For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

সমুদ্র মন্থনে বাসুকি নাগকে ব্যবহার করা হয়েছিল রজ্জু হিসেবে, জানুন তাঁর সম্পর্কে কিছু অবাক করা তথ্য

|

আমরা প্রত্যেকেই দেখেছি যে, মহাদেবের গলায় সর্বক্ষণ একটি সাপ জড়িয়ে থাকে। তাঁর নাম বাসুকি। বাসুকি মহাভারত মহাকাব্যে উল্লিখিত সর্পকুলের রাজা অর্থাৎ নাগরাজ। তাঁর পিতা হলেন ঋষি কাশ্যপ এবং মাতা কদ্রুর। কিন্তু জানেন কি কেনই বা তিনি ভোলেনাথের গলায় থাকেন? যদি না জেনে থাকেন তাহলে বোল্ডস্কাই বাংলার এই আর্টিকেল থেকে জেনে নিন।

ভগবান শিবের আশীর্বাদ

ভগবান শিবের আশীর্বাদ

নাগরাজ বাসুকির বড় ভাই শেষ নাগ ভগবান বিষ্ণুর সেবক ছিলেন। একই সাথে বাসুকি ছিলেন ভোলেনাথের পরম ভক্ত। তাঁর ভক্তি, নিষ্ঠা ও বিশ্বাসে মহাদেব প্রসন্ন হয়ে আশীর্বাদ করেছিলেন।

ভগবান শিবের সাথে বাসুকি নাগের পূজা

ভগবান শিবের সাথে বাসুকি নাগের পূজা

বিশ্বাস করা হয় যে, কৈলাশ পর্বতের নিকটেই ছিল বাসুকির রাজ্য। ভগবান শিবের সাথে বাসুকি নাগও সমান পূজনীয়। এটাও বিশ্বাস করা হয় যে, নাগ জাতির লোকেরাই সর্বপ্রথম শিবলিঙ্গের পূজা করার প্রথা শুরু করেছিলেন।

সমুদ্র মন্থনে বাসুকির ভূমিকা

সমুদ্র মন্থনে বাসুকির ভূমিকা

হিন্দু পুরাণ অনুযায়ী, অমর হওয়ার জন্য যখন অমৃত পেতে দেবতা ও অসুররা মিলে সমুদ্র মন্থনের সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন, তখন নাগরাজ বাসুকি-কেই রজ্জু হিসেবে তাঁরা ব্যবহার করেছিলেন। ক্ষীরসাগরে সমুদ্রমন্থনের প্রক্রিয়াটি বেশ দীর্ঘ সময় ধরে চলেছিলো৷ এক্ষেত্রে মন্দর পর্বত মন্থনদণ্ড হিসেবে ব্যবহৃৎ হয়েছিলো৷

বাসুকির কারণেই ভীম দশ হাজার হাতির শক্তি অর্জন করেছিলেন

বাসুকির কারণেই ভীম দশ হাজার হাতির শক্তি অর্জন করেছিলেন

নাগরাজ বাসুকি পঞ্চ পাণ্ডবের মধ্যে ভীমকে দশ হাজার হাতির শক্তি বরদান দিয়েছিলেন। দুর্যোধন ভীমের সঙ্গে প্রতারণা করে তাঁকে বিষ খাইয়ে নদীতে ফেলে দিয়েছিলেন এবং ভীম নাগলোকে পৌঁছে গিয়েছিলেন। সেখানে বাসুকি নাগ ভীমের শরীর থেকে বিষ বার করে তাঁকে দশ হাজার হাতির শক্তি বরদান দিয়েছিলেন।

আরও পড়ুন :শ্রাবণ মাসে এবার পাঁচটি সোমবার, এই বিধি মেনে মহাদেবের পুজো করলে মিলবে সুফল

English summary

Lesser Known Facts And Mystery About Vasuki Naag

Lesser Known Facts And Mystery About Vasuki Naag. Read on.
X