For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ত্বকে তারুণ্যতা বজায় রাখতে ফেস ম্যাসাজ করুন, দেখুন এর উপকারিতা

|

ত্বকের যত্নে এবং সৌন্দর্য বজায় রাখতে ফেস ম্যাসাজ খুবই গুরুত্বপূর্ণ। মুখে ম্যাসেজ করলে মন শান্ত থাকে, ত্বক ভাল থাকে এবং মুখের পেশীগুলি রিল্যাক্স হয়। এর মাধ্যমে ত্বককে সতেজ, কোমল ও মসৃণও হয়।

ফেস ম্যাসাজের জন্য লোশন, সিরাম অথবা তেল ব্যবহার করা যেতে পারে। এটি মুখের রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে, ফোলাভাব কমায়। তাহলে জেনে নেওয়া যাক ফেস ম্যাসাজের উপকারিতা সম্পর্কে।

১) বার্ধক্যের লক্ষণ হ্রাস করে

১) বার্ধক্যের লক্ষণ হ্রাস করে

ফেস ম্যাসাজ মুখে বার্ধক্যের লক্ষণগুলি হ্রাস করতে সহায়তা করে। অগোছালো জীবনযাত্রা, মানসিক চাপ, দূষণ, ত্বকের উপর খারাপ প্রভাব ফেলে। তাই ত্বককে সুস্থ ও সতেজ রাখতে ম্যাসাজ অত্যন্ত উপকারি, যা বার্ধক্য জনিত লক্ষণগুলিও দূর করতে সহায়তা করে। নিয়মিত ফেস ম্যাসাজ করলে, মুখের ফাইন লাইনস, রিঙ্কেলস, ডার্ক স্পট এবং পিগমেন্টেশন কমায়। রক্ত সঞ্চালন বৃদ্ধি করে এবং কোলাজেন উৎপাদন বৃদ্ধি করে, যার ফলে ত্বক সুন্দর ও মসৃণ হয়।

টিপস - এক্ষেত্রে এসেনশিয়াল অয়েল ব্যবহার করতে পারেন, তবে এটি সরাসরি ত্বকে ব্যবহার করবেন না।

২) ত্বককে উজ্জ্বল, কোমল এবং মসৃণ করে

২) ত্বককে উজ্জ্বল, কোমল এবং মসৃণ করে

কোমল ও মসৃণ ত্বক কে না চায়! ফেস ম্যাসাজের মাধ্যমে আপনার ত্বক সফ্ট ও স্মুথ হতে পারে। এটি ত্বককে ময়েশ্চারাইজও করে। এমনকি ত্বকের টক্সিন নির্মূল করতেও বিশেষ কার্যকরি।

টিপস - ভালো ফল পেতে এক্সফোলিয়েশন এর পরে ম্যাসাজ করুন।

৩) ব্রণ এবং ব্রণর দাগ দূর করে

৩) ব্রণ এবং ব্রণর দাগ দূর করে

ম্যাসাজ মুখ পরিষ্কার রাখতে এবং ত্বক থেকে টক্সিন বের করে দিতে বিশেষ সহায়ক। নিয়মিত ম্যাসাজ করলে ত্বকের ছিদ্রগুলি পরিষ্কার থাকে এবং ব্রণর সমস্যাও দূর হয়। ত্বকের টেক্সচার ভাল হয় এবং ব্রণর দাগও কমে।

টিপস - মুখে কখনও জোরে চাপ দিয়ে ম্যাসাজ করবেন না। হালকা হাতে ম্যাসাজ করুন।

আরও পড়ুন :ত্বকের হাজারো সমস্যা থেকে নিমেষে মুক্তি দেবে এই মশলা ও ভেষজগুলি!

৪) ত্বকে শোষণ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে

৪) ত্বকে শোষণ ক্ষমতা বৃদ্ধি করে

ফেস ম্যাসাজ করলে, ব্যবহৃত পণ্যগুলি ত্বকে আরও ভালোভাবে শোষিত হয় এবং তার কার্যকারিতা বৃদ্ধি পায়। মুখে ময়েশ্চারাইজার অথবা সিরাম দিয়ে ম্যাসাজ করলে সেগুলি ত্বকে আরও ভালোভাবে শোষিত হয়।

টিপস - ভালো ফল পেতে বৃত্তাকার পদ্ধতিতে ম্যাসাজ করুন।

৫) ত্বককে ডিটক্সিফাই করে

৫) ত্বককে ডিটক্সিফাই করে

ধুলোবালি এবং দূষণ ত্বকের উপরে ক্ষতিকারক প্রভাব ফেলে। তবে ফেস ম্যাসাজ ত্বককে ডিটক্সিফাই করতে সহায়তা করে। হাইড্রেটিং স্কিন কেয়ার প্রোডাক্ট ব্যবহার করুন। এটি আপনার ত্বক থেকে ময়লা, তেল, হোয়াইটহেডস, ব্ল্যাকহেডস, কেমিক্যাল, ইত্যাদি পরিষ্কার করবে এবং ত্বকের ছিদ্রগুলি খুলবে। ফলে ত্বক পরিষ্কার এবং উজ্জ্বল হবে।

টিপস - জেড রোলার দিয়ে ম্যাসাজ করতে পারেন।

৬) টেনশন ও স্ট্রেস দূর করে এবং ব্যথা নিরাময় করে

৬) টেনশন ও স্ট্রেস দূর করে এবং ব্যথা নিরাময় করে

ব্যস্ত জীবনে টেনশন এবং স্ট্রেস চোখে, মুখে স্পষ্ট ফুটে ওঠে। অতিরিক্ত স্ট্রেসের ফলে, রিঙ্কেলস, ডার্ক সার্কেল দেখা যায়। মাথা যন্ত্রণা এবং মুখের পেশীতে ব্যথা হওয়ার মতো সমস্যাও দেখা দেয়। মুখে ম্যাসাজ করতে এই সব সমস্যা থেকে মুক্তি মেলে। এছাড়াও, ফেস ম্যাসাজ করলে টেনশন মুক্ত হওয়া যায় এবং মুখ তরতাজা থাকে।

টিপস - প্রতিদিন রাতে এটি করতে পারেন।

English summary

Benefits of Face Massage You Must Know

Read on for more about my experience getting a fascial face massage and what some of the benefits are.
X