For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

জ্বর হলেই আতঙ্কে ভুগছেন? কোভিডের সময় ভাইরাল ফিভার হলে কী করা উচিত দেখুন

|

গ্রীষ্মের বেজায় গরম, তার ওপরে আসতে চলেছে বর্ষাকাল। আবহাওয়ার এই পরিবর্তনে দেখা দেবে ইনফ্লুয়েঞ্জার প্রাদুর্ভাব। সর্দি, কাশি, গলাব্যথা নিত্যদিনের সঙ্গী হয়ে উঠবে অনেকেরই। কিন্তু এই করোনা ভাইরাসের সময় ইনফ্লুয়েঞ্জা জ্বর, সর্দি, কাশিকে অনেকেই গুলিয়ে ফেলছেন Covid-19 এর সঙ্গে। যার ফলে বহু মানুষ ভুগছেন আতঙ্কে। কারণ, সাধারণ ফ্লু- এর সঙ্গে যে এবছর যুক্ত হয়েছে করোনার বাড়তি ভয়।

বিশেষজ্ঞদের মতে, আবহাওয়া পরিবর্তনের সময়ই দেখা দেয় এই ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস। প্রতিবছরের মতো এবছরও সেই নিয়মের ব্যতিক্রম হয়তো হবে না, অনেকেই আক্রান্ত হবেন ইনফ্লুয়েঞ্জায়। তবে ভয়ের কিছু নেই। এই সাধারণ জ্বর দুই থেকে তিনদিনের মধ্যেই সেরে উঠবে। খুব বেশি হলে চার থেকে পাঁচ দিন সময় লাগে। আর এই জ্বরের ফলে হওয়া শারীরিক দুর্বলতাও সেরে উঠবে কয়েকদিনের মধ্যে। কিন্তু ৪-৫ দিন পর যদি এই জ্বর, সর্দি, কাশি না কমে বা উপসর্গগুলি বাড়তে শুরু করে তবে চিকিৎসকের পরামর্শ নিন এবং কোভিডের পরীক্ষা করান।

কোভিড-১৯ : রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা বাড়াতে হোমিওপ্যাথির কামাল! জেনে নিন ঔষুধের নাম ও ডোজ

আতঙ্কিত না হয়ে নিম্নোক্ত উপসর্গ থেকেই বুঝতে পারবেন আপনি ইনফ্লুয়েঞ্জা ভাইরাস দ্বারা আক্রান্ত কিনা। আমাদের এই আর্টিকেল থেকে জেনে নিন ইনফ্লুয়েঞ্জার সম্পর্কে বিস্তারিত।

ইনফ্লুয়েঞ্জার উপসর্গ

ইনফ্লুয়েঞ্জার উপসর্গ

১) এই ভাইরাসে আক্রান্ত ব্যক্তির শরীরে হালকা থেকে মাঝারি জ্বর ও গা ম্যাজম্যাজে ভাব দেখা দেয়।

২) এই জ্বর সাধারণত দুই থেকে তিন দিন বা খুব বেশি হলে চার থেকে পাঁচ দিনের মধ্যে সেরে ওঠে।

৩) সামান্য সর্দি ভাব, কখনও কখনও আবার নাক দিয়ে জল পড়ে।

৪) এই সমস্ত কিছুর সঙ্গে হাঁচি এবং হালকা কাশিও থাকে।

৫) সারা গায়ে ব্যাথা।

ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রতিরোধ

ইনফ্লুয়েঞ্জা প্রতিরোধ

কিছু সাবধানতা অবলম্বন করলেই ইনফ্লুয়েঞ্জাকে এড়াতে পারেন।

১) একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, সেন্টারস ফর ডিজিজ কন্ট্রোল এন্ড প্রিভেনশন এই ফ্লু এড়ানোর জন্য একটি ভ্যাকসিন নেওয়ার পরামর্শ দিয়েছে। এই ভ্যাকসিন নিলে সহজেই এড়ানো সম্ভব।

২) যাদের হয়েছে তাদের থেকে দূরে থাকুন। যদি ওই ব্যক্তির সংস্পর্শে আসেন তবে মুখে মাস্ক ব্যবহার করুন।

৩) যাদের বিভিন্ন কঠিন রোগ যেমন, হার্টের সমস্যা, ফুসফুস, কিডনি বা লিভারের সমস্যা ও হাঁপানির সমস্যা আছে তারা এই সময়ে নিয়মিত মাস্ক ব্যবহার করুন।

৪) বয়স্করা এবং প্রসূতিরাও নিয়মিত মাস্ক ব্যবহার করুন এবং নিজের যত্ন নিন।

৫) ধুলোবালি থেকে দূরে থাকুন।

৬) হাত না ধুয়ে চোখে, নাকে এবং মুখে হাত দেবেন না।

৭) পরিষ্কার পরিচ্ছন্নতা বজায় রাখুন। রোজদিন নিজে পরিষ্কার থাকার পাশাপাশি নিজের বাসস্থান ও তার চারিদিক পরিষ্কার রাখুন।

ইনফ্লুয়েঞ্জাতে আক্রান্ত হলে কী করবেন

ইনফ্লুয়েঞ্জাতে আক্রান্ত হলে কী করবেন

১) ডাক্তারের পরামর্শ নিয়ে ওষুধ খান এবং সঠিক চিকিৎসা করুন।

২) দুর্বল ভাব দূর করার জন্য মাল্টি-ভিটামিন খান।

৩) সর্বদা মাস্ক পরে থাকুন।

৪) হাঁচি বা কাশির সময় টিস্যু ব্যবহার করুন এবং টিস্যুটি ঢাকনাযুক্ত ডাস্টবিনে ফেলুন।

৫) দিনে তিন থেকে চার বার গরম জলের ভাপ নিন এবং গার্গলিং করুন।

৬) হালকা ও সূপ জাতীয় তরল খাবার খান।

৭) জ্বর হলে নিজে আলাদা ঘরে থাকুন, বাড়ির অন্যান্য সদস্যের সংস্পর্শে আসবেন না।

English summary

Viral Fever Doesn't Necessarily Mean That You Have COVID-19

Viral fever doesn't necessarily mean that you have COVID19. Read on.
X