For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

মা হতে চলেছেন? কেন মদ্যপান থেকে দূরে থাকা প্রয়োজন?

|

নতুন মা হওয়া এক নতুন অধ্যায়। জীবনের এই প্রান্তে এসে নতুন আর এক প্রাণের জন্ম দেওয়া এবং তাকে পৃথিবীর আলো দেখানো এক নতুন অভিজ্ঞতার কারণ হয়ে দাঁড়ায় যে কারুর কাছে। বাবার দিক থেকে যেমন নানা দায়িত্ব চলে আসে তেমনি মায়ের উপরেও অসংখ্য দায়িত্ব এবং কর্তব্য চলে আসে। সাথে আসে নানা বাধা নিষেধ। নিজের জীবন যাত্রা এবং খাদ্যাভ্যাসের উপর নিয়ন্ত্রণ।

এতদিন অনিয়মিত জীবন থাকলেও পরিবারের নতুন সদস্যের আসার জন্যে এবং তাকে ভালো রাখার জন্যে নিজের অনেক অভ্যেস ত্যাগ করতে হয়। যার মধ্যে অন্যতম হলো খাওয়া দাওয়া নিয়ন্ত্রণ এবং যেকোনো রকম নেশা থেকে নিজেকে সরিয়ে রাখা। যার মধ্যে অন্যতম মদ্যপান। চিকিৎসাবিজ্ঞান বলছে গর্ভধারণ করাকালীন এই মদ্য পান শিশু এবং মায়ের প্রভূত ক্ষতি করতে পারে। আজকের প্রতিবেদনে সেই দিক তুলে ধরার চেষ্টা করা হলো।

মা হতে চলেছেন? কেন মদ্যপান থেকে দূরে থাকা প্রয়োজন?

নতুন মা হতে চলেছেন তারা অবশ্যই মদ্য পান করা থেকে বিরত থাকুন। অন্তত যতদিন না আপনার শিশু ভূমিষ্ঠ হচ্ছে ততদিন পর্যন্ত। যা নতুন মা হওয়ার পরিকল্পনা করছেন তারাও এই অভ্যাস ত্যাগ করুন। কম খাই বা সারাদিনে এক গ্লাস মদ্যপান ও আপনার শরীরের এবং আপনার বাচ্চার যথেষ্ট ক্ষতি করতে সক্ষম। শারীরিক বিকাশ থেকে শুরু করে মস্তিষ্কের গঠনের ক্ষেত্রেও মদ্যপান যথেষ্ট হানিকর হতে পারে।

গর্ভধারণ করার পর একজন মা যখন মদ্যপান করে তখন সেই মদ তার অ্যাম্বিলিকাল কর্ড দিয়ে ভ্রূণ অব্দি পৌঁছে যায়। যার ফলে এই মদ তখন গর্ভস্থ বাচ্চার মস্তিষ্ক, স্নায়ুতন্ত্রের ক্ষতিসাধন করে। এমনকি বাচ্চার চোখ, কান, নাক এবং অন্যান্য অঙ্গের ক্ষতিসাধন করে এবং সঠিক গঠন হতে বাধা দেয়। গর্ভধারণের পুরো সময়টা যদি কেউ খেতে থাকে তাহলে বাচ্চার স্বাভাবিক বিকাশ হয়না ফলে প্রি ম্যাচিওর বাচ্চা জন্মানোর সম্ভাবনা থাকে।

কোন মদ ভালো না

অনেকে ভাবেন যে অমুক মদ খাওয়া ভালো বা তমুক খাওয়া ভালো নয়। এই ব্যাপারে চিকিৎসক বলছেন যে কোন মদ জাতীয় পানীয় ভালো না। এবং কম বা বেশি কোন পরিমাণই ভালো না। অনেকে ভাবেন গর্ভধারণ করার শেষ পর্যায়ে খাওয়া যেতে পারে কারণ ওই সময় গর্ভস্থ বাচ্চার শারীরিক গঠন প্রায় সম্পূর্ণ হয়ে যায়। কিন্তু এই ধারণা একেবারেই ভুল। কারণ সেই সময় মদ্যপান করলেও তা বাচ্চার মস্তিষ্কে প্রভাব ফেলে কারণ শরীরের অন্যান্য অঙ্গের তুলনায় মস্তিষ্ক তখনও অনেকটাই কম পূর্ণতা পায়। প্রায় ২ শতাংশ থেকে ৫ শতাংশ বাচ্চা দেখা যায় এই অতিরিক্ত মদ্যপানের শিকার।

মা হতে চলেছেন? কেন মদ্যপান থেকে দূরে থাকা প্রয়োজন?

কিভাবে শরীরে যায়

অ্যালকোহল আম্বিলিকাল কর্ডের মাধ্যমে প্লাসেন্টা দিয়ে শিশুর শরীরে যায়। গর্ভাবস্থায় থাকাকালীন প্লাসেন্টা শিশুর পুষ্টির অন্যতম উৎস। ফলে মা মদ্যপান করলে তা সহজেই প্লাসেন্টা দিয়ে বাচ্চার শরীরে ঢুকে তার বেড়ে ওঠা স্বাভাবিক ভাবে বাধাপ্রাপ্ত করে। তাই শুধুমাত্র মায়ের নয়, বাচ্চা হওয়ার সময়ে বাবা এবং মা দুজনকেই মদ্যপান ছেড়ে দেওয়া উচিত।

কী কী ক্ষতি হতে পারে

নানা রকম ক্ষতি বাচ্চার শরীরের উপর হতে পারে। সব কারণ এবং সব ক্ষতি এক জায়গায় বলা সম্ভব না। তবে যেগুলো এক নজরে শুনতে এবং জানতে পারা যায় তার কিছু দিক এখানে বলা যেতে পারে। কী কী ক্ষতি হতে পারে গর্ভধারণ করাকালীন মদ খেলে, তার কিছু এখানে তুলে ধরা হল;

-জন্মানোর সময় কম ওজন,

-সময়ের আগে জন্মানো শিশু,

-মিসক্যারিয়েজ,

-অঙ্গ প্রত্যঙ্গের অনিয়মিত গঠন,

- কথা বলায় জড়তা,

- কানে না শোনা বা কম দৃষ্টি শক্তি

English summary

মা হতে চলেছেন? কেন মদ্যপান থেকে দূরে থাকা প্রয়োজন? | What are the effects and dangers of alcohol during pregnancy?

What are the effects and dangers of alcohol during pregnancy?
Story first published: Friday, May 24, 2019, 10:45 [IST]
X