১০-টি পদ্ধতি আপনার বাচ্চার মুখ থেকে লালা পড়া বন্ধ করার

By: Riddhi Ghosh
Subscribe to Boldsky

বাচ্চারদের মুখ থেকে লালা পড়ে, সেটা আমরা সবাই জানি। কিছু বাচ্চা হয়ত অন্যদের থেকে বেশি লালা ঝরায়। কিন্তু তার জন্য চিন্তার কিছু নেই।সব বাচ্চাই লালা ফেলে, এবং অনেকটাই। মুখ দিয়ে টপটপ করে লালা পড়ে, আর ভাগ্যক্রমে গলায় ঝোলানো বিবে সেটা ধরা পড়ে।

নাহলে নিজের ফেলা থুতুতে, আপনার সন্তান ভিজে একাকার হত। আপনার বাচ্চার মুখ থেকে লালা ঝরা বন্ধ করার কিছু কায়দা জানা দরকার, যা আপনি মা হিসেবে ব্যবহার করে দেখতে পারেন। সাধারণত বাচ্চাদের দুধের দাঁত, ছয় থেকে আট মাসের মাথায় বেরোতে শুরু করে।

অনেক বাচ্চা আবার তিন মাসের মাথা থেকেই মুখ থেকে লালা ঝরাতে শুরু করে দেয়। যদি আপনার বাচ্চার দাঁত ওঠার সময় হয়নি, অথচ মুখ থেকে অনবরত লালা বেরোতে থাকে, তাহলে এই উপায়গুলো চেষ্টা করে দেখুন, কাজে লাগবে। এগুলো আপনার বাচ্চার দাঁত বেরোলেও প্রয়োগ করা যায়।

টুথব্রাশ দিয়ে

টুথব্রাশ দিয়ে

একটা ইলেকট্রিক টুথব্রাশ দিয়ে আপনার বাচ্চার মাড়িটা, দিনে দুবার হালকা করে ঘষে দিন। এতে মুখের অনুভূতি বাড়ে, যার ফলে ও মুখে থুতু আসার ব্যাপারটা অনুভব করে। এরপর থেকে নিজে থেকেই থুতুটা গিলে নিতে শিখে যাবে।

স্ট্রয়ের মজা

স্ট্রয়ের মজা

বাচ্চাকে চুমুক দিয়ে খাওয়ার কাপ সরিয়ে, এমন একটা স্ট্র সমেত কাপ দিন, যেটা থেকে চট করে কিছু ছলকে পড়বে না। স্ট্র দিয়ে টানতে শিখলে, ওর জিভের ওপর নিয়ণ্ত্রণ ও জোর, দুটোই বাড়বে। এতে ও শিথে যাবে কি করে মুখের থুতুটা গিলে নিতে হয়।

কিছু একটা চিবোতে দিন

কিছু একটা চিবোতে দিন

কিছু একটা হালকা চিবোতে দিন, যেটা দিয়ে ওর মাড়িতে আরামও হয়। এই সাময়িক ব্যবহারের জিনিসটি, ওর লালা ফেলার অভ্যেসটি বন্ধ করে দেবে।

একটু জেলির ব্যবহার করুন

একটু জেলির ব্যবহার করুন

বাচ্চার থুতনিতে কোনো একটা পেট্রোলিয়াম জেলি ব্যবহার করুন। এটা থুতু গড়িয়ে পড়া আটকাবে। এছাড়া ত্বকেও কোনো রকমের চুলকানি হতে দেবে না।

মুছে ফেলুন

মুছে ফেলুন

সবচেয়ে ভাল উপায়, একটা নরম কাপড় দিয়ে, যখনই আপনার বাচ্চার মুখ থেকে থুতু বেরোবে, সেটা মুছে দিন। খেয়াল রাখবেন খুব জোরে যেন থুতনি ঘষে দেবেন না, যাতে ও ব্যথা পায়। যখন আপনি বারবার মুখ মোছাবেন, ও আপনা থেকেই বিরক্ত হয়ে, পরের বার থুতু ফেলার আগেই গিলে নেবে।

হালকা ফুঁ দেওয়া

হালকা ফুঁ দেওয়া

বাচ্চার মুখে হালকা করে ফুঁ দিন, যাতে ওর মনটা অন্যদিকে যায়। যদিও এটা খুব বেশি কাজের হয়না, তবুও চেষ্টা করে দেখতে ক্ষতি কি!

চুষিকাঠিটা লুকিয়ে রাখুন

চুষিকাঠিটা লুকিয়ে রাখুন

চুষিকাঠিটা সরিয়ে দিন, বা যতটা সম্ভব ব্যবহার কম করতে দিন।

চুষিকাঠিটা সরিয়ে দিন, বা যতটা সম্ভব ব্যবহার কম করতে দিন।

চুষিকাঠিটা সরিয়ে দিন, বা যতটা সম্ভব ব্যবহার কম করতে দিন।

মুখের কিছু ব্যায়াম আপনার বাচ্চার লালা ফেলার অভ্যেসটা শুধরোতে পারে। বাচ্চাকে শেখান, চোয়ালটাকে ওপর নিচ করতে। এটা একটা সহজ উপায় যাতে ওর মুখটা সব সময় খোলা থাকবে না।

ঘুমের সময়

ঘুমের সময়

যদি আপনার বাচ্চা, ঘুমের মধ্যে মুখ থেকে খুব লালা ফেলে, তাহলে ওর ঘুমোনোর ভঙ্গীটা পালটে দিন। পাশ ফিরে শোওয়ার থেকে, পিঠে চিৎ হয়ে শুলে, সেটা থুতু পড়া আটকায়।

বাচ্চাকে শেখান

বাচ্চাকে শেখান

আপনার পুঁচকেটাকে শেখান, যে যখনই ওর মুখ থেকে খুব থুতু বেরোয়, সেটা টেনে নিতে নিজের মুখের ভেতরেই। এটা সবচেয়ে ভাল উপায়, মুখ থেকে লালা পড়া বন্ধ করার।

English summary
Babies drool, we all are aware of it. Some babies even drool more than others. But, this is nothing to worry about. In general, all babies drool and they drool a lot. Due to this constant baby slobbering, thanks to bibs which leaves babies dry at least for sometime in the day. If not for this piece of cloth, your baby will be loaded and wet in his own spit.
Story first published: Tuesday, December 20, 2016, 11:20 [IST]
Please Wait while comments are loading...