টমাটো খেলে কি সত্যিই ব্লাড প্রেসার কমে?

Subscribe to Boldsky

অজান্তেই আমাদের আশপাশটা কেমন বদলে যাচ্ছে। যত দিন যাচ্ছে তত আমরা স্ট্রেস, টেনশান এবং অ্যাংজাইটির চক্রব্যূহে এমন আটকে যাচ্ছি যে জীবনের দৈর্ঘ যাচ্ছে কমে। আসলে এই তিনটি ফ্যাক্টরের সঙ্গেই একাধিক মারণ রোগের গভীর সম্পর্ক রয়েছে। ফলে একবার যদি স্ট্রেসকে সঙ্গী বানান, তাহলে আপনা থেকেই উচ্চ রক্তচাপ, ডায়াবেটিস এবং হার্টের রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা বৃদ্ধি পায়। আর ইয়ং জেনারেশন স্ট্রেসের থেকে দূরে থাকবে, তা কী করে হতে পারে বলুন! তাই সাবধান!

ইন্ডিয়ান মেডিকেল অ্যাসোসিয়েশন এবং আই সি এম আর-এর প্রকাশ করা রিপোর্ট ঘাঁটলেই জানতে পারবেন গত এক দশকে কী হারে আমাদের দেশে উচ্চ রক্তচাপে আক্রান্ত রোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি পয়েছে। আর এখন তো পরিস্থিতি প্রায় হাতের বাইরেই চলে গেছে। পরিসংখ্যান বলছে বর্তমানে প্রতি তিন জনের মধ্যে এক জন হাইপারটেনশনের শিকার। এখানেই শেষ নয়। এই সংখ্যাটা ক্রমাগত বাড়ছে। প্রসঙ্গত, ২০১২ সালে ওয়ার্ল্ড হেল্থ স্ট্যাটিসটিকস অনুসারে ভারতের মোট জনসংখ্যার প্রায় ২৩.১০ শতাংশ পুরুষ এবং ২২.৬০ শতাংশ মহিলা এই রোগের শিকার। এবং এদের বেশিরভাগের বয়স ৩০ এর নিচে।

তাহলে...

তাহলে...

চিকিৎসক মহলের মতে এইভাবে চলতে থাকলে ২০২০ সালের মধ্যে সারা ভারতবর্ষ, বাংলাদেশ এবং সমগ্র দক্ষিণ এশিয়া রিজিয়ানে হাইপারটেনশম প্রায় মহামারীর আকার নেবে। আর এই রোগে সবথেকে বেশি আক্রান্ত হবে শহরের মানুষেরা। তাই তো এমন পরিস্থিত আসার আগে প্রয়োজনীয় ব্য়বস্থা নেওয়াই বুদ্ধিমানের কাজ হবে বলে মনে হয়, তাই না!

সেক্ষেত্রে উপায়!

সেক্ষেত্রে উপায়!

একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখার পাশাপাশি এমন রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমাতে টমাটো দারুন উপকারে লাগে। একেবারে ঠিক শুনেছেন। এই সবজিটি যদি নিয়মিত খাওয়া যায় তাহলে হাইপারটেশন নিয়ে আর কোনও চিন্তাই থাকে না। তাই সুস্থ জীবন পেতে আজ থেকেই কাঁচা অথবা রান্না করা অবস্থায় টমাটো খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন উপকার পাবেন।

কীভাবে টমাটো উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখে?

কীভাবে টমাটো উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখে?

আসলে এই সবজিটিতে রয়েছে প্রচুর মাত্রায় লাইকোপেন এবং বিটা ক্যারোটিন নামে বিশেষ কিছু উপাদান, যা শরীরে উপস্থিত ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানদের যেমন বের করে দেয়, তেমনি স্ট্রেস লেভেলও দ্রুত কমিয়ে দেয়। ফলে স্বাভাবিকভাবেই রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে চলে আসে। এখানেই শেষ নয়, টমাটোতে উপস্থিত ভিটামিন ই, অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট এবং পটাশিয়ামও রক্তচাপকে দূরে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। এবার বুঝতে পারছেন তো এই ধরনের রোগের বিরুদ্ধে যদি লড়াই করতে হয়, তাহলে টমাটোকে সঙ্গে রাখাটা কতটা জরুরি!

আরও বেশ কিছু উপকারিতা:

আরও বেশ কিছু উপকারিতা:

টমাটো যে কেবল উচ্চ রক্তচাপের চিকিৎসাতেই কাজে লাগে। এমন নয় কিন্তু! নিয়মিত যদি এই সবজিটি খেতে পারেন তাহলে আরও একাধিক রোগ দূরে থাকে। যেমন...

১. ক্যান্সার রোগকে দূরে রাখে:

টমাটোতে উপস্থিত অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট এবং ভিটামিন সি শরীরে ক্যান্সার সেলের জন্ম আটকাতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। ফলে প্রতিদিন যদি ১-২ টো করে টমাটো খাওয়া যায় তাহলে এই মারণ রোগ নিয়ে আর চিন্তার থাকতে হবে না, এমনটাই দাবি চিকিৎসকদের। বিশেষত প্রস্টেট এবং কলোরেকটাল ক্যান্সারকে দূর রাখতে টমাটোর কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে।

২. হার্টের স্বাস্থ্যের উন্নতি ঘটে:

ফাইবার, পটাশিয়াম, ভিটামিন সি এবং কোলিন হার্টের কর্মক্ষমতা বাড়াতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। আর এই সবকটি উপাদানই প্রচুর মাত্রায় রয়েছে টমাটোতে। তাই হার্টকে যদি দীর্ঘদিন সুস্থ রাখতে চান, তো রোজের ডায়েটে এই সবজি রাখা মাস্ট!

৩. ডায়াবেটিস:

রক্তে শর্করার মাত্রাকে নিয়ন্ত্রণে রেখে টাইপ ১ এবং টাইপ ২ ডায়াবেটিসকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে টমাটোর কোনও বিকল্প হয় না বললেই চলে। আসলে এতে উপস্থিত ফাইবার এক্ষেত্রে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

৫. কনস্টিপেশন:

প্রতিদিন সকালে প্রকৃতির ডাক মানেই জ্বালা-যন্ত্রণা-কষ্ট? তাহলে তো আপনাকে টমাটা খেতেই হবে। কারণ এতে উপস্থিত ফাইবার কনস্টিপেশনের সমস্যা দূর করতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। সেই সঙ্গে হজম ক্ষমতার উন্নতিতে এবং আরও নানা ধরনের পেটের রোগের উপশমেও বিশেষ ভূমিকা নেয়।

৬. দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটে:

টমাটোয় উপস্থিত লাইকোপেন, লুটেন এবং বিটা-ক্যারোটিন দৃষ্টিশক্তির উন্নতি ঘটানোর পাশাপাশি ছানির মতো রোগকে দূরে রাখতেও বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    English summary

    একাধিক গবেষণায় দেখা গেছে উচ্চ রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখার পাশাপাশি এমন রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কা কমাতে টমাটো দারুন উপকারে লাগে।

    Tomatoes are rich in carotenoids such as lycopene and beta-carotene, which are powerful antioxidants. Increasing the intake of tomatoes in diet can help you to be inactive the free radicals and flush the harmful toxins from the body. This not only slows down the progression of atherosclerosis but also lowers oxidative stress and aids in managing your blood pressure. It also contains vitamin E, which is also an antioxidant and potassium, a mineral that plays a key role in maintaining the fluid-electrolyte balance in the body and keep your blood pressure in control.
    Story first published: Saturday, July 8, 2017, 12:04 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more