অবাঞ্ছিত অনুভব করছেন? কয়েকটি কথা মনে রাখা প্রয়োজন!

By: Tulika
Subscribe to Boldsky

সামান্য জিনিসে মন খারাপ এবং নিজেকে অবাঞ্চিত মনে করার এই প্রবণতা এড়াবার জন্য নিজেকে অনুপ্রেরণা জোগানোর খুব প্রয়োজন| এই প্রবন্ধে আলোচিত টিপসগুলির মাধ্যমে নিজেকে সর্বদা প্রফুল্ল রাখতে পারবেন আপনি।

জীবনের খারাপ-ভাল দিকগুলোর সঙ্গে সবাইকেই মুখোমুখি হতে হয়| মন ভারী করে এমন জিনিস নিয়ে ভাবতে থাকাটা মোটেও কাজের কতা নয়। এতে ভাল তো কিছু হয়ই না, বরং আমরা আরও বেশি দুর্বল হয়ে পরি| যখন আমাদের চারপাশের সবকিছু এগিয়ে যায়, আমরা তখন একই জায়গায় স্থিতু হয়ে থাকি, যা একেবারেই ভাল নয়।

এই প্রবন্ধে আমরা এমন কিছু পরামর্শ দিলাম, যা আপনি অনুসরণ করে দেখতে পারেন যখন আপনার জীবনে প্রেরণার অভাব বোধ করবেন| দেখবেন কত সহজেই আপনি আপনার সত্তা ফিরে পেয়ে আত্মবিশ্বাসী হয়ে উঠবেন|

অবাঞ্ছিত অনুভব করছেন

এমন একজন মানুষ নিশ্চই আছে যার আপনাকে ভাল লাগে:

যে সব জিনিস আপনার মন কে ভারাক্রান্ত করে তোলে, সে সব জিনিস নিয়ে একেবারেই ভাববেন না| বরং যাদেরসঙ্গ পেলে আপনি আনন্দ বোধ করেন, তাদের সাঙ্গে থাকাটাই গুরুত্বপূর্ণ, কে জানে হয়ত সেখানে এমন মানুষ আছে যার আপনার সব ক্রিয়াকলাপই চমৎকার লাগে|

অবাঞ্ছিত অনুভব করছেন

নিজেকে বিচার করার অধিকার অন্যদের দেবেন না!

আপনাকে বিচার করার অধিকার কারোর নেই, এটা মনে রাখবেন| এমনকি আপনার বাবা-মা এবং বন্ধুবান্ধবের নেই। যে সব লোকেরা আপনার খারাপ-ভাল দুটো দিক সম্বন্ধেই অবগত, তাদের ব্যাখ্যা দেওয়া নিষ্প্রয়োজন| আর যারা আপনাকে না চিনেই, ভাল করে না বুঝেই খারাপ-ভালর সিদ্ধান্ত নিয়ে নিচ্ছেন, তাদের আপনাকে বিচার করার কোনও অধিকার নেই|

অবাঞ্ছিত অনুভব করছেন

মানুষের মতামতে খুব বেশি গুরুত্ব দেবেন না

আপনি কতটা বাঞ্চনীয়, এই মতামতে অধিকাংশ মানুষই যথেষ্ট গুরুত্ব দেয় না। তাহলে তাদের মতামতেরও গুরুত্ব দেবার প্রয়োজন আপনার নেই|

অবাঞ্ছিত অনুভব করছেন

আপনি যা সমাজে যা হতে দেখেন, তা সব সত্যি নয়:

আমাদের আশেপাশে প্রতিনিয়ত যা ঘটছে তা সবই সত্যি বা নিখুঁত নয়। বহু মানুষ তাদের দুঃখের দিনগুলোর ছবি অন্যের সাঙ্গে ভাগ করেন না| তাই, এটা কখনোই মনে করবেন না যে পৃথিবী একটি নিখুঁত জায়গা যেখানে শুধু আপনিই অবাঞ্চিত|

অবাঞ্ছিত অনুভব করছেন

মানুষ নিজের ছন্দে চলে

সাফল্যের কোন বিশেষ বয়স বা সময় থাকে না। এটা অদৃষ্ট এবং কঠোর পরিশ্রমের ফল। এর অর্থ এই নয় যে, আপনার সহকর্মী এবং ভাইবোনেরা সাফল্যের শিখর স্পর্শ করে ফেলেছে মানে আপনি আর কখনোই সাফল্যের স্বাদ পাবেন না| ধৈর্য ধরলে নিশ্চই তার স্বাদ থেকে বঞ্চিত হবেন না আপনি|

সুতরাং, যখনই মনমরা এবং অবাঞ্চিত মনে হবে, তখন নিজেকে প্রফুল্ল রাখতে ইতিবাচক থাকার চেষ্টা করুন| কিভাবে আপনি নিজেকে আরও উৎপাদনশীল এবং নিজের দক্ষতার সঠিক ব্যবহার করতে পারবেন, সেদিকে বেশি করে মনোযোগ দিতে হবে|

নিচের মন্তব্য বিভাগে আপনার চিন্তা শেয়ার করুন।

Read more about: জীবন, পৃথিবী
English summary
There are many ups and downs that we face in our lives. Sticking onto the things that bring us down does no good and instead it makes us weak and feel unwanted, while the world and things around us progress, we become stagnant!
Story first published: Monday, April 3, 2017, 19:00 [IST]
Please Wait while comments are loading...