আদা এবং মধু একসঙ্গে খাওয়া উচিত কি?

By: Swaity Das
Subscribe to Boldsky

আমরা প্রতিদিনই কোনও না কোনও শারীরিক সমস্যার সম্মুখিন হই। যার মধ্যে কিছু নিতান্তই সাধারণ রোগ হলেও, আমাদের মধ্যে অনেকেই আছেন যারা আপত সাধারণ এইসব রোগগুলির কারণেই ভবিষ্যতে নানা শারীরিক সমস্যার সামনাসামনি হন। তবে এই ধরণের ছোট খাটো সমস্যা থেকে শুরু করে বড় বড় রোগকে সমূলে উৎপাটন করতে পারে একমাত্র প্রাকৃতিক কিছু উপাদান। যেমন- আদা এবং মধু কথার ধরুন না।

আদা এবং মধু একসঙ্গে খেলে রক্ত সঞ্চালনজনিত সমস্যা দূর হয়, রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তোলে, শ্বাসকষ্টের সমস্যা দূর করে এবং ক্যান্সারের মতো রোগকে দূরে রাখে। আসলে আদা এবং মধুর মধ্যে আলাদাভাবে হাজারো ভেষজ গুণ রয়েছে। ফলে এই দুইয়ের মিশ্রণ আমাদের শরীর সুস্থ এবং শক্তিশালী করে তোলে।

আদা এবং মধু খাওয়ার সবথেকে ভাল উপায় হল, এক চা চামচ আদার রস এবং এক চামচ মধু মিশিয়ে তারপর খাওয়া। এমনকি, এই মিশ্রণের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে প্রদাহজনিত সমস্যা নিবারণকারী উপাদানও রয়েছে। তাই তো এই দুই প্রকৃতিক উপাদানের যুগলবন্দী আমাদের নানা উপকারে লাগে। যেমন...

১. শ্বাসকষ্ট সারাতে সাহায্য করে:

১. শ্বাসকষ্ট সারাতে সাহায্য করে:

মধুর সঙ্গে নিয়ম করে আদা এবং গোলমরিচ মিশিয়ে খেলে শ্বাসকষ্ট দূর হয়ে যায়। এই মিশ্রণ নিয়মিত খেলে প্রহাদজনিত সমস্যা এবং দুশ্চিন্তা যেমন দূর হয়, তেমনই ফুসফুসে বেশি পরিমাণে অক্সিজেন পৌছাতে পারে। ফলে লাং-এর কর্মক্ষমতা বৃদ্ধি পায়।

২. শ্বাস প্রশ্বাস পদ্ধতিতে উন্নতি ঘটায়:

২. শ্বাস প্রশ্বাস পদ্ধতিতে উন্নতি ঘটায়:

সর্দি, কাশি হলে বা বুকে সর্দি বসে অনেক সময় শ্বাস নিতে সমস্যা হয়। আবার অনেক সময় সর্দি লেগে নাক দিয়ে জল পড়তেই থাকে। এই সময়ও শ্বাস নেওয়া মুশকিল হয়ে দাঁড়ায়। এই রকম সমস্যায় মধুর সঙ্গে আদা মিশিয়ে খেলে দ্রুত কষ্ট থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

৩.বমি হওয়ার সম্ভাবনা দূর করে:

৩.বমি হওয়ার সম্ভাবনা দূর করে:

মধুর সঙ্গে আদা মিশিয়ে খেলে গা বমিভাব বা বমি হওয়া বন্ধ হয়ে যায়। এছাড়াও, ক্যান্সারে আক্রান্ত রোগীরা কেমোথেরাপির পর অনেকেই বমি করেন। তাঁদের জন্যও এই ঘরোয়া পদ্ধতি খুবই কার্যকরী ভূমিকা নেয়।

৪.ক্যান্সার রোধ করে:

৪.ক্যান্সার রোধ করে:

মধুর সঙ্গে আদা মিশিয়ে খেলে তা ক্যান্সার রোধ করতে পারে। কারণ এই দুই উপাদানের মধ্যেই রয়েছে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা শরীরে উপস্থিত ক্ষতিকর টক্সিক উপাদানদের বের করে দিয়ে ক্যান্সার সেলের জন্ম নেওয়ার আশঙ্কা কমায়।

৫.হজমে সাহায্য করে:

৫.হজমে সাহায্য করে:

আদা খাবার খুব সহজেই হজম করাতে পারে। তাই তো নিয়মিত আদার সঙ্গে মধু মিশিয়ে খেলে হজম সংক্রান্ত নানা সমস্যা দূর হয়। সেই সঙ্গে পেট সংক্রান্ত অন্যান্য রোগে আক্রান্ত হওয়ার আশঙ্কাও কমে।

৬.হার্ট ভাল রাখতে সাহায্য করে:

৬.হার্ট ভাল রাখতে সাহায্য করে:

ধমনীর চাপ দূর করে আমাদের হৃদ যত্নের কর্মক্ষমতা বাড়াতে দারুণভাবে কাজে আসে আদা এবং মধু। শুধু তাই নয়, রক্ত চাপ স্বাভাবিক রাখতে এবং রক্তনালীর সমস্যা দূর করতে এবং হার্ট অ্যাটাক বা স্ট্রোকের সম্ভাবনা কমাতেও এই দুই প্রকৃতিক উপাদানের কোনও বিকল্প নেই।

৭.ঋতুস্রাবের ব্যাথা দূর করে:

৭.ঋতুস্রাবের ব্যাথা দূর করে:

ঋতুস্রাবকালীন ব্যাথা নারীদের কাছে খুবই স্বাভাবিক ঘটনা। যদিও এই ধরণের ব্যাথা বেজায় কষ্টকর। তাই তো এমন কষ্টকে চিরতরে নির্মূল করতে আদা এবং মধুর মিশ্রণ খাওয়া জরুরি।

৮.মাইগ্রেনের সমস্যা কমাতে দারুণ কাজে দেয়:

৮.মাইগ্রেনের সমস্যা কমাতে দারুণ কাজে দেয়:

মাথা যন্ত্রণা বা মাইগ্রেনের সমস্যায় কি কাবু আপনি? হাজারো ওষুধ খেয়েও কিছুতেই আরাম পাচ্ছেন না? তাহলে নানারকম ওষুধ না ব্যবহার করে আদা এবং মধুর মিশ্রন খাওয়া শুরু করুন না। কারণ এই ঘৎোয়া টোটকাটি মাইগ্রেনের সমস্যাকে চিরতরে বিদায় দিতে বেজায় সাহায্য করে।

৯.স্ট্রোক হওয়ার আশঙ্কা কমায়:

৯.স্ট্রোক হওয়ার আশঙ্কা কমায়:

রক্ত জমাট বেঁধে যাওয়ার কারণে স্ট্রোক হওয়ার আশঙ্কা বাড়ে। আর এক্ষেত্রে জীবনহানির সম্ভাবনাও থাকে। তাই সাবধান হাওয়াটা জরুরি। আর কিভাবে হবেন সাবধান? খুব সহজ! নিয়মিত আদা এবং মধু খাওয়া শুরু করুন। কারণ এই দুটি উপাদান রক্ত জমাট বাঁধতে দেয় না। ফলে স্বাভাবিকভাবেই স্ট্রোকের আশঙ্কা দূর হয়।

১০.রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে:

১০.রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়ে:

আদা এবং মধুর মিশ্রণ আমাদের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়িয়ে তুলতে সাহায্য করে। কারণ এই মিশ্রন শ্বেতরক্ত কণিকার সংখ্যা বাড়িয়ে তোলে। ফলে স্বাভাবিকভাবেই দেহের অন্দরের শক্তি বৃদ্ধি পায়।

Read more about: honey, benefits, মধু
English summary
Natural herbs are definitely the most effective ways to heal and treat many common diseases. The health benefits of honey and ginger for treating respiratory problems are unmatched by any other concoction.
Story first published: Wednesday, October 25, 2017, 18:04 [IST]
Please Wait while comments are loading...