি, সেগুলি হল...

১. হনুমানজির মূর্তি:

১. হনুমানজির মূর্তি:

এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে বাড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে পঞ্চমুখি হনুমানজির ছবি বা মূর্তি রাখলে অর্থনৈতিক সুখের সন্ধান মিলতে সময় লাগে না। প্রসঙ্গত, নিয়মিত হনুমানজির পুজো করলে টাকা-পয়সা সম্পর্কিত নানা বাঁধা দূর হয়। তাই বন্ধু, টাকা ভর্তি ব্যাগের স্বপ্ন পূরণ করতে যদি চান, তাহলে আজ থেকেই হনুমানজির পুজো করা শুরু করুন। দেখবেন সুফল পেতে সময় লাগবে না। এক্ষেত্রে মারুথির পুজো করার সময় যে মন্ত্রটি জপ করা জরুরি, সেটি হল.."ওম আম হ্রিম ক্লিম দিনানকাম্পি ধার্মাত্মা প্রিমাবধি রামভাল্লাভ অধইভাম মারুতে ভির মে ভশতেদেহি সাৎভরম র্লিম হ্রিম আম ওম...!" এই মন্ত্রটি ১০৮ বার পাঠ করলে দেখবেন পরিস্থিতির পরিবর্তন হবেই হবে।

২. দেবী লক্ষ্মী এবং কুবের দেবের ছবি রাখতে হবে:

২. দেবী লক্ষ্মী এবং কুবের দেবের ছবি রাখতে হবে:

এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে বাড়ির ঠাকুর ঘরে মা লক্ষ্মী এবং ধনদেবতা কুবেরের ছবি রাখলে এবং নিয়মিত তাদের পুজো করলে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির স্বাদ পেতে সময় লাগে না। শুধু তাই নয়, সারা জীবন টাকা-পয়সা সংক্রান্ত কোনও সমস্যা যাতে না আসে, তাও সুনিশ্তিক করে এই দেব এবং দেবী। তাই নিয়মিত এদের পুজো করতে ভুলবেন না যেন! এক্ষেত্রে মা লক্ষ্মীর পুজো করার সময় যে মন্ত্রটি জপ করতে হবে, সেটি হল-"ওম সর্ববাধা বিনিরমুক্ত, ধন ধান্যে সুতানভিতা। মনুষ্য মাৎপ্রাসাদেন ভবিষতি ন সানশায়াহ ওম!" আর কুবের দেবের পুজো করার সময় পাঠ করতে হবে "ওম শ্রিম ওম হ্রিম শ্রিম ওম হ্রিম শ্রিম ক্লিম ভিট্টেশোরায়াহা নমহ।"

৩. ভগবান বাস্তু:

৩. ভগবান বাস্তু:

বাস্তুশাস্ত্র মতে বাড়িতে ভগবান বাস্তুর ছবি বা মূর্তি রাখলে যে কোনও ধরনের বাস্তু দোষ মিটে যায়। সেই সঙ্গে বাড়ির অন্দরে উপস্থিত নেগেটিভ এনার্জির প্রকোপও কমতে শুরু করে। ফলে অর্থনৈতিক উন্নতির স্বাদ পেতে সময় লাগে না। এখানেই শেষ নয়, বাড়িতে ভগবান বাস্তুর ছবি রাখলে গৃহস্থের অন্দরের পরিবেশ শুদ্ধ হয়। ফলে খারাপ চিন্তা দূরে পালায়। মন ভরে ওঠে আনন্দে। ফলে শুধু যে টাকার ব্যাগ ভারি হয়, এমন নয়, সেই সঙ্গে সুখের পরশ লাগে জীবনে।

৪. মাটির কলসি:

৪. মাটির কলসি:

বাড়ির উত্তর দিকে মুখ করে জল ভর্তি মাটির কলসি রাখলে অর্থনৈতির সমৃদ্ধির পথ প্রশস্ত হয়। সেই সঙ্গে খরচের মাত্রা কমতে শুরু করে। ফলে সঞ্চয় বেড়ে যাওয়ার কারণে টাকা-পয়সা সংক্রান্ত সমস্যা কমতে সময় লাগে না। প্রসঙ্গত, এক্ষেত্রে একটি বিষয় মাথা রাখা উচিত। কী বিষয়? মাটির কলসিটি যেন কোনও সময় খালি না থাকে। যখনই খালি হবে, তখনই জল ভরে দেবেন। কারণ খালি কলসি অশুভ লক্ষণ হিসেবে গণ্য করা হয়ে থাকে।

৫. লোহার মাছ বা কচ্ছপ:

৫. লোহার মাছ বা কচ্ছপ:

অল্প সময়ে প্রচুর পরিমাণ টাকার মালিক হওয়া যায় কীভাব? বাস্তুশাস্ত্রের উপর লেখা একাধিক বই অনুসারে বাড়িতে লোহা বা যে কোনও ধাতু দিয়ে তৈরি মাছ বা কচ্ছপের মূর্তি রাখলে বড়লোক হয়ে ওঠার স্বপ্ন পূরণ হবেই হবে! এমনটা করলে আসলে গৃহস্থের অন্দরে জন্ম নেওয়া খারাপ শক্তির প্রভাব কমতে শুরু করে। ফলে আয় তো বাড়েই, সেই সঙ্গে সুখ-শান্তির সন্ধান পেতেও সময় লাগবে না। তাই সুখি, সমৃদ্ধময় জীবন পাওয়ার স্বপ্ন যদি দেখে থাকেন, তাহলে আজই একটি ধাতব কচ্ছপ বা মাছ কিনে আনতে ভুলবেন না যেন!

৬. পিরামিড:

৬. পিরামিড:

অল্প দিনেই অর্থনৈতিক সমৃদ্ধির স্বাদ পেতে বাড়িতে রূপো বা তামা দিয়ে তৈরি পিরামিড রাখুন। দেখবেন উপকার পাবেন। বাস্তু বিশেষজ্ঞদের মতে বাড়ির যে অংশে পরিবারের সদস্যরা বেশি সময় কাটান, সেখানে এই ধরনের পিরামিড রাখলে পরিবারের অন্দরে কলহ সৃষ্টি হওয়ার আশঙ্কা কমে। ফলে একদিকে যেমন সুখ এবং আনন্দের সন্ধান পাওয়া যায়, তেমনি অর্থনৈতিক উন্নতিও ঘটে চোখে পরার মতো।

৭. ঝাঁটা এবং জুতো:

৭. ঝাঁটা এবং জুতো:

বাস্তবিকই যদি বড়লোক হয়ে উঠতে চান, তাহলে সিঁড়িতে ভুলেও ঝাঁটা বা জুতো রাখবেন না। বাস্তুশাস্ত্র মতে এই নিয়মটি না মানলে বাড়িতে খারাপ শক্তির প্রকোপ বাড়তে তাকবে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই একের পর এক খারাপ ঘটনা ঘটার আশঙ্কা যাবে বেড়ে।

৮.গ্যাস স্টোভ:

৮.গ্যাস স্টোভ:

বাস্তুশাস্ত্র মতে বাড়ির উত্তর দিক থেকে প্রবেশ ঘটে ধনদেবতা কুবেরের। তাই এদিকে যদি গ্যাস স্টোভ রাখেন, তাহলে অর্থনৈতিক সমৃদ্ধি উল্টো পথ নেয়। ফলে হাজার চেষ্টা করলেও টাকার ব্যাগ খালিই থেকে যায়। তাই বড়লোক হওয়ার স্বপ্ন দেখলে এই ভুল কাজটা করবেন না যেন!

Read more about: বিশ্ব
English summary

পেটে ক্ষিদে এবং খালি মানি ব্যাগের যন্ত্রণা যারা সয়নি, তারা কখনও টাকার অর্থ বুঝবেন না। তাই এই প্রবন্ধ তাদের জন্য লেখা, যারা মাথার ঘাম পায়ে ফেলে কঠিন পরিশ্রম করলেও নানা কারণে অনেক টাকার মালিক হয়ে উঠতে পারেন না। পারেন না টাকা ভর্তি ব্যাগের স্বপ্ন পূরণ করতে।

Sometimes, everything seems to be going in our favour --- even then, we can't seem to have enough money --- and even if we do, it tends to finish up quickly. Financial crunch can be the result of bad Vastu in the house. Here's how to correct it.
Story first published: Friday, March 16, 2018, 12:55 [IST]