For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

সুস্থ থাকতে হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখা খুবই জরুরি, দেখে নিন কী করবেন

|

শারীরিক ও মানসিকভাবে সুস্থ থাকতে হরমোন অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। হরমোন হল মূলত অন্তঃক্ষরা গ্রন্থি থেকে নিঃসৃত এক ধরনের রাসায়নিক, যা রক্তের মাধ্যমে দেহের অঙ্গ-প্রত্যঙ্গগুলিতে পৌঁছে শারীরিক ক্রিয়াকলাপ স্বাভাবিক রাখতে সহায়তা করে। তার ফলেই খিদে পায়, ঘুম হয়, ত্বক ঠিক থাকে, মেজাজ ভাল থাকে, প্রজনন ক্ষমতাও ঠিক থাকে। কিন্তু অনেক সময় হরমোনের ক্ষরণ কম বা বেশি মাত্রায় হয়। আর তখনই দেখা দেয় নানান সমস্যা। বলা হয় হরমোনাল লেভেল ঠিক নেই।

তবে হরমোনের ভারসাম্যহীনতার কারণে শরীরের নানা ধরনের সমস্যা দেখা দেয়। তবে ওষুধ খাওয়া, স্বাস্থ্যকর জীবনযাপন ও খাওয়াদাওয়ার মাধ্যমে হরমোনের ইমব্যালান্স সহজেই সামাল দেওয়া যায়। আসুন জেনে নেওয়া যাক, হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখতে কী করবেন -

হরমোনের ভারসাম্যহীনতার লক্ষণগুলি কী কী?

হরমোনের ভারসাম্যহীনতার লক্ষণগুলি কী কী?

হরমোনের ভারসাম্যহীনতার সাধারণ লক্ষণগুলি হল - ওজন বৃদ্ধি বা ওজন হ্রাস হওয়া, ঘুমের সমস্যা, রক্তচাপ এবং হার্ট রেট পরিবর্তন, বিরক্তি, বিষণ্নতা, উদ্বেগ, মুড পরিবর্তন, ক্লান্তি, ক্ষুধা পরিবর্তন, সেক্স ড্রাইভে পরিবর্তন, প্রভৃতি।

১) পর্যাপ্ত প্রোটিন জাতীয় খাদ্য খান

১) পর্যাপ্ত প্রোটিন জাতীয় খাদ্য খান

সুস্থ থাকতে পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিন গ্রহণ করা অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। নিয়মিত প্রোটিন জাতীয় খাদ্যের গ্রহণ, হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখতে সহায়তা করে। মাছ, চিকেন ব্রেস্ট, ডিম, ডাল, মসুর ডাল, দুধ প্রভৃতি আপনার খাদ্যতালিকায় অন্তর্ভুক্ত করতে পারেন। প্রোটিন শুধুমাত্র প্রয়োজনীয় অ্যামিনো অ্যাসিডই সরবরাহ করে না, এর পাশাপাশি পর্যাপ্ত পরিমাণে প্রোটিন গ্রহণ পেপটাইড হরমোনের উৎপাদন বাড়ায়, যা প্রোটিন হরমোন নামেও পরিচিত। পেপটাইড হরমোন বিভিন্ন শারীরবৃত্তীয় প্রক্রিয়া নিয়ন্ত্রণে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে, যেমন - শারীরিক ও মানসিক বৃদ্ধি, এনার্জি, মেটাবলিজম, ক্ষুধা, স্ট্রেস এবং প্রজনন।

২) নিয়মিত শরীরচর্চা করুন

২) নিয়মিত শরীরচর্চা করুন

শরীরচর্চা কেবলমাত্র ওজন কমানো বা শারীরিক গঠন ঠিক রাখার জন্যই নয়, পাশাপাশি এটি হরমোনের ভারসাম্য বজায় রাখতেও গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। তাছাড়া, শরীরচর্চা করলে পেশীতে রক্ত ​​প্রবাহ ভাল হয়। ওজন বৃদ্ধিও হরমোনের ভারসাম্যহীনতার সঙ্গে সম্পর্কিত। তাই ওজন নিয়ন্ত্রণে রাখাও অত্যন্ত জরুরি।

৩) পর্যাপ্ত ঘুম

৩) পর্যাপ্ত ঘুম

পর্যাপ্ত ঘুমের অভাব হরমোনের ভারসাম্যহীনতার অন্যতম বড় কারণ। তাছাড়া, ঠিকমতো ঘুম না হলে শরীরের স্বাভাবিক কার্যকারিতা ব্যাহত হয়, হরমোন নিঃসরণে খারাপ প্রভাব পড়ে, ফলে বিভিন্ন ধরনের শারীরিক সমস্যা হয় এবং প্রায়ই মেজাজ খিটখিটে হতেও দেখা যায়। তাই প্রতিদিন কমপক্ষে ৭-৮ ঘণ্টা ঘুমানোর চেষ্টা করুন।

৪) অন্ত্রের যত্ন নিন

৪) অন্ত্রের যত্ন নিন

গবেষণা অনুসারে, অন্ত্রের উপকারি ব্যাকটেরিয়া দ্বারা অনেক হরমোন উৎপাদিত হয়। তাই অন্ত্রকে সুস্থ রাখতে সুষম খাদ্য খান, প্রচুর পরিমাণে ফলমূল, শাকসবজি খাওয়ার চেষ্টা করুন।

৫) পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন বি গ্রহণ করুন

৫) পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন বি গ্রহণ করুন

বি গ্রুপের ভিটামিন মেজাজ ঠিক রাখতে এবং শরীরে এনার্জির যোগান দিতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করে। বি-কমপ্লেক্স সাপ্লিমেন্ট গ্রহণ করলে স্ট্রেস হরমোন নিয়ন্ত্রণ করতে সাহায্য করে। তাই নিয়মিত পর্যাপ্ত পরিমাণে ভিটামিন বি গ্রহণ করার চেষ্টা করুন।

Disclaimer : এই আর্টিকেলটি সাধারণ তথ্যের উপর ভিত্তি করে লেখা। কোনও কিছু করার আগে অবশ্যই চিকিৎসকের সঙ্গে পরামর্শ করবেন।

English summary

Natural Ways to Balance Your Hormones In Bengali

Here are five natural ways to balance your hormones. Read on.
X
Desktop Bottom Promotion