For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

কোভিড-১৯ : জরুরি ভিত্তিতে 'কোভাক্সিন' এবং 'কোভিশিল্ড' ব্যবহারে সবুজ সংকেত, জানুন কবে এবং কীভাবে পাওয়া যাবে

|

করোনার বিরুদ্ধে লড়াই করার জন্য 'কোভিশিল্ড' এবং 'কোভ্যাক্সিন' কারা কারা পাবেন, এটি কীভাবে পাওয়া যাবে, কখন পাওয়া যাবে, এই ভ্যাকসিনের কোনও পার্শ্বপ্রতিক্রিয়া হলে কিনা এবং সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নটি হল, এই ভ্যাকসিন আমাদের মতো সাধারণ মানুষের কাছে কবে, কীভাবে পৌঁছবে? এই সমস্ত প্রশ্নের জবাব দিতে রবিবার কেন্দ্রীয় সরকার একটি ভিডিয়ো ট্যুইট করেছেন। এই ভিডিয়োটিতে টিকা কর্মসূচী সম্পর্কে প্রায় সমস্ত প্রশ্নেরই উত্তর পাওয়া যাবে। কেন্দ্রীয় স্বাস্থ্য মন্ত্রকের প্রকাশিত ভিডিয়োতে, এইমস-এর ডিরেক্টর রণদীপ গুলেরিয়া টিকা কর্মসূচির পুরো প্রক্রিয়া সম্পর্কে বিশদ বিবরণ দিয়েছেন এবং করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন সম্পর্কে বহু গুরুত্বপূর্ণ প্রশ্নের উত্তর দিয়েছেন।

করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিনের টিকাকরণ কবে শুরু হবে?

কেন্দ্রীয় সরকার দ্বারা দুটি ভ্যাকসিন অনুমোদনের পরেই এই টিকা কার্যক্রম শুরু হতে পারে। কোভিশিল্ড এবং কোভ্যাক্সিন ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া দ্বারা অনুমোদিত হয়েছে।

সবাই কী একসাথে ভ্যাকসিন পাবে?

কেন্দ্রীয় সরকার প্রদত্ত তথ্য অনুসারে, প্রথম স্বাস্থ্যকর্মী এবং ফ্রন্টলাইন কর্মীদের টিকা দেওয়া হবে। এর পরে, ৫০ বছরের উপরে সিরিয়াস রোগীদের টিকা দেওয়া হবে। প্রথম এবং দ্বিতীয় পর্যায়ের পরে ভ্যাকসিনের প্রাপ্যতা বিবেচনা করে কেন্দ্রীয় সরকার সিদ্ধান্ত নেবে।

টিকা দেওয়া কী বাধ্যতামূলক?

করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন দেওয়া ঐচ্ছিক, তবে করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিনের শিডিউল পুরো নেওয়ার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে!

করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিনের কতগুলি ডোজ নিতে হবে এবং কত দিনের গ্যাপ থাকবে?

ভ্যাকসিনের দুটি ডোজের মধ্যে ২৮ দিনের ব্যবধান প্রয়োজন। এটি ভ্যাকসিন নেওয়া সকলের খেয়াল রাখতে হবে।

আরও পড়ুন : আপনার মনে কি নোভেল করোনা ভাইরাস নিয়ে কোনও প্রশ্ন আছে? দেখে নিন করোনা ভাইরাস সম্পর্কিত সমস্ত তথ্য

শরীরে কবে অ্যান্টিবডি তৈরি হবে?

করোনা ভাইরাসের দ্বিতীয় ডোজ নেওয়ার সাধারণত দুই সপ্তাহ পরে দেহে প্রতিরক্ষামূলক অ্যান্টিবডি বিকাশ ঘটে।

করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিনের সম্ভাব্য পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলি কী কী?

সাধারণত ভ্যাকসিনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়াগুলি হল, হালকা জ্বর এবং শরীরে হালকা ব্যথা হওয়া। কেন্দ্র রাজ্যগুলিকে ভ্যাকসিনের পার্শ্ব প্রতিক্রিয়া মোকাবিলায় প্রস্তুত থাকতে বলেছে।

টিকাকরণ-এর জন্য ভ্যাকসিনের নির্বাচন কীভাবে হয়েছিল?

ড্রাগ রেগুলেটর এই ভ্যাকসিনের ক্লিনিকাল ডেটা পরীক্ষা করেছে এবং গবেষণার পরে কম্পানিকে ব্যবহারের জন্য অনুমোদন দিয়েছে। অনুমোদিত ভ্যাকসিন সম্পূর্ণ কার্যকর এবং নিরাপদ। সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ হল, কোনও একজন ব্যক্তিকে ভ্যাকসিন দেওয়ার পরে শিডিউলটি শেষ করা উচিত।

আমি কীভাবে জানতে পারব যে আমি টিকা নিতে পারব কিনা?

প্রাথমিক পর্যায়ে, করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন টার্গেট গ্রুপের জন্য চালু করা হবে। যোগ্য প্রার্থীরা মোবাইলে মেসেজ পাবেন, যার মাধ্যমে তাদের ভ্যাকসিন কেন্দ্র এবং সময় সম্পর্কে অবহিত করা হবে। রেজিস্ট্রেশনে যাতে কোনও বাধা না আসে সেজন্য এই পুরো প্রক্রিয়াটি গ্রহণ করা হবে।

রেজিস্ট্রেশন ছাড়া টিকা নেওয়া যাবে?

না, টিকাকরণের জন্য রেজিস্ট্রেশন করা বাধ্যতামূলক।

টিকার জন্য কোন কোন ডকুমেন্টের প্রয়োজন হবে?

করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিনের জন্য রেজিস্ট্রেশনে সময় ড্রাইভিং লাইসেন্স, স্বাস্থ্য বীমা স্মার্ট কার্ড, প্যান কার্ড, পাসবুক, পাসপোর্ট, সার্ভিস আইডি কার্ড বা ভোটার কার্ড দেখানোর প্রয়োজন হতে পারে।

আমার কাছে যদি কোনও ফটো আইডি না থাকে, তাহলে?

ভ্যাকসিন নেওয়া ব্যক্তির জন্য রেজিস্ট্রেশন এবং ভেরিফিকেশনের সময় ফটো আইডি জমা দেওয়া প্রয়োজনীয়!

টিকাদান শেষ না হওয়া পর্যন্ত আমি কী আপডেট পেতে থাকব?

হ্যাঁ, করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিন নেওয়ার জন্য রেজিস্ট্রেশন করার পরে, আপনি মোবাইলে এসএমএসের মাধ্যমে প্রতিটি তথ্য পেতে থাকবেন। যেমন - দ্বিতীয় ভ্যাকসিন কবে, কখন দেওয়া হবে এবং কীভাবে আপনি QR কোড ভিত্তিক শংসাপত্র পাবেন।

করোনা ভাইরাস পজিটিভ ব্যক্তি কী টিকা নিতে পারে?

যে সমস্ত ব্যক্তি করোনা ভাইরাস পজিটিভ, তাদের টিকাকরণ সেন্টারে সংক্রমণ ছড়ানোর ঝুঁকি রয়েছে। তাছাড়া এখনও পর্যন্ত জানা যায়নি যে, এই পরিস্থিতিতে ভ্যাকসিন কতটা কার্যকর হবে। এই কারণে কোনও ভাইরাস-পজিটিভ ব্যক্তির কমপক্ষে ১৪ দিন অপেক্ষা করা উচিত, যাতে তার শরীর থেকে করোনা ভাইরাসের লক্ষণগুলি দূর হয়।

করোনা ভাইরাস সংক্রমণ থেকে সেরে ওঠা কোনও ব্যক্তির কী ভ্যাকসিন নেওয়া প্রয়োজনীয়?

হ্যাঁ, করোনা ভাইরাস ভ্যাকসিনের শিডিউল সম্পূর্ণ করার পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। ভ্যাকসিন গ্রহণ করা আপনাকে আরও ভাল প্রতিরোধ ব্যবস্থা তৈরি করতে সহায়তা করবে।

ক্যান্সার, সুগার এবং উচ্চ রক্তচাপের ওষুধ গ্রহণ করছেন, এমন ব্যক্তিদের কী টিকা দেওয়া যেতে পারে?

হ্যাঁ, গুরুতর অসুস্থ রোগীদের জন্য ভ্যাকসিন নেওয়া খুব গুরুত্বপূর্ণ। এটি জানা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ যে, ওষুধ খাওয়ার ফলে ভ্যাকসিনের কোনও প্রভাব পড়বে না।

এমন কোনও পরামর্শ যেটা টিকাকরণ কেন্দ্রে অনুসরণ করা উচিত

হ্যাঁ, ভ্যাকসিন দেওয়ার পরে আধ-এক ঘণ্টা বিশ্রাম নেওয়ার জন্য বলা হবে। যদি আপনার কোনও সমস্যা মনে হয়, তবে অবিলম্বে সেটি জানান।

এত দ্রুত তৈরি এবং পরীক্ষা করা টিকা কী নিরাপদ হবে?

ভারতে ভ্যাকসিন তখনই অনুমোদিত হয়েছে, যখন ড্রাগ কন্ট্রোলার জেনারেল অফ ইন্ডিয়া এটির সুরক্ষা এবং কার্যকারিতা সম্পর্কিত ডেটা পরীক্ষা করেছেন। ভ্যাকসিন অনুমোদনের জন্য স্ট্যান্ডার্ড প্রোটোকল অনুসরণ করা হয়েছে।

English summary

Questions and Answer About Covid-19 Vaccinations In India in Bengali

Here are all the queries answered by All India Institute of Medical Sciences (AIIMS) director Dr Randeep Guleria. Read on.
X