কার্বন জলে লাবণ্যের ছোঁয়া

Posted By: Staff
Subscribe to Boldsky

সোডা ওয়াটার হল কার্বনডাই অক্সাইড যুক্ত জল। স্পার্কলিং ওয়াটার নামেও এর পরিচিতি আছে। তবে, শুধুমাত্র খাওয়ার জন্য নয়, ত্বকের যত্নেও সমান পারদর্শী এই সোডা ওয়াটার। অবাক হলেন? একদমই ঠিক শুনেছেন। ত্বককে নতুনভাবে পেতে সোডা ওয়াটার দারুণ কার্যকরী।

সোডা জল বা কার্বনযুক্ত জলের ব্যবহার প্রথম শুরু করেন জাপানের মহিলারা। ত্বককে মোলায়েম, দাগহীন এবং মৃত কোষ দূর করে ত্বককে টানটান করতে সাহায্য করে সোডা ওয়াটার।

carbonated water on skin

কার্বনযুক্ত জল বা সোডা ওয়াটার মুখমণ্ডলের যাবতীয় নোংরা এবং কালোভাব দূর করতে সাহায্য করে। এই জলের ভেতরে থাকা বুদবুদ ত্বকের অভ্যন্তরে প্রবেশ করে এবং ত্বককে মোলায়েম করে তোলে। সোডা ওয়াটার কোলাজেন ফাইবারের মধ্যেখানে থাকা কোষগুলিকে মজবুত হতেও সাহায্য করে। সর্বাপেক্ষা, ত্বক কুঁচকে যাওয়া এবং বলিরেখা থেকেও মুক্তি দেয় কার্বোনেটেড ওয়াটার বা সোডা ওয়াটার। এর নিয়মিত ব্যবহারে ত্বকের অতিরিক্ত তৈলাক্ত বা চিটচিটে ভাব থেকেও মুক্তি মেলে।

এবার দেখে নেওয়া যাক কিভাবে সোডা ওয়াটার ত্বকে ব্যবহার করতে হয়।

উপাদান-
১ কাপ কার্বন যুক্ত জল বা সোডা জল
১ কাপ পানীয় জল
একটা নরম কাপড়

carbonated water on skin

পদ্ধতিঃ
১. একটি পাত্রে কার্বন যুক্ত জল এবং পানীয় জল মিশিয়ে নিতে হবে।
২. এই মিশ্রিত জলে নরম কাপড় ডুবিয়ে, সেই কাপড়টি মুখে চাপা দিয়ে রাখতে হবে।
৩.৩০ সেকেন্ড এইভাবে রেখে দিতে হবে।
৪. এইভাবে পাঁচ থেকে ছয় বার মুখে কার্বন জলে ডোবানো তোয়ালে চাপা দিয়ে রাখতে হবে। তবেই মিলবে সুফল।
৫. এই তরল মিশ্রণটির প্রতিদিন ব্যবহারে মুখের রোমকূপগুলি খুলে যায় এবং যাবতীয় ক্ষতিকারক পদার্থ বেড়িয়ে গিয়ে ত্বককে উজ্জ্বল করে তোলে।
৬. এই মিশ্রণটি একটি স্প্রে বোতলে ভরে সরাসরি মুখে লাগাতে পারেন।

এই মিশ্রণটির প্রতিদিন ব্যবহারে ত্বকের বহু রকম উপকার হয়।অনেক সেলিব্রিটিও ত্বকের যত্নে এই মিশ্রণের ব্যবহার করে থাকেন। তাহলে আর দেরি কেন? আপনারাও শুরু করে দিন কার্বনযুক্ত জলের ব্যবহার এবং হয়ে উঠুন লাবণ্যময় ত্বকের অধিকারী।

English summary
Carbonated water, or sparkling water, is simply water which is induced with carbon dioxide. This water is usually associated with drinks or parties. But have you heard of using this water on the skin? Yes, you heard that right!
Please Wait while comments are loading...