নিজেকে আকর্ষনীয় করে পেতে অলিভ অয়েলের আশ্চর্যরকম সহজ কিছু ব্যবহার

Posted By: Staff
Subscribe to Boldsky

অলিভ অয়েলে বেশ ভাল পরিমানে ভিটামিন-ই রয়েছে, যা একটি শক্তিশালী অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট তৈরি করতে সক্ষম। এই অ্যান্টি-অক্সিডেন্ট আপনার ত্বকের ক্ষত সারায়, মেরামত করে ও ত্বকের আর্দ্রতা বজায় রাখে।

এছাড়াও, এটি ভাল মাত্রায় মিনারেলস যেমন, জিঙ্ক, ম্যাগনেসিয়াম, সালফার এবং আয়রন সমৃদ্ধ হয়, যা আমাদের ত্বককে ফ্রি র‍্যাডিক্যালস থেকে রক্ষা করে, ত্বকের মরা কোষ দূর করে, আটকে থাকা রোমকূপ খুলে দেয় এবং ত্বকে নতুন কোষের সৃষ্টিকে উদ্দীপিত করে।

এর সাথে সাথে অলিভ অয়েলে ভাল মাত্রায় ভিটামিন-বি রয়েছে, যা ত্বকে কোলাজেনের মাত্রা বারিয়ে দিয়ে, বয়সের ছাপ পরার পক্রিয়াকে মন্থর করে।

অবাক হচ্ছেন, যে এতোদিন কেন অলিভ অয়েলকে নিজেদের রূপচর্চায় ব্যবহার করেননি? আমরাও অবাক হচ্ছি বৈকি!

তাই অনর্থক আর কথা না বারিয়ে, আসুন দেখে নেওয়া যাক রুপটানে অলিভ অয়েলের কিছু চমকপ্রদ ব্যবহার, যা আপনার ত্বককে সম্পূর্ণ বদলে দেবে।

ময়শ্চারাইসিং মাস্কঃ

ময়শ্চারাইসিং মাস্কঃ

১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল, ১ চা চামচ মধু ও ১ চা চামচ দুধের সর বা ক্রীম ভালকরে মিশিয়ে, একটা ঘন ক্রীমের মতো করে তৈরি করে নিন। এই মিশ্রণটিকে ত্বকে ভালকরে মাসাজ করুন। ২০মিনিট রেখে, ঠান্ডা জল দিয়ে ভালকরে ধুয়ে ফেলুন।

নখের বৃদ্ধি উন্নত করতেঃ

নখের বৃদ্ধি উন্নত করতেঃ

১ টেবিল চামচ অলিভ অয়েলকে সামান্য গরম করুন। একটা তুলোর বলের সাহায্যে তেলটিকে নখে মাসাজ করুন। সারা রাত ঐভাবেই রেখে দিন। সকালেই আপনার নখগুলি সাংঘাতিক চকচকে হয়ে যাবে। নখের বৃদ্ধি উদ্দীপিত করতে, রোজ রাতে, অলিভ অয়েলের এই আয়ুর্বেদিক থেরাপিটি অনুসরণ করুন।

শুষ্ক ত্বকের প্রতিকারেঃ

শুষ্ক ত্বকের প্রতিকারেঃ

স্নান করে বেরোবার সাথেসাথেই, অল্প পরিমানে অলিভ অয়েলর সাথে কয়েক ফোঁটা ল্যাভেন্ডার অয়েল মিশিয়ে, ত্বকে ভাল করে মাসাজ করুন। খেয়াল করবেন, এই মিশ্রণটিকে সল্প পরিমানে ব্যবহার করতে হবে, যাতে এটি আপনার ত্বককে অতিরিক্ত তৈলাক্ত না করে দেয়। এই ভেষজ অলিভ অয়েল মাস্কটি সারাদিন ধরে আপনার ত্বককে শিশিরের মতো নরম রাখবে।

ডিটক্স বাথঃ

ডিটক্স বাথঃ

স্নানের জলে, ৫ ফোঁটা অলিভ অয়েল ও ৫ ফোঁটা চা গাছের অয়েল মেশান। ১৫ মিনিট ধরে ঐ জলে ত্বক ভিজিয়ে রাখুন এরপর স্নান করে নিন। অলিভ অয়েলের এই সাধারণ রূপটানটি আপনার ত্বককে সারাদিন ধরে, শিশুর ত্বকের মতো কোমল ও উজ্জ্বল রাখবে।

বডি লোশনঃ

বডি লোশনঃ

যদি আপনার ত্বক খুবই রুক্ষ হয়ে থাকে ও আপনি আপনার বডি লোশনের পুষ্টিগুণ বারাতে চান তবে এই সহজ কৌশলটি প্রয়োগ করুন! আপনার বডি লোশনে কয়েক ফোঁটা এক্সট্রা ভারজিন অলিভ অয়েল মিশিয়ে ভাল করে ঝাঁকিয়ে নিন ও আপনার বডি লোশনের মতো স্বাভাবিক ভাবেই ব্যবহার করুন।

মেক-আপ রিমুভারঃ

মেক-আপ রিমুভারঃ

একটি তুলোর প্যাডে কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েল নিন এবং মুখে ঘষতে থাকুন, যতোক্ষণ না মেক-আপ আলগা হয়ে আসে। এবার একটি পরিস্কার তুলোর প্যাড নিয়ে প্রক্রিয়াটি পুনরায় করুতে থাকুন, যতক্ষন না মেক-আপের অবশিষ্ঠাংশটুকু উঠে না আসে।

বডি স্ক্রাবঃ

বডি স্ক্রাবঃ

২ টেবিল চামচ অলিভ অয়েল এর সাথে সমপরিমান সৈন্ধব লবন মিশিয়ে নিন। ভাল করে মিশিয়ে এটিকে আপনার শরীরে আলতোভাবে সার্কুলার মোশনে ঘষতে থাকুন। ১০ মিনিট ধরে স্ক্রাব করে, ঠান্ডা জল দিয়ে ভালকরে ধুয়ে ফেলুন। আপনার ত্বকে প্রত্যক্ষ পরিবর্তন দেখতে সপ্তাহে একবার অলিভ অয়েলের এই ভেষজ স্ক্রাবটি ব্যবহার করুন।

ফাটা গোড়ালিঃ

ফাটা গোড়ালিঃ

১ চা চামচ প্রেট্রোলিয়াম জেলির সাথে কয়েক ফোঁটা অলিভ অয়েলে মিশিয়ে নিন। আপনার ফাটা গোড়ালিতে ভাল করে মাসাজ করুন। সুতির মোজা পরে নিন। সারা রাত এভাবেই রেখে দিন। সকাল বেলায় আপনার গোড়ালি খুবই নরম ও ফাটাভাব অনেকটাই সেরে উঠবে।

English summary
If you are using olive oil in your skin care routine diligently, you must be aware of what an elixir it can be! Beauty uses of olive oil are plenty!
Story first published: Saturday, October 29, 2016, 12:35 [IST]
Please Wait while comments are loading...