কলা দিয়ে তৈরি ১০ টি ফেস মাস্ক, যা ব্যবহারে আপনার ত্বক হেসে উঠবে

By: Anindita Sinha
Subscribe to Boldsky

আপনার কথা জানি না, তবে আমাদের কাছে কলা এমন একটি খাবার যেটা হঠাৎ হঠাৎ করে পাওয়া খিদে গুলো একাধিকবার মিটিয়ে আসে। সে যাইহোক, তবে আপনি যেটা জানেন না, সেটা হল কলা আমাদের পেট ভরিয়ে রাখা ছাড়াও আরো অনেক কিছু করতে পারে। ত্বকের থেকে টক্সিন টেনে বের করা, ত্বকের তেলতেলে ভাব নিয়িন্ত্রণ থেকে ত্বকের দাগ-ছোপ দূর করা, কলা দিয়ে তৈরি ফেস প্যাক আক্ষরিক অর্থে আপনার ত্বকের ত্রাণকর্তা হয়ে উঠতে পারে। কলায় ভিটামিন এ, বি এবং ই রয়েছে, একত্রে যেগুলি শক্তিশালী অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট রূপে কাজ করে, যা আপনার ত্বকের মৃত কোষগুলিকে খসিয়ে দেয়, রোমকূপের মুখ খুলে দেয়, ত্বক কে টানটান করে ও ত্বকে নতুন কোষ জন্মাতে সাহায্য করে।

শুধু তাই না, কলায় উপস্থিত ফ্যাটি অ্যাসিড ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রেখে, ত্বককে আর্দ্র ও কোমল রাখতে সাহায্য করে।

এর সাথে সাথে, কলা অ্যান্টি-অক্সিডন্টের একটি ভাল উৎস, যা ফ্রি র‍্যাডিকেলস গুলোকে নিষ্ক্রিয় করে, ত্বকের বয়স হয়ে যাওয়ার প্রক্রিয়াকে ধীর করে এবং ত্বকের রং হাল্কা করতে সাহায্য করে।

এটা আমাদের বোকামি হবে, যদি আমরা এতো রকম উপকারিতা থাকার পরেও, কলাকে আমাদের দৈনন্দিন রূপচর্চায় অন্তর্ভুক্ত না করি। তাই না?

তাই, এখানে কলা দিয়ে তৈরি, ১০ টি ফেস প্যাক এর রেসিপি দেওয়া হল যা আপনার ত্বককে, টানটান, রং হালকা ও ত্বকের উজ্জ্বলতা বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে।

রেডিয়েন্ট স্কিন মাস্ক

রেডিয়েন্ট স্কিন মাস্ক

একটা পাকা কলার আধা টুকরো নিয়ে ভালভাবে মেখে একটা মন্ড তৈরি করে নিন।

কমলালেবুর রস এবং ১ চা চামচ মধু মেশান।

আপনার মুখ এবং গলায় মাস্কটির একটি পাতলা প্রলেপ লাগান।

১৫ মিনিটের রেখে ধুয়ে ফেলুন।

অ্যান্টি-এজিং মাস্ক

অ্যান্টি-এজিং মাস্ক

একটা পাকা কলার আধা টুকরো নিয়ে ভালভাবে মেখে একটা মন্ড তৈরি করে নিন।

এক চা চামচ টকদই ও কয়েক ফোঁটা লেবুর রস মেশান।

মেশাতে থাকুন, যতক্ষন না সব উপাকরণগুলি ভালভাবে মিশে যায়।

ভাল করে মুখ ধুয়ে নিয়ে এই মাস্কটি লাগান।

৩০ মিনিটের জন্য রেখে দিন।

ঠান্ডা জল দিয়ে ভালকরে ঘষে ঘষে ধুয়ে ফেলুন।

ত্বককে পুনর্জীবিত করার মাস্ক

ত্বককে পুনর্জীবিত করার মাস্ক

১ টি ডিমের কুসুম, ১ চা চামচ মধু, ১ চা চামচ থেতো করা পাকা কলা নিয়ে ভাল করে মিশিয়ে নিন।

মুখ ভাল করে ধুয়ে, শুকিয়ে নিন।

আপনার মুখ এবং গলায় মাস্কটির একটি পাতলা প্রলেপ লাগান।

শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন, তারপর জলের ছিটা দিয়ে দিয়ে সার্কুলার মোশোনে ঘষুন।

ঠান্ডা জল দিয়ে ধুয়ে ফেলুন।

ব্রণ সাফ করতে মাস্ক

ব্রণ সাফ করতে মাস্ক

কলার খোসার ভেতরের দিকটা ব্রণ প্রভাবিত জায়গায় ভাল করে ঘষে লাগান।

সারা রাত এভাবেই রেখে দিন।

সকালে, পরিষ্কার করে মুখ ধুয়ে ফেলুন।

পরিষ্কার ত্বকের জন্য সপ্তাহে দুইবার কলার এই ভেষজ মাস্কটি ব্যবহার করুন।

ত্বকের রং হাল্কা করতে মাস্ক

ত্বকের রং হাল্কা করতে মাস্ক

এক ভাগ কলা ও এক ভাগ অ্যাভোকাডো ভালভাবে চটকে মেখে নিন।

কলার এই ভেষজ মাস্কে এক চা চামন মধু মেশান।

এবার ত্বকে প্রয়োগ করুন।

৩০ মিনিট রেখে ভালভাবে মুখ ধুয়ে শুকিয়ে নিন।

ত্বকের তৈলাক্তভাব নিয়ন্ত্রণে

ত্বকের তৈলাক্তভাব নিয়ন্ত্রণে

১ টেবিল চামচ থেতো করা কলার সাথে ১ চা চামচ মধু মিশিয়ে নিন।

মসৃণ পেস্ট হওয়া পর্যন্ত মেশাতে থাকুন।

এবার মিশ্রণটি মুখে লাগান।

ধুয়ে ফেলার আগে ভালভাবে শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন।

তৈলাক্ত ত্বকের জন্য এই মাস্ক সপ্তাহে একবার ব্যবহার করুন।

ত্বক পরিষ্কার করতে মাস্ক

ত্বক পরিষ্কার করতে মাস্ক

১ চা চামচ দুধের সর ও ১ চা চামন থেতো কলা মিশিয়ে নিন।

এবার এই মিশ্রণটি ত্বকে লাগান।

২০ মিনিটের জন্য অপেক্ষা করুন।

ভালবভাবে ধুয়ে ত্বক শুকিয়ে নিন।

শুষ্ক ত্বক অপসারন করতে স্ক্রাব

শুষ্ক ত্বক অপসারন করতে স্ক্রাব

১ টেবিল চামচ ওটস নিয়ে, একটা অমসৃণ পাউডারের মতো করে গুঁড়ো করে নিন।

১ চা চামচ থেঁতো করা কলা ও মধু মেশান।

কাঁচা দুধ দিয়ে ফেটিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন।

আপনার মুখ এবং গলায় মাস্কটির একটি পাতলা প্রলেপ লাগান।

৩০ মিনিট এইভাবেই রেখে, পরে পরিষ্কার করে ধুয়ে ফেলুন।

অ্যান্টি-অ্যাকনে মাস্ক

অ্যান্টি-অ্যাকনে মাস্ক

একটি পাত্রে একটা ছোট টুকরো কলা, ১/২ চা চামচ বেকিং সোডা এবং ১/২ চা চামচ গুঁড়ো হলুদ নিন।

একটি কাঁটা চামচ এর সাহায্যে সমস্ত উপকরণগুলি ভালভাবে মিশিয়ে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন।

পেস্টটি খুব ঘন হয়ে থাকলে, পাতলা করতে সামান্য দুধ মেশাতে পারেন।

মুখ ভাল করে ধুয়ে এই মিশ্রনটি লাগান।

ত্বকের উজ্জ্বলতা বর্ধক

ত্বকের উজ্জ্বলতা বর্ধক

কলা দিয়ে ত্বক উপচর্যা করার এটি আরেকটি উপায়।

একটি পাকা কলাকে আপনার মুখ ও গলায় ভালকরে লাগান।

ভালভাবে শুকিয়ে গেলে, ধুয়ে ফেলুন।

এটি সাথে সাথেই আপনার ত্বকে যৌবন ফিরিয়ে এনে ত্বক উজ্জ্বল করে তুলবে।

English summary
Don't know about you, but banana has been that one snack which has satiated our hunger pangs one too many times!
Please Wait while comments are loading...