ত্বকের বার্ধক্য রোধে কিছু ভেষজ

Posted By: Staff
Subscribe to Boldsky

প্রতিটি মহিলারই স্বপ্ন, উজ্জ্বল, সুন্দর, চিরতরুণ ত্বকের অধিকারিণী হওয়ার। আর সেই স্বপ্ন পূরণের জন্য অনেকেই নানা ক্রীম, লোশন ও আর অনেক কিছু ব্যবহার করে থাকেন। কিন্তু বিষেশজ্ঞদের মতে, যারা ঘরোয়া পদ্ধতি বা প্রাকৃতিক উপায় অবলম্বন করেন, তাদের অনেক ভাল ফল মেলে। এখানে দেখুন কিছু ভেষজ যা আপনার ত্বকের জমে থাকা ময়লা নিমেষে দূর করে দেয়।

এমন অনেক মশলা বা ভেষজ আছে, যাদের মধ্যে উপস্থিত সক্রীয় উপাদান বা যৌগিক পদার্থ আছে, যা শরীর ও ত্বকের রক্ষা করে। তাই যদি আপনি চিরতরুণ ও উজ্জ্বল ত্বকের অধিকারী হতে চান, তাহলে এই বার্ধক্য রোধক ভেষজগুলো আপনার নিয়মিত ত্বক চর্চার অঙ্গ করতেই হবে।

১.হলুদ

১.হলুদ

হলুদ এমন একটা রান্নার মশলা যা সব গৃহস্থের রান্নাঘরে পাবেন। তাই বলতে পারেন এটা সবচেয়ে সহজলোভ্য বার্ধক্য রোধের সরঞ্জাম। হলুদে থাকা কুরকুমিন পদার্থটির ত্বকের বার্ধক্য রোধ করার ক্ষমতা আছে। এটা কুচকোনো চামড়া বা মুখের বলিরেখা কমায়। হলুদের চোট বা ক্ষত উপষমকারি ক্ষমতার জন্য এটা নিয়মিত ত্বক চর্চার কাজে লাগানো উচিত।

২.রোজমেরি

২.রোজমেরি

রোজমেরি আরেক কার্যকরী বার্ধক্য রোধক উপাদান, যা আপনার ত্বকের অনেক ভাবে উপকার করে। রোজমেরি ত্বকের মধ্যে আদ্রতা ধরে রাখে, যার ফলে চট করে বলিরেখা পড়ে না। পরিবেশের প্রহসন থেকে বাঁচিয়ে রোজমেরি ত্বকের কোলাজেন রক্ষা করে, যার জন্য বয়সের ছাপ দেখা যায়না। আপনি যদি নিয়মিত রোজমেরি ব্যবহার করেন, তাহলে আপনার ত্বক নরম ও মোলায়েম থাকবে।

৩.সাগে

৩.সাগে

সাগেও এক বার্ধক্য রোধক উপাদান যা আপনার ত্বকের বয়স কমাতে সাহায্য করে। এর অ্যান্টিঅক্সিডেন্টের গুণে ত্বক পরিষ্কার হয়। সাগের ব্যবহারে কোলাজেন সৃষ্টি হয়, যা আপনার ত্বকের বয়স বাড়তে দেয় না, উলটে কমায়। প্রতিদিন সাগে ব্যবহার করলে ব্রণ হওয়া কমে এবং আপনার ত্বক সুস্থ ও মোলায়েম থাকে।

৪.জিনসেং

৪.জিনসেং

অ্যামেরিকা ও এশিয়ার আর একটা জনপ্রিয় ভেষজ জিনসেং। এটা বয়স কমাতে খুব কার্যকরী। নিয়মিত জিনসেং ব্যবহার করলে শুধু আপনার শরীরের ভাল হয় না, এটা আপনার ত্বকেরও ভাল করে। জিনসেং আপনার শরীরে চিনির মাত্রা নিয়ন্ত্রণে রাখে। যার ফলে আপনি একটি সুস্থ-স্বাভাবিক জীবন কাটাতে পারেন। এছাড়াও জিনসেংর বিশেষ ক্ষমতার দরুণ আপনি সুন্দর, উজ্জ্বল ও পরিষ্কার ত্বক পেতে পারেন। বয়সের সাথে সাথে ত্বককে সুন্দর রাখার ক্ষমতা রাখে জিনসেং।

৫.জিনকো বিলোবা

৫.জিনকো বিলোবা

জিনকো আসলে জিনকো চায়ের পাতা থেকে বের করা হয়। এটা ত্বকের জন্য খুব উপকারি। আমরা অনেকেই জানিনা, কিন্তু এটা বহুকাল ধরে ত্বকচর্চায় ব্যবহৃত হয়ে আসছে। নিয়মিত জিনকো আপনার ত্বকচর্চার অঙ্গ হিসেবে ব্যবহার করলে এটা বয়স বাড়ার চিহ্নগুলো রোধ করে। এতে উপস্থিত শক্তিশালী অ্যান্টিঅক্সিডেন্ট ও এনজাইম, নানাবিধ ক্ষতিকারক পদার্থকে ত্বক থেকে বের করে দেয়। ফলে আপনার ত্বকের যৌবন ও ঔজ্জ্বল্য বজায় রাখে।

৬.গোটু কোলা

৬.গোটু কোলা

গোটু কোলা এক অতি প্রাচীন ওষধি ভেষজ যার উৎপত্তি এশিয়া, ইন্দিনেশিয়া, দক্ষিণ আফ্রিকা ও চীনে। এই ভেষজের এমন গুণ আছে যা নতুন কোষের গঠনে সাহায্য করে। এর ফলে ত্বক স্বাস্থ্যকর ও উজ্জ্বল হয়ে ওঠে। এটা স্ট্রেস কমায়। ফলস্বরুপ ত্বকও ভাল থাকে। গোটি কোলা খুবই কার্যকরী এক ভেষজ যা বার্ধক্য রোধ ও ব্যাকটেরিয়া রোধে সাহায্য করে। এটা মুখের সূক্ষ রেখা ও চামড়ার কুঁচকে যাওয়া আটকায়। যার ফলে চামড়ার ঝুলে পড়াও কমায়। এটা একটা দুর্ধর্ষ ভেষজ ও শ্যামলা ত্বকের জন্য তো খুবই উপকারি।

৭.বিলবেরি

৭.বিলবেরি

যদি ত্বকের বার্ধক্য রোধের প্রচেষ্টায় থাকেন, তাহলে এই বিলবেরি যে কোন মূল্যেই আপনার ত্বকচর্চার অঙ্গ হতে হবে। বিলবেরিতে প্রচুর মাত্রায় এ্যান্টিঅক্সিডেন্ট থাকে, যা বয়স কমাতে সাহায্য করে। গবেষণায় দেখা গেছে, এর কিছু অভূতপূর্ব প্রতিরোধক গুণ আছে, যা বলিরেখা আটকায়।

Read more about: beauty
English summary
Since time immemorial, women have been using rose water for various beauty purposes, both skin and hair care. It is a rich source of rejuvenating properties that can do wonders on your tresses.
Story first published: Sunday, April 9, 2017, 10:00 [IST]
Please Wait while comments are loading...