For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ডেল্টা, ডেল্টা প্লাস, কাপ্পা, ল্যাম্বডা : কোভিডের এই সবকটি ভ্যারিয়েন্টের মধ্যে পার্থক্য কী? জেনে নিন

|

গত বছর থেকে এখন অবধি কোভিডের বহু রূপ প্রকাশ্যে এসেছে এবং প্রতিটি ভ্যারিয়েন্টের উপসর্গ কিছুটা হলেও আলাদা। আর, কোভিডের এই রুপ পরিবর্তন এবং লক্ষণগুলি নিয়ে স্বাস্থ্য বিশেষজ্ঞ ও গবেষকদের চিন্তা আরও বাড়ছে। ভারতে পাওয়া করোনা ভাইরাসের ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট আগের ভাইরাসের চেয়ে অনেক বেশি ভয়াবহ ছিল, যাকে সেকেন্ড ওয়েভের জন্য দায়ী করা হচ্ছে।

ডেল্টার পরে এল ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট এবং এরপর কাপ্পা, ল্যাম্বডার মতো ভাইরাসের উদ্ভব হয়েছে। আসুন জেনে নেওয়া যাক, এই সবকটি ভ্যারিয়েন্টের মধ্যে পার্থক্য কী।

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট

ডেল্টা ভ্যারিয়েন্ট বা B.1.617.2 হল B.1.617 ভাইরাসের একটি রূপ, যা এই বছরের শুরুর দিকে ভারতে আবিষ্কৃত হয়েছিল। গবেষণা অনুযায়ী, এটি আগের ভাইরাসের চেয়ে আরও বেশি ভয়ানক এবং দেশে কোভিডের দ্বিতীয় ঢেউ-এর জন্য একেই দায়ী করা হচ্ছে। এই কারণেই ওয়ার্ল্ড হেলথ অর্গানাইজেশন ডেল্টা রূপটিকে 'virus of concern' হিসেবে অভিহিত করেছে।

গবেষণা অনুসারে, এই ধরনের ভাইরাসের বিরুদ্ধে বর্তমান কোভিড ভ্যাকসিনগুলি আটগুণ কম কার্যকর। ভারত ছাড়া ডেল্টা ভ্যারিয়েন্টের ঘটনা আরও কয়েকটি দেশেও দেখা দিয়েছে।

ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট

ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট

ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট ভারতে আবিষ্কৃত ডেল্টারই আরেকটি রুপ। ডেল্টা প্লাস ভ্যারিয়েন্ট (B.1.617.2) প্রথম ভারতের মহারাষ্ট্রে ধরা পড়েছিল। জানা গেছে, ডেল্টা প্লাস রূপটি পশ্চিমা রাজ্যে COVID-19 এর তৃতীয় ঢেউ-কে ট্রিগার করতে পারে। বিশেষজ্ঞদের মতে, এর লক্ষণগুলি আরও গুরুতর হতে পারে এবং রোগীদের হাসপাতালে ভর্তি করতেও হতে পারে। ভারত ছাড়াও ডেল্টা প্লাস ছড়িয়ে পড়েছে বিশ্বের আরও ৯টি দেশে, ইউকে, পর্তুগাল, সুইজারল্যান্ড, পোল্যান্ড, জাপান, নেপাল, চীন এবং রাশিয়ায়। এর লক্ষণগুলি হল - পেট ব্যথা, বমি বমি ভাব, খিদে না হওয়া, বমি, জয়েন্টে ব্যথা এবং শ্রবণশক্তি হ্রাস।

আরও পড়ুন :কোভিড রোগীর শরীরে সাইটোমেগালো ভাইরাস সংক্রমণ! কী এই রোগ? এর উপসর্গ কী? জেনে নিন বিস্তারিত

কাপ্পা ভ্যারিয়েন্ট

কাপ্পা ভ্যারিয়েন্ট

কাপ্পা ভ্যারিয়েন্ট, যা B.1.167.1 নামেও পরিচিত। ২০২০ সালের অক্টোবরে ভারতে এটি প্রথম পাওয়া যায়। এটি করোনা ভাইরাসের একটি ডবল মিউট্যান্ট স্ট্রেন, কারণ এটি দুই ধরণের ভাইরাস- E484Q মিউটেশন এবং L452R মিউটেশন দ্বারা গঠিত। E484Q মিউটেশন ব্রাজিল এবং দক্ষিণ আফ্রিকার ভাইরাস E484K মিউটেশনের অনুরূপ, আর ক্যালিফোর্নিয়ায় উদ্ভূত L452R মিউটেশন অনাক্রম্যতাকে দুর্বল করে দিতে পারে। এই কারণে, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা এটিকে 'Variant of interest' হিসেবে অভিহিত করেছে।

গবেষণা অনুসারে, কাপ্পা ভ্যারিয়েন্টে শরীরে উপস্থিত ন্যাচারাল অ্যান্টিবডিকে কাটিয়ে ওঠার ক্ষমতা রয়েছে এবং ভ্যাকসিন থেকে পাওয়া রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা থেকেও নিজেকে রক্ষা করতে পারে। এর লক্ষণগুলি হল - ব়্যাশ, প্রচন্ড জ্বর, সর্দি, চোখ দিয়ে জল পড়া।

ল্যাম্বডা ভ্যারিয়েন্ট

ল্যাম্বডা ভ্যারিয়েন্ট

বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা গত সপ্তাহে ল্যাম্বডা ভ্যারিয়েন্টকেও 'Variant of interest' হিসেবে অভিহিত করেছে। গত চার সপ্তাহে ৩০টিরও বেশি দেশ থেকে পেরু-তে উদ্ভূত এই রূপটির ঘটনা সামনে এসেছে। তবে ভারতে এখনও পাওয়া যায়নি। ল্যাম্বডা L452Q এবং F490S এর মতো ভ্যারিয়েন্টের মিউটেশন থেকে গঠিত।

English summary

Difference between Delta, Delta Plus, Lambda and Kappa COVID variants in Bengali

Coronavirus variants: Difference between Delta, Delta Plus, Lambda and Kappa COVID variants. Read on.
X