গায়ের দুর্গন্ধ দূর করতে কাজে লাগাতে পারেন লেবুকে!

Written By:
Subscribe to Boldsky

একটি বহুজাতিক কোম্পানির বডি স্প্রের বিজ্ঞাপন নিশ্চয় দেখেছেন। তাতে একজন মধ্যে বয়সি পুরুষ বেঞ্চে বসে আছেন। বেশ সুপুরষ তিনি। কিন্তু তার পাশে মায়ের কোলে খলতে থাকা একটা বাচ্চা হটাৎই কেঁদে উঠল। আসলে সেই সুপুরষের শরীর থেকে এতটাই বাজে গন্ধ বেরচ্ছিল যে বাচ্চাটা কষ্টে কেঁদে ফেলেছিল। এমন পরস্থিতির শিকার কি আপনাকেও হতে হয়েছে? তাহলে এই প্রবন্ধটি আপনার জন্যই লেখা।

এই লেখায় এমন একটি প্রাকৃতিক উপাদান সম্পর্কে আলোচনা করা হল, যা গায়ের দুর্গন্ধ দূর করতে দারুন কাজে আসে। তাই তো লিটার লিটার ডিয়ো ব্যবহারের পরেও যারা সুফল পাচ্ছেন না, তাদের একবার চোখ রাখতেই হবে বাকি প্রবন্ধে।

গা থেকে দুর্গন্ধ বেরয় কেন? অনেক কারণে এমনটা হতে পারে। তবে বেশিরভাগ ক্ষেত্রেই বিশেষ কিছু ব্যাকটেরিয়া এক্ষেত্রে দায়ি থাকে। যত ঘাম হতে থাকে, তত ব্যাকটেরিয়াদের সংখ্যা বাড়তে থাকে। সেই সঙ্গে বাড়তে থাকে দুর্গন্ধও। একাধিক কেস স্টাডি করে দেখা গেছে যারা নিয়মিত স্নান করেন না, তাদেরই সাধারণত এমন ধরনের সমস্যা হয়ে থাকে। সেই সঙ্গে আরও কিছু কারণে ব্যাকটেরিয়াদের প্রকোপ বাড়তে পারে। যেমন ধরুন যারা বিশেষ ধরনের গ্যাস্ট্রোএন্টোরলিজকাল ডিজিজ এবং পুষ্টির ঘাটতিতে ভুগছেন তাদেরও শরীর থেকে বাজে গন্ধ বেরতে পারে। তবে কারণ যাই হোক না কেন, আর চিন্তা নেই! দুর্গন্ধকে-সুগন্ধে রূপান্তরিত করতে আজই বাজার থেকে কয়েকটা লেবু কিনে আনুন। দেখবেন নিমেষে দুর্গন্ধ কমে যাবে। কীভাবে?

লেবুর রস আছে তো!

লেবুর রস আছে তো!

১. একটা লেবু নিয়ে দু-টুকরো করে নিন।

২. এবার লেবুর টুকরো দুটি থেকে রস সংগ্রহ করে একটা ছোট বাটিতে রাখুন।

৩. তুলো নিয়ে লেবুর রসে চুবিয়ে বগলে লাগাতে হবে।

৪. যখন দেখবেন লেবুর রসটা শুকিয়ে গেছে, তখন স্নান করে নেবেন।

৫. প্রতিদিন একবার করে এমনটা করলেই দেখবেন দুর্গন্ধ আর আপনাকে অস্বস্তিতে ফেলবে না।

লেবুর সঙ্গে নুন:

লেবুর সঙ্গে নুন:

১. একটা লেবু নিয়ে দু-টুকরো করে নিন।

২. অল্প নুন নিয়ে লেবুর টুকরো দুটির উপর ছড়িয়ে নিন।

৩. এবার বগলে ভাল করে লেবুর টুকরাটা ঘষে নিন।

৪. খেয়াল রাখবেন কম করে ৫ মিনিট লেবুটা ঘোষতে হবে।

৫. যখন দেখবেন রসটা শুকিয়ে গেছে তখন স্নান করে নেবেন।

লেবু এবং টমাটোর জুস:

লেবু এবং টমাটোর জুস:

১. ২ চামচ লেবুর রস সংগ্রহ করে নিন।

২. ১ টা টমাটোকে চটকে নিয়ে রসটা একটা বাটিতে নিয়ে নিন। এবার লেবুর রসের সঙ্গে টমাটোর রসটা ভাল করে মিশিয়ে নিন।

৩. মিশ্রনটি তৈরি হয়ে গেলে কম করে ১০ মিনিট একটা তুলোর সাহায্যে রসটা শরীরে যেখানে যেখানে বেশি ঘাম হয়, সেখানে সেখানে লাগান।

৪. কিছু সময় অপেক্ষা করে স্নান করে নিন।

৫. প্রতিদিন কম করে একবার এইভাবে এই ঘরোয়া পদ্ধতিটিকে কাজে লাগাতে হবে। তবেই উপকার পাবেন।

লেবু এবং বেকিং সোডা:

লেবু এবং বেকিং সোডা:

১. প্রয়োজন পরবে ২ চামচ লেবুর রস এবং ২ চামচ বেকিং সোডার।

২. দুটি উপাদান একটা বাটিতে নিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন। সঙ্গে ১ চামচ জল মেশান।

৩. মিশ্রনটি তৈরি হয়ে গেলে আন্ডার আর্মে ভাল করে লাগিয়ে কিছু সময় রেখে ধুয়ে ফেলুন। তবে খেয়াল রাখবেন মিশ্রনটি শুকনোর আগে ধোবেন না যেন! তাহলে কোনও কাজ হবে না।

৪. দিনে কম করে একবার অন্তত মিশ্রনটিকে কাজে লাগাতে হবে।

লেবু এবং অ্যাপল সিডার ভিনিগার:

লেবু এবং অ্যাপল সিডার ভিনিগার:

১. ২ চামচ লেবুর রসের সঙ্গে ২ চামচ অ্যাপল সিডার ভিনিগার মিশিয়ে ফেলুন।

২. একটা বাটিতে উপাদান দুটি ভাল করে মিশিয়ে নিন। এই সময় এক চামচ জল মেশাতে ভুলবেন না।

৩. এবার মিশ্রনটি আন্ডার আর্মে লাগিয়ে কম করে ৫-১০ মিনিট রেখে দিন। সময় হয়ে গেলে ধুয়ে ফেলুন।

English summary
why does one have that bad body odour? It is basically caused due to the bacteria. When the sweat fails to get evaporated, it causes bacterial growth. This in turn gives rise to an unpleasant body odour.
Story first published: Monday, July 17, 2017, 12:49 [IST]
Please Wait while comments are loading...