For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

নিম্ন রক্তচাপে ভুগছেন? সুস্থ থাকতে অনুসরণ করুন এই ঘরোয়া পদ্ধতিগুলি

|

বর্তমানে ঘরে ঘরে নিম্ন রক্তচাপের সমস্যা বেশি দেখা যাচ্ছে, যা শরীরের জন্য খুবই ক্ষতিকারক। নিম্ন রক্তচাপ অর্থাৎ লো ব্লাড প্রেসার তখনই হয়, যখন শরীরের বিভিন্ন অঙ্গে রক্ত ঠিকমতো পৌঁছতে পারে না। পাশাপাশি দুশ্চিন্তা, ভয় ও স্নায়ুর দুর্বলতা থেকে এই সমস্যা দেখা দেয়। আর, রক্ত শরীরে ঠিকমতো সরবরাহ না হওয়ার ফলে স্ট্রোক, হার্ট অ্যাটাক, কিডনি ফেলিওর এর মত গুরুতর অসুখের সম্মুখীন হতে হয় মানুষকে।

সাধারণত একজন সুস্থ স্বাভাবিক মানুষের রক্তচাপ হওয়া উচিত ১২০/৮০। যদি কোনও ব্যক্তির রক্তচাপ ৯০/৬০ বা তার কম থাকে, তখন তাকে লো ব্লাড প্রেসার হিসেবে গণ্য করা হয়। রক্ত পরীক্ষা, রেডিওলজিক স্টাডিজ ও কার্ডিয়াক টেস্ট এর মাধ্যমে লো প্রেসারের সমস্যাকে নির্ধারণ করে উপযুক্ত ব্যবস্থা গ্রহণ করলেই আপনি এ থেকে মুক্তি পেতে পারেন। তাই ভয় পাওয়ার কিছু নেই। ওষুধপত্র খাওয়া ছাড়া, নিয়মমাফিক জীবনযাত্রা বজায় রাখা, সুষম খাবার গ্রহণ ও কিছু স্বাস্থ্যবিধি মেনে চললে, অনায়াসেই এই সমস্যাকে দূর করতে সক্ষম হবেন।

সিকল সেল ডিজিজ কী? জেনে নিন এর প্রকার, লক্ষণ, রোগ নির্ণয় ও চিকিৎসা সম্পর্কে

তবে চলুন, আমাদের এই আর্টিকেল থেকে জেনে নিন লো ব্লাড প্রেসার থেকে মুক্তি পেতে কী কী ঘরোয়া উপায়কে কাজে লাগাবেন -

লো ব্লাড প্রেসারের লক্ষণ

লো ব্লাড প্রেসারের লক্ষণ

মাথা ঘোরানো

শ্বাস প্রশ্বাসের কষ্ট

দৃষ্টি ঝাপসা হয়ে আসা

অজ্ঞান হয়ে যাওয়া

অতিরিক্ত ঘাম

অবসাদ

বমি বমি ভাব

ঘুম ঘুম ভাব

কাজকর্মে অনীহা

যে ঘরোয়া উপায়গুলি মেনে চলবেন

যে ঘরোয়া উপায়গুলি মেনে চলবেন

১) নুন জল পান করুন

ওয়ার্ল্ড হেল্থ অর্গানাইজেশন এর একটি রিপোর্ট অনুযায়ী, সুস্থ থাকতে প্রতিদিনের ডায়েটে অবশ্যই ১ চা চামচ পরিমাণ নুন থাকা প্রয়োজন। এই লবণ শরীরের কার্যকারিতাকে ঠিক রাখতে এবং হাইপোটেনশন প্রতিরোধের ক্ষেত্রে খুবই উপকারী। সুতরাং আপনি যখনই লো ব্লাড প্রেসারের লক্ষণগুলির সম্মুখীন হবেন তখন একগ্লাস জলে ১/২ চা চামচ লবণ মিশিয়ে পান করুন। এটি আপনার রক্তচাপকে স্থিতিশীল রাখতে সহায়তা করবে।

২) তুলসী পাতা

২) তুলসী পাতা

রোজ সকালে ৫-৬টি করে তুলসী পাতা চেবান বা ১ টেবিল চামচ তুলসী পাতার রস খান। তুলসী পাতায় থাকে উচ্চমাত্রায় পটাশিয়াম, ম্যাগনেশিয়াম এবং ভিটামিন সি, যা রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে সহায়তা করে। এছাড়াও এতে Eugenol নামে একটি অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট রয়েছে যা রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতে এবং কোলেস্টেরলের মাত্রাকে কমাতে সাহায্য করে।

৩) কফি

৩) কফি

লো ব্লাড প্রেসারের সমস্যা দেখা দিলে সঙ্গে সঙ্গে পান করুন এক কাপ কফি। এটি আপনার রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণে আনতে সাহায্য করবে। তবে কফি অল্প সময়ের জন্যই আপনার রক্তচাপকে স্থিতিশীল করতে সহায়তা করে।

৪) জলপান

৪) জলপান

প্রতিদিন তিন থেকে চার লিটার জল পান করুন। এটি দেহের টক্সিনকে বার করে শারীরিক কার্যক্ষমতা বৃদ্ধি করতে এবং শরীরকে সতেজ রাখতে সাহায্য করে, পাশাপাশি রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণে রাখতেও সহায়তা করে।

৫) লাল কাঁচা বাদাম

৫) লাল কাঁচা বাদাম

লো ব্লাড প্রেসার ঠিক রাখতে সারারাত ৮-১০টি বাদাম জলে ভিজিয়ে রেখে দিন। সকালে খোসা ছাড়িয়ে তা আখের গুড়ের সঙ্গে মিশিয়ে খেয়ে নিন। বাদামে থাকা ওমেগা ৩ ফ্যাটি অ্যাসিড নিম্ন রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে।

৬) সজনে শাক

৬) সজনে শাক

সজনে শাকে থাকে প্রচুর পরিমাণে অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট, যা উচ্চ রক্তচাপ কমানোর পাশাপাশি নিম্ন রক্তচাপেও সহায়ক। তাই সপ্তাহে ২ দিন করে দুপুরের খাবারে সজনে শাক খান।

৭) বিটের রস

৭) বিটের রস

বিটে থাকে উচ্চমাত্রার নাইট্রেট, যা রক্তচাপকে নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। যারা নিম্ন রক্তচাপে ভুগছেন তারা দিনে অন্তত দুই গ্লাস বিটের রস পান করুন। এটি রক্ত সঞ্চালন স্বাভাবিক রাখতে খুবই কার্যকর।

English summary

Home remedies to cure low blood pressure

Here are some Home remedies to cure low blood pressure.
X