For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

লকডাউন বাড়ল ৩ মে পর্যন্ত, দেখে নিন আজ জাতির উদ্দেশে ভাষণে কী বললেন মোদি

|

কোভিড-১৯ এর কারণে চলা দেশব্যাপী লকডাউনের শেষ দিন ছিল আজ। ইতিমধ্যেই বেশ কয়েকটি রাজ্যের সরকার তাদের রাজ্যগুলিতে লকডাউন বাড়ানোর কথা ঘোষণা করে দিয়েছে। আজ ১৪ এপ্রিল সকাল ১০টায় প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি ৩ মে পর্যন্ত লকডাউন বৃদ্ধির ঘোষণা করলেন।

আজ কোভিড-১৯ মহামারি নিয়ে জাতির উদ্দেশে ভাষণ দেওয়ার সময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, 'কোভিড-১৯ মহামারি থেকে দেশকে বাঁচাতে জনগণ যে ত্যাগ ও কষ্টের মুখোমুখি হয়েছে তার জন্য আমি শ্রদ্ধার সহিত ভারতের জনগণকে প্রণাম জানাই। যদি আমরা লকডাউনের নিয়মগুলি মেনে চলি, ধৈর্য ধরুন, তবেই আমরা করোনা ভাইরাসকে পরাস্ত করতে সক্ষম হব।'

Lockdown Extended

নরেন্দ্র মোদীর ভাষণ থেকে গুরুত্বপূর্ণ ১০টি পয়েন্ট -

১) ভারতীয়রা সুশৃঙ্খল সৈনিকদের মতো কোভিড-১৯ এর সঙ্গে মোকাবিলা করছে

কেবলমাত্র দেশবাসীর প্রচেষ্টার ফলেই আমরা কোভিড-১৯ এর দ্বারা সৃষ্ট ক্ষয়ক্ষতি অনেকাংশে সামাল দিতে সক্ষম হয়েছি। একজন সুশৃঙ্খল সৈনিকের মতো, সারা দেশ জুড়ে মানুষ নিজের এবং অপরের দায়িত্ব পালন করেছে। তাদের ত্যাগের জন্য আমি ভারতের সকল মানুষকে অভিবাদন জানাই।

২) কোভিড-১৯ এর গোড়ার দিকেই ভারত স্ক্রিনিং শুরু করেছে

যখন দেশে কোনও কোভিড-১৯ পজিটিভ রোগী ছিল না তখন থেকেই ভারত কোভিড-১৯ আক্রান্ত দেশ থেকে আসা যাত্রীদের স্ক্রিনিং শুরু করেছিল।

৩) ভারত বিদেশ ফেরত সকলকের জন্যই ১৪ দিনের আইসোলেশনে থাকা বাধ্যতামূলক করেছে

ভারতে কোভিড-১৯ কেস ১০০ পৌঁছানোর আগেই, বিদেশ ফেরত সকলকের জন্যই ১৪ দিনের আইসোলেশনে থাকা বাধ্যতামূলক করেছিল। সতর্কতামূলক ব্যবস্থা হিসেবে, যখন ৫৫০টি কেস ছিল তখনই ২১ দিনের লকডাউন আরোপিত হয়েছিল।

৪) ভারত সমস্যা বৃদ্ধির জন্য অপেক্ষা করেনি

কোভিড-১৯ সম্পর্কিত সমস্যা দেখা দেওয়ার পরে, ভারত সমস্যাটি আরও বাড়ার জন্য অপেক্ষা করেনি। ভারতের নেওয়া দ্রুত সিদ্ধান্তগুলি কোভিড-১৯ সঙ্কটের মধ্য দিয়ে আমাদের বাঁচতে সহায়তা করছে।

৫) ভারত ৩ মে অবধি লকডাউন বাড়িয়েছে

সমস্ত পরামর্শ এবং সম্ভাবনা বিবেচনা করে আমরা ৩ মে, রবিবার পর্যন্ত লকডাউন বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছি, বলে মন্তব্য করেছেন মোদি।

৬) ২০ এপ্রিল পর্যন্ত টাইট লকডাউন থাকবে

২০ এপ্রিল অবধি টাইট লকডাউন থাকবে। রাজ্য, জেলা, এলাকা বা অঞ্চল- সবকিছুর উপর ২০ এপ্রিল পর্যন্ত কড়া নজর রাখা হবে। মানুষের উচিত সমস্ত নিয়ম মেনে চলা। দরিদ্র মানুষের জীবন-যাপনের বিষয়টি মাথায় রেখে কিছু গুরুত্বপূর্ণ কার্যক্রম আবার শুরু করা হবে।

৭) লকডাউন এর নিয়ম ভঙ্গ সহ্য করা হবে না

যদি কেউ লকডাউনের নিয়ম ভঙ্গ করে এবং যদি কোনও এলাকা কোভিড-১৯ দ্বারা আক্রান্ত হয় তবে সেক্ষেত্রে পদক্ষেপ নেওয়া হবে। হটস্পট জোন যাতে বৃদ্ধি না পায় সেদিকে খেয়াল রাখবে রাজ্য।

৮) ভারতে এক লাখ বেডের ব্যবস্থা করা হয়েছে, ৬০০-টিরও বেশি হাসপাতাল আছে

ভারতে আমরা এক লাখ বেডের ব্যবস্থা করেছি এবং ৬০০-টিরও বেশি হাসপাতাল আছে যারা কোভিড-১৯ আক্রান্ত রোগীদের জন্য কাজ করছে।

৯) নতুন নির্দেশিকা দরিদ্র এবং দিনমজুরদের জন্য

নতুন নির্দেশিকা তৈরি করার সময়, দরিদ্র ও দিনমজুরদের কথা বিবেচনা করা হয়েছে। রবি ফসলের সংগ্রহও চলছে। কৃষকদের সমস্যা যাতে কমে তার জন্য কেন্দ্রীয় সরকার এবং রাজ্য সরকার একত্র হয়ে কাজ করছে।

১০) প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সাত আর্জি -

ক) বাড়ির বয়স্কদের যত্ন নিন, বিশেষত যারা ইতিমধ্যে কোনও রোগে আক্রান্ত, তাদের যত্ন নিতে হবে।

খ) সামাজিক দূরত্ব এবং লকডাউনের নিয়ম মেনে চলুন। ঘরে তৈরি ফেসমাস্ক ব্যবহার করুন।

গ) ইমিউনিটি বাড়াতে, আয়ুষ মন্ত্রকের নির্দেশিকাগুলি অনুসরণ করুন।

ঘ) কোভিড-১৯ এর বিস্তার নিয়ন্ত্রণে, আরোগ্য সেতু মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ইনস্টল করুন ও অপরকেও করতে বলুন।

ঙ) দরিদ্র মানুষের যত্ন নিন এবং তাদের খাবারসহ যা যা প্রয়োজন তা পূরণ করুন।

চ) আপনার সংস্থায়, ব্যবসায়, আপনার কর্মীদের প্রতি সহানুভূতি দেখান এবং তাদের চাকরি থেকে ছাড়িয়ে দেবেন না।

ছ) যারা করোনার বিরুদ্ধে প্রতিনিয়ত লড়ছে তাদের সম্মান করুন এবং চিকিৎসক, নার্স, স্বাস্থ্যকর্মী, পুলিশ সদস্য সবার প্রতি গর্বিত হন।

English summary

Lockdown Extended: Top 10 Points from PM Narendra Modi Speech on April 14

Top 10 Points from PM Narendra Modi Speech on April 14.
X