নিম পাতা আর গুড় এক সঙ্গে খেলে কী হয় জানা আছে?

Subscribe to Boldsky

জীবনে যেমন আনন্দ আছে, তেমনি রোগের কষ্টও আছে। এই কষ্টকে কি কোনও ভাবেই আনন্দে রূপান্তরিত করা সম্ভব নয়? আলবাত সম্ভব! চাই শুধু দুটি জিনিস। কী সেগুলি? সে সম্পর্কে জানতে গেলে যে পড়তে হবে এই প্রবন্ধটি।

রোগ নানা করণে শরীরে বাসা বাঁধে। কোনও সময় রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা দুর্বল হয়ে গেলে আমরা অসুস্থ হয়ে পরি, তো কখনও ভাইরাস বা ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণ এক্ষেত্রে দায়ী থাকে। কিছু সময় তো আমাদের অস্বাস্থ্যকর জীবনযাত্রার কারণেও নানাবিধ জটিল রোগ শরীরে বাসা বাঁধতে শুরু করে। তাই তো সুস্থ থাকতে প্রথমে জীবনযাত্রার দিকে খেয়াল করতে হবে। অর্থাৎ কোনও ধরনের নেশা করা চলবে না। সেই সঙ্গে ডেয়েটের দিকেও নজর দিতে হবে। অপরদিকে ভাইরাস এবং ব্যাকটেরিয়ার সংক্রমণের হাত থেকে বাঁচতে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন থাকতে হবে। আর রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটবে কী করে? নানা ভাবে এই কাজটি করা যেতে পারে। তবে এই প্রবন্ধে যে ঘরোয়া ওষুধটি সম্পর্কে আলোচনা করা হয়েছে, তা নিয়মিত খেলে রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি তো ঘটবেই, সেই সঙ্গে নানাবিধ ছোট-বড় রোগের প্রকোপও কমবে। তাই তো আপনাদের কাছে অনুরোধ, আজ থেকেই এই ঘরোয়া ঔষধিটি খেতে শুরু করে দিন। তাহলেই দেখবেন আয়ু বাড়ার সঙ্গে সঙ্গে রোগ-ভোগও দূরে থাকবে।

এই ঘরোয়া ওষুধটি কী কী উপাদানের মিশ্রনে বানাতে হবে। এক্ষেত্রে প্রয়োজন পরবে গুড় এবং নিম পাতার। এই দুটি উপদান সমপরিমাণে নিয়ে এক সঙ্গে মেখে নিন। প্রসঙ্গত, প্রতিদিন এই মিশ্রনটি খেলে নানাভাবে উপকার পাবেন। যেমন...

১. শরীর থেকে বিষ বার করে দেবে:

১. শরীর থেকে বিষ বার করে দেবে:

শরীরে মজুত নানা ধরনের বিষাক্ত উপাদানকে বের করে ফলতে এই ঘরোয়া ঔষধিটির কোনও বিকল্প নেই বললেই চলে। কারণ নিম পাতায় রয়েছে প্রচুর মাত্রায় উপকারি এনজাইম, যা শরীরে উপস্থিত ক্ষতিকর টক্সিনদের নিমেষে বের করে দেয়। ফলে কোনও রোগ হওয়ার সুযোগই পায় না।

২. স্টমাকে উপস্থিত ক্ষতিকর পোকাদের মেরে ফেলে:

২. স্টমাকে উপস্থিত ক্ষতিকর পোকাদের মেরে ফেলে:

নিম পাতায় উপস্থিত নানাবিধ উপকারি এনজাইম পাকস্থলিতে ঘর বেঁধে থাকা অগুনতি ক্ষতিকর মাইক্রোঅর্গানিজমদের মেরে ফেলে। ফলে হজম সংক্রান্ত নানা রকমের রোগ হওয়ার আশঙ্কা কমে।

৩. ওজন হ্রাসে সাহায্য করে:

৩. ওজন হ্রাসে সাহায্য করে:

যারা ওজন কমাতে বদ্ধপরিকর, তারা প্রতিদিন নিমপাতা এবং গুড়ের এই মিশ্রনটি খাওয়া শুরু করুন। কারণ এই ওষুধটি হজম ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়। সেই সঙ্গে শরীরের ফ্যাট বার্ন করার ক্ষমতাও বাড়িয়ে দেয়। ফলে দ্রুত চর্বি গলে গিয়ে ওজন কমতে শুরু করে।

৪. আলসার হওয়ার আশঙ্কা কমায়:

৪. আলসার হওয়ার আশঙ্কা কমায়:

এই ওষুধটিতে রয়েছে "গ্য়াস্ট্রোপ্রটেকটিভ এলিমেন্ট" যা স্টমাক আলসার হওয়ার সম্ভবনাকে একেবারে কমিয়ে দেয়। প্রসঙ্গত, স্টমাক আলসারের আক্রান্ত রোগীরাও এই ওষুধটি কেতে পারেন। উপকার পাবেন।

৫. নানাবিধ স্কিনের রোগ হওয়ার আশঙ্কা কমায়:

৫. নানাবিধ স্কিনের রোগ হওয়ার আশঙ্কা কমায়:

নিম এবং গুড়ে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট প্রপাটিজ, যা অতি বেগুনি রশ্নির হাত থেকে স্কিনকে যেমন রক্ষা করে, তেমনি নানাবিধ রোগের প্রকোপ কমিয়ে ত্বককে উজ্জ্বল এবং প্রাণবন্ত করে তুলতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৬. ক্ষত সারিয়ে তোলে:

৬. ক্ষত সারিয়ে তোলে:

প্রচুর মাত্রায় অ্যান্টি-ইনফ্লেমেটরি প্রপাটিজ থাকার কারণে যে কোনও ধরনের ক্ষতকে দ্রুত সারিয়ে তুলতে এই ওষুধটি দারুন কাজে আসে।

৭. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়:

৭. রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতার উন্নতি ঘটায়:

নিম এবং গুড়, দুটোতেই রয়েছে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট প্রপাটিজ, যা রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতাকে শক্তিশালী করে তোলে। ফলে কোনও রোগই ধারে কাছে ঘেঁষতে পারে না।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    Read more about: নিম
    English summary

    নিম পাতা আর গুড় এক সঙ্গে খেলে কী হয় জানা আছে?

    As we know the festival of Ugadi signifies the beginning of a new year and is celebrated with glory, in most parts of India, especially the south. Each festival in India has a special meaning and certain dishes are prepared accordingly.
    Story first published: Thursday, March 30, 2017, 14:47 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more