For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

বাড়ি ভাড়া নেওয়ার আগে কী কী বাস্তু নিয়মের দিকে নজর রাখাটা জরুরি জানা আছে?

|

বিশ্বাস করুন বা না করুন একথা মানতেই হবে যে আমাদের জীবনে ঘটে যাওয়া বা ঘটতে চলা প্রতিটি ঘটনার সঙ্গে বাস্তুর যোগ বেজায় নিবিড়। এই যেমন ধরুন, যে বাড়িতে রয়েছেন সেখানে যদি বাস্তু দোষ দেখা দেয়, তাহলে একদিকে যেমন টাকা-পয়সা সংক্রান্ত নানা ঝামেলা মাথা চাড়া দিয়ে ওঠে, তেমনি কর্মজীবন এবং পরিবারিক জীবনেও নানা বাঁধা আসতে শুরু করে। ফলে মানসিক শান্তি দূরে পালতে সময় লাগে না। শুধু তাই নয়, বাস্তু দোষ দেখা দিলে পরিবারে প্রতিটি সদস্যেরই হঠাৎ করে দুর্ঘটনায় আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও থাকে। তাই তো বলি বুন্ধ, নিজেকে এবং পরিবারের বাকিদের নিরাপদে এবং সুখে-শান্তিতে রাখতে যাতে বাস্তু দোষ দেখা না দেয় সেদিকে খেয়াল রাখাটা একান্ত প্রয়োজন। আর এই কারণেই বেশ কিছু বাস্তু নিয়ম মেনে চলাটা জরুরি, বিশেষত কোনও বাড়ি ভাড়া নেওয়ার আগে যে যে বাস্তু টিপসগুলির দিকে নজর দেওয়াটা মাস্ট, সেগুলি হল...

১. বাড়ির সদর দরজা:

১. বাড়ির সদর দরজা:

যখনই কোনও বাড়ি ভাড়া নেবেন, তখন প্রথমেই দেখে নেবেন সেই বাড়ির সদর দরজাটা কোন দিকে রয়েছে। যদি দেখেন মূল ফটক রয়েছে উত্তর-পূর্ব দিকে, তাহলে চোখ বন্ধ করে বাড়িটি ভাড়া নিয়ে নেবেন। কারণ এই বিশেষ দিকে সদর দরজা থাকাটা বেজায় শুভ। তবে উত্তর-পশ্চিম দিকে দরজা হলেও ক্ষতি নেই!

২. এমন বাড়ি ভাড়া নেওয়া চলবে না:

২. এমন বাড়ি ভাড়া নেওয়া চলবে না:

যে বাড়ির মুখ দক্ষিণ, দক্ষিণ-পূর্ব এবং দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে, সেই বাড়ি ভুলেও ভাড়া নেওয়া উচিত নয়। কারণ বাস্তুশাস্ত্রে এই দিকগুলিকে একেবারেই শুভ দিক হিসেবে গণ্য করা হয় নি। শুধু তাই নয়, এমন ধরনের বাড়িতে থাকতে শুরু করলে নানাবিধ বিপদ ঘটার আশঙ্কাও থাকে। তাই সাবধান বন্ধু সাবধান!

৩. রান্না ঘরের অবস্থান:

৩. রান্না ঘরের অবস্থান:

বাস্তুশাস্ত্রে রান্না ঘরের অবস্থানও বেজায় গুরুত্বপূর্ণ। কারণ বাড়ির কোন দিকে কিচেন বানানো হয়েছে, তার উপরও কিন্তু ভাড়াটিয়ার ভালো-মন্দ অনেকাংশে নির্ভর করে থাকে। তাই এখন প্রশ্ন হল, বাড়ির কোন অংশে রান্না ঘর বানানো উচিত? বিশেষজ্ঞদের মতে যে বাড়িতে রান্না ঘর দক্ষিণ-পূর্ব, নয়তো উত্তর-পশ্চিম দিকে রয়েছে, সে বাড়ি সব সময় ভাড়া হিসেবে নেওয়া উচিত। কারণ এমন জায়গায় রান্না ঘর থাকলে কোনও সময়ই বাস্তু দোষ দেখা দেওয়ার আশঙ্কা থাকে না বললেই চলে।

৪. শোয়ার ঘর:

৪. শোয়ার ঘর:

যদি চান বৈবাহিত জীবন আনন্দে কাটুক। সেই সঙ্গে পরিবারে ছোঁয়া লাগুক সুখ-সমৃদ্ধির, তাহলে এমন বাড়ি ভাড়া নেবেন, যেখানে শোয়ার ঘর দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে রয়েছে। প্রসঙ্গত, এক্ষেত্রে আরেকটি বিষয় মাথায় রাখাও একান্ত প্রয়োজন, তা হল বাস্তুশাস্ত্র মতে বাড়ির উত্তর-পূর্ব দিকে ভুলেও রান্না ঘর এবং টয়লেট বানানো উচিত নয়। এমনকি এই স্থানে জুতোও রাখা চলবে না। কারণ এমনটা করলে সারা বাড়িতে খারাপ শক্তির প্রভাব বাড়তে শুরু করে। আর এমনটা হলে কী কী ক্ষতি হতে পারে, তা নিশ্চয় আর বলে বোঝাতে হবে না!

৫. ব্যালকনি কোথায় আছে তাও দেখে নিতে হবে:

৫. ব্যালকনি কোথায় আছে তাও দেখে নিতে হবে:

বিশেষজ্ঞদের মতে এমন বাড়ি ভুলেও ভাড়া নেওয়া উচিত নয়, যে বাড়ির দক্ষিণ-পশ্চিম দিকে ব্যালকনি রয়েছে। কারণ এদিকে ব্যালকনি থাকলে বাস্তু দোষ দেখা দেয়। ফলে নানাবিধ ক্ষতি হওয়ার আশঙ্কা যায় বেড়ে।

৬. সিঁড়ির অবস্থান:

৬. সিঁড়ির অবস্থান:

যদি দুতলা বাড়ি ভাড়া নেন, তাহলে সিঁড়ির দিকেও নজর রাখতে হবে। কারণ এমনটা বিশ্বাস করা হয় যে বাড়ির উত্তর-পূর্ব দিকে সিঁড়ি থাকা একেবারেই উচিত নয়। করণ এমনটা করলে গৃহস্থের অন্দরে নেগেটিভ শক্তির মাত্রা বাড়তে শুরু করে। ফলে নানাবিধ বিপদ ঘটার আশঙ্কা থাকে।

৭. পুজোর ঘর:

৭. পুজোর ঘর:

বাড়ির কোন অংশে পুজোর ঘর বানানো হয়েছে, তা কিন্তু বেজায় গুরুত্বপূর্ণ। কারণ ঠিক জায়গায় ঠাকুরের আসন না পাতলে কিন্তু বিপদ! তাই বাড়ি ভাড়া নেওয়ার আগে দেখে নেবেন ঠাকুর ঘর উত্তর-পূর্ব দিকে বানানো হয়েছে কিনা। কারণ ঠাকুরের আসন পাতার জন্য এই অংশটি বেজায় শুভ। তবে এক্ষেত্রে আরেকটি জিনিসও মাথায় রাখতে পারেন। তা হল যদি কোনও বাড়ি পছন্দ হয়ে যায়, আর দেখেন উত্তর-পূর্ব দিকে ঠাকুর ঘর নেই, তাহলে পিছিয়ে যাবেন না যেন! বরং গৃহ প্রবেশের দিন থেকেই উত্তর-পূর্ব দিকে সাময়িক ভাবে আসন পেতে ঠাকুর পুজো করা শুরু করতেই পারেন। আর ঠাকুর ঘরকে কাজে লাগাতে পারেন অন্য কাজে!

৮. দরজার ধরণ:

৮. দরজার ধরণ:

বাস্তুশাস্ত্র মতে বাড়ির প্রতিটি দরজা যেন ঘরের ভিতরের দিকে খোলে। কারণ এমনটা হলে গৃহস্থে পজেটিভ শক্তির মাত্রা বৃদ্ধি পেতে শুরু করে। ফলে নানাবিধ উপকার মিলতে সময় লাগে না। প্রসঙ্গত, যদি দেখেন কোনও বাড়ির কোনও একটা ঘরের দরজা বাইরের দিকে খুলছে, তাহলে ভুলেও সেই বাড়িটা ভাড়া নেবেন না যেন! প্রসঙ্গত, এক্ষেত্রে আরেকটি জিনিসও খেয়াল রাখতে হবে, তা হল দরজা খোলার সময় যেন ক্যাঁচ করে শব্দ না হয়। কারণ এমনটা হওয়া একেবারেই উচিত নয়।

Read more about: বিশ্ব
English summary

Check these Vastu Shastra norms, before moving into a rental home

Vastu Shastra compliance, is nowadays an important factor that influences the decision of home buyers and tenants, alike. One of the main difficulties of living in a rented flat or apartment, is that you cannot make a lot of changes in the flat, without taking the prior approval of the owner. If a house is made by keeping Vastu principles in mind, then, the people living in such flats will not face any difficulties.
Story first published: Tuesday, December 18, 2018, 12:56 [IST]
X