এই ৪ টে নিয়ম মানলে মহিলাদের কোনও রোগ ছুঁতে পারবে না!

Subscribe to Boldsky

আর কয়েক দিন পরেই আন্তর্জাতিক নারী দীবস। তাই ভাবলাম এমন একটা প্রবন্ধ লিখলে হয় না যেটা পড়ে আমার মায়ের, আমার বোনের, আমার বন্ধুদের কিছুটা সাহায্য হতে পারে। তাই কলম তুলে নিলাম। আজ এমন কতগুলি পদ্ধতি সম্পর্কে আপনাদের জানাবো, যা অক্ষরে অক্ষরে মেনে চললে কোনও দিন আপনাদের রোগের জ্বালায় ভুগতে হবে না। শুনতে একটু আজব লাগছে তাই তো! কিন্তু বিশ্বাস করুন এই পদ্ধতিগুলি সত্যিই বেশ কার্য়করি।

পুরুষ এবং মহিলাদের শরীরের গঠনে অনেক পার্থক্য রয়েছে। আপাত দৃষ্টিতে সেইসব ফারাকগুলো চোখে না পরলেও বাস্তবে কিন্তু পুরুষদের তুলনায় মেয়েদের শরীর অনেক বেশি জটিল। তাই তো মেয়েদের বেশি করে নিজেদের খেয়াল রাখা উচিত। আর আজকালকার দিনের মেয়েরা তো দশভুজা! একদিকে ঘর সামলাচ্ছেন, অন্য দিকে অফিস। তাই তো আপনাদের কাছে অনুরোধ আজীবন সুস্থ থাকতে এই প্রবন্ধে আলোচিত নিয়মগুলি মেনে চলুন। দেখবেন অনেক আনন্দে থাকবেন।

প্রসঙ্গত, মেয়েরা আরেকটি ভুল কাজ করে থাকেন, যা একেবারেই করা উচিত নয়। বাড়ি এবং প্রিয়জনেদের খেয়াল রাখতে গিয়ে নিজেদের খেয়াল রাখার সময়ই পান না আপনারা। ফলে নানা রোগ আপনাদের ঘিরে ধরে। এবার থেকে নিজের দিকেও একটু খেয়াল করুন। আপনি যে গ্রিহস্তের স্তম্ভ, আপনি নরে গেলে যে সংসারটাই ভেসে যাবে। ভুলে যাবেন না সেনাপতিই যদি ঠিক না থাকে, তাহলে সৈন্যরা লড়াই করবেন কীভাবে!

আর কয়েক দিন পরেই আন্তর্জাতিক নারী দীবস

টিপ ১:

প্রতিদিন স্বাস্থ্যকর খাবার খান। প্রয়োজনে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে একটা ডায়েট চার্ট বানিয়ে নিন। সেই সঙ্গে প্রতিদিন শরীরচর্চা করুন। প্রসঙ্গত, যাদের বয়স একটু বেশি তারা নির্দিষ্ট সময় অন্তর অন্তর চিকিৎসকের পরমর্শ নিন। তাহলে দেখবেন অনেক রোগকেই গোড়াতেই সারিয়ে ফেলতে পারছেন।

আর কয়েক দিন পরেই আন্তর্জাতিক নারী দীবস

টিপ ২:

যেসব রোগ শুধু মাত্র মেয়েদেরই হয়, যেমন- পলিসিসটিক ওভারিয়ান সিনড্রোম, ব্রেস্ট ক্যান্সার, ওভারিয়ান ক্যান্সার প্রভৃতি রোগের বিষয়ে একটু জেনে নিন। বিশেষত লক্ষণগুলি সম্পর্কে। এমনটা করলে দেখবেন অনেক রোগকেই আপনি প্রথম স্টেজে আটকে দিতে পারবেন। ফলে দীর্ঘ কষ্টের হাত থেকে বাঁচবেন।

আর কয়েক দিন পরেই আন্তর্জাতিক নারী দীবস

টিপ ৩:

যে যে রোগের ভ্যাকসিন বাজারে পাওয়া য়ায়, সেগুলি আপনি নিতে পারেন রিনা সে বিষয়ে চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করে নিন। আর একটি বষয় মাথায় রাখবেন। বেশিরভাগ মেয়েরাই ক্যালসিয়াম ডেভিসিয়েন্সি এবং অ্যানিমিয়ায় ভোগেন। এই দুটি ক্ষেত্রে কী কী ব্যবস্থা নেওয়া য়ায়, সে বিষয়ে জেনে নেওয়াটা জরুরি।

আর কয়েক দিন পরেই আন্তর্জাতিক নারী দীবস

টিপ ৪:

স্ট্রেস হল এমন একটি বিষ, যা একটু একটু করে শেষ করে দেয় মানব জীবন। বিশেষত মেয়েদের শরীরের উপরে তো স্ট্রেসের খুব বাজে প্রভাব পরে। তাই আজ থেকেই স্ট্রেসকে টাটা-বাই বাই বলুন। প্রয়োজনে নিয়মিত প্রণায়ম করুন। এমনটা করলে দেখবেন অনেক রোগ দূরে থাকবে। প্রসঙ্গত, যারা মা হওয়ার কথা ভাবছেন, তারা স্ট্রেস থেকে নিজেদের দূরে রাখুন। কারণ মানসিক চাপ শুধু আপনার উপর নয়, আপনার বাচ্চার উপরও কিন্তু কুপ্রবাব ফেলবে। আর এমটা হোক আপনি নিশ্চয় চান না।

For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS
For Daily Alerts

    English summary

    এই ৪ টে নিয়ম মানলে মহিলাদের কোনও রোগ ছুঁতে পারবে না!

    The International Women's Day is right around the corner and on this occasion, we shall make an effort to help women get healthier and happier, by giving them a few amazing health tips that they may not have heard of before.
    Story first published: Saturday, March 4, 2017, 13:00 [IST]
    We use cookies to ensure that we give you the best experience on our website. This includes cookies from third party social media websites and ad networks. Such third party cookies may track your use on Boldsky sites for better rendering. Our partners use cookies to ensure we show you advertising that is relevant to you. If you continue without changing your settings, we'll assume that you are happy to receive all cookies on Boldsky website. However, you can change your cookie settings at any time. Learn more