For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

সুস্বাস্থ্যের চাবিকাঠি চুম্বন, এর উপকারিতা জানলে অবাক হবেন!

|

চুম্বন যে কেবলমাত্র প্রেমের সম্পর্ককে মধুময় করে তোলে তাই কিন্তু নয়, বরং আমাদের স্বাস্থ্যের পক্ষেও দারুণ উপযোগী চুম্বন। হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। বিশেষজ্ঞদের মতে, চুম্বনের বেশ কিছু উপকারি দিক রয়েছে যা শারীরিক ও মানসিক স্বাস্থ্যের জন্য যথেষ্ট কার্যকরি।

চুম্বনের ফলে দাঁত ভালো থাকে, রক্তচাপও নিয়ন্ত্রণে থাকে। এছাড়াও চুম্বনের আরও অনেক গুণ আছে। তাহলে আসুন জেনে নেওয়া যাক, চুম্বনের অন্যান্য উপকারিতাগুলি সম্পর্কে।

১) চুম্বন উদ্বেগ কমায়

১) চুম্বন উদ্বেগ কমায়

চুম্বন মনকে শান্ত করার পাশাপাশি, মানসিক চাপ দূর করতে দুর্দান্ত কার্যকর। চুম্বন শরীরের কর্টিসল নামের স্ট্রেস হরমোনের নিঃসরণ কমাতে সহায়তা করে। যার ফলে উদ্বেগ কমে এবং অবসাদ থেকে মুক্তি পাওয়া যায়।

২) হ্যাপি হরমোনের নিঃসরণ বৃদ্ধি করে

২) হ্যাপি হরমোনের নিঃসরণ বৃদ্ধি করে

চুম্বনের ফলে মস্তিষ্ক অক্সিটোসিন, ডোপামিন এবং সেরোটোনিনের মতো রাসায়নিক নির্গত করে, যা মনকে আনন্দিত করে এবং উৎফুল্লতায় ভরিয়ে তোলে। এগুলি 'হ্যাপি হরমোন' নামেও পরিচিত।

৩) দাঁতের স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে ভালো

৩) দাঁতের স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রে ভালো

দাঁতের স্বাস্থ্যের ক্ষেত্রেও চুম্বন অত্যন্ত উপকারি। চুম্বন লালা গ্রন্থিগুলিকে উদ্দীপিত করে, যা লালা উৎপাদন বাড়াতে সাহায্য করে। এর ফলে দাঁতের আস্তরণ সৃষ্টিকারী পদার্থগুলি জমতে পারে না। ফলে দন্তগহ্বর তৈরি হতে পারে না।

৪) সম্পর্ককে মজবুত করতে সহায়তা করে

৪) সম্পর্ককে মজবুত করতে সহায়তা করে

ভালোবাসায় পূর্ণ চুম্বনে অক্সিটোসিন নামক হরমোন নিঃসৃত হয়, যা 'লভ হরমোন' নামেও পরিচিত। বিভিন্ন গবেষণায় দেখা গেছে যে, এই হরমোনটি একে অপরের প্রতি আস্থা গড়ে তুলতে সহায়তা করে। যার ফলে দুজনের মধ্যেকার সম্পর্ক আরও মজবুত হয়।

৫) রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে

৫) রক্তচাপ নিয়ন্ত্রণ করে

চুম্বন হৃদস্পন্দনকে বৃদ্ধি করে। যার ফলে রক্তনালীগুলি প্রসারিত হয় এবং রক্তের প্রবাহ বৃদ্ধি পায়। যার ফলে রক্তচাপ হ্রাস পায়। বিশেষজ্ঞরা এও জানাচ্ছেন যে, চুম্বনে নিয়ন্ত্রণে থাকে কোলেস্টেরলের পরিমাণও।

৬) ক্যালোরি ঝরাতে সহায়তা করে

৬) ক্যালোরি ঝরাতে সহায়তা করে

হ্যাঁ, ঠিকই পড়েছেন। চুম্বন ক্যালোরি ঝরাতেও অত্যন্ত সহায়ক। কতটা আবেগের সাথে চুম্বনের করছেন, তার উপর নির্ভর করে প্রতি মিনিটে প্রায় ২ থেকে ২৬ ক্যালোরি পর্যন্ত ঝরানো যেতে পারে। বৃদ্ধি পায় বিপাক হার। এটি ওজন হ্রাসের সাথে সরাসরি যুক্ত নাও হতে পারে তবে এটি অবশ্যই আপনাকে শান্ত রাখবে এবং মানসিক চাপ কমিয়ে দেবে, ফলস্বরূপ আপনাকে সুখী থাকতে সাহায্য করবে।

৭) ইমিউনিটি বৃদ্ধি পায়

৭) ইমিউনিটি বৃদ্ধি পায়

চুম্বন থেকে কিন্তু ইমিউনিটিও বৃদ্ধি পায়। মুখের ভেতর ৭০০-র থেকেও বেশি ধরনের ব্যাকটেরিয়া উপস্থিত! চুম্বনের ফলে হওয়া লালা বিনিময়ের মাধ্যমে, শরীর নতুন ব্যাক্টেরিয়ার সাথে পরিচিত হয়। যার ফলে শরীরের রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা আরও শক্তিশালী হয়ে ওঠে!

৮) টানটান মুখমণ্ডল

৮) টানটান মুখমণ্ডল

মুখমণ্ডলের সৌন্দর্য বৃদ্ধি করতেও জুড়ি মেলা ভার চুম্বনের! চুম্বনের সময় মুখের ৩০টিরও বেশি মাংস পেশির সংকোচন ও প্রসারণ হয়, কাজেই চুম্বনের ফলে মুখের অতিরিক্ত মেদ ঝরে যায়। নিয়মিত চুম্বন, আপনার মুখ এবং গলার জন্য একটি ওয়ার্কআউটও বলতে পারেন। মুখের পেশিগুলির সংকোচন ও প্রসারণের ফলে কোলাজেন উৎপাদন বাড়ে, যার ফলে ত্বক হয় টানটান। ত্বকে তারুণ্যতা বজায় থাকে।

৯) সেক্স ড্রাইভ বাড়ায়

৯) সেক্স ড্রাইভ বাড়ায়

রোমান্টিক কিস মনে যৌন মিলনের ইচ্ছা জাগায়। তাছাড়া, লালাতে টেস্টোস্টেরন রয়েছে, যা একটি সেক্স হরমোন। এটি যৌন উত্তেজনায় মুখ্য ভূমিকা পালন করে।

English summary

Reasons why kissing is good for health in bengali

Here are a few health benefits that prove why you should kiss more often. Read on.
X