For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

জাতীয় চিকিৎসক দিবস ২০২০ : এই শারীরিক লক্ষণগুলি কখনোই চিকিৎসকের কাছে গোপন করবেন না, তাহলেই বিপদ!

|

কখনও আমরা অভিযোগ করি তাঁদের বিরুদ্ধে, আবার কখনও কোনও বিপদে পড়লে সবার আগে তাঁদের কাছেই ছুটে যাই। তাঁরা ছাড়া সমগ্র মানবজাতি অচল। আজ তাঁরা আছেন বলেই আমরা সুস্থভাবে বেঁচে আছি। নিশ্চয়ই বুঝতে পারছেন কাদের কথা বলছি, হ্যাঁ তাঁরা হলেন চিকিৎসক বা ডাক্তার। সমাজের জরুরী বিভাগে কাজ করা এক অন্যতম যোদ্ধা। পৃথিবীতে ডাক্তারদের প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে আমরা সবাই অবগত। তাঁদের ওপর নির্ভরশীল কোটি কোটি মানুষের প্রাণ। যখন আমরা জীবন-মৃত্যুর লড়াইয়ে হেরে যেতে শুরু করি, তখন আমাদের জয়ী করার জন্য চিকিৎসকরাই পাশে এসে দাঁড়ায়। তাই, মানব সমাজের প্রতি তাঁদের দায়বদ্ধতা ও অবদানকে শ্রদ্ধা জানাতেই প্রতিবছর ১ জুলাই দেশজুড়ে পালিত হয় ন্যাশনাল ডক্টরস ডে বা জাতীয় চিকিৎসক দিবস।

অতিমারি করোনা ভাইরাসের সময় সবাই যখন আতঙ্কে ওষ্ঠাগত, তখন সমস্ত রোগীর সেবা করতে ও সুস্থ করে তুলতে এগিয়ে এসেছেন এই ডাক্তার, নার্সরাই। কখনোই পিছুপা হননি তাঁরা। তাই, কোভিড মোকাবিলায় নিরন্তর কর্মরত চিকিৎসক, নার্স ও স্বাস্থ্যকর্মীদের প্রতি সম্মান জানাতেই ১ জুলাই সরকারি ছুটি ঘোষণা করেছে পশ্চিমবঙ্গ সরকার।

আমাদের মধ্যে এমন অনেকে আছেন যারা ডাক্তারের কাছে নিজের রোগ নিয়ে সত্যি কথা বলে না। কিন্তু নিজেদের সুস্থ থাকতে ও রোগ নির্ণয়ে ডাক্তারদের সাহায্য করতে, আমাদের সর্বদা সত্যি কথা বলা উচিত। এছাড়াও, এমন কিছু রোগ রয়েছে যা আমরা সাধারণ ভেবে এড়িয়ে চলি। তবে চলুন দেখে নেওয়া যাক, চিকিৎসকদের পরামর্শ অনুযায়ী কোন ধরনের রোগ এবং রোগের লক্ষণগুলি কখনোই এড়িয়ে যাওয়া উচিত নয়।

১) পেটের ব্যথা ও ফোলা ভাব

১) পেটের ব্যথা ও ফোলা ভাব

যদি আপনারা পেটে অসহ্য ব্যথা হয় এবং পেট ফুলে যায়, তবে শীঘ্রই ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করা উচিত। কারণ, পেট ফুলে যাওয়া কেবলমাত্র খাবারের সমস্যার কারণে হয় তা কিন্তু একেবারেই নয়, বরং আলসার, গ্যাস্ট্রিক অ্যালার্জির মতো কঠিন রোগের উদ্ভবের কারণেও দেখা দিতে পারে। আর, পেট ব্যথার পাশাপাশি যদি আপনি বমি বমি ভাব, ডায়রিয়া, ওজন হ্রাস অনুভব করেন তবে অবশ্যই চিকিৎসকের পরামর্শ গ্রহণ করুন।

২) হঠাৎ শ্রবণশক্তি হ্রাস

২) হঠাৎ শ্রবণশক্তি হ্রাস

এই ধরনের অসুখ শুধুমাত্র ঠান্ডা লাগা বা কানে ময়লা জমে যাওয়ার কারণে যে হয় তা কিন্তু একেবারেই নয়, হঠাৎ শ্রবণশক্তি হ্রাস অডিটরি নার্ভে টিউমার বা মাল্টিপল স্ক্লেরোসিস (Multiple Sclerosis) এর লক্ষণও হতে পারে, তাই একে অবহেলা করা উচিত নয়।

৩) অত্যাধিক মাথাব্যথা

৩) অত্যাধিক মাথাব্যথা

বর্তমান দিনে এই মাথাব্যথা একটি স্বাভাবিক অসুখ হয়ে দাঁড়িয়েছে, যার ফলে অনেকেই গুরুত্ব দেন না। কিন্তু দিনের পর দিন যদি আপনার অসহ্য মাথা ব্যথা লেগেই থাকে তবে অবহেলা না করে ডাক্তারের পরামর্শ নিন। কারণ, অবহেলা থেকে পরবর্তীকালে ব্রেন টিউমার, স্ট্রোক ইত্যাদির মতো সমস্যা দেখা দিতে পারে।

৪) প্রস্রাবের সমস্যা

৪) প্রস্রাবের সমস্যা

স্নায়ু বা কিডনির সমস্যা, হার্নিয়া বা টিউমার হওয়ার ফলে প্রস্রাবের সমস্যা দেখা দেয়। এই রোগের থেকে উপশম পেতে প্রথম পদক্ষেপ হিসেবে গ্রহণ করতে পারেন প্রচুর পরিমাণে জল পান করা। তবে এটিও যদি কাজ না করে তবে অবিলম্বে ডাক্তারের সঙ্গে পরামর্শ করুন।

৫) মাথা ঘোরা

৫) মাথা ঘোরা

আমরা অনেকেই ভাবি দুর্বলতা বা রোদে হাঁটার ফলে মাথা ঘোরার সমস্যা দেখা দেয়। কিন্তু না, স্ট্রোক সিন্ড্রোম এর মতো অন্তর্নিহিত কারণগুলির জন্য মাথা ঘোরা আছে কিনা তা সন্ধান করার চেষ্টা করুন। তাই চিকিৎসকের পরামর্শ নিন।

৬) ব্যাক পেন

৬) ব্যাক পেন

আধুনিক জীবনযাত্রায় ব্যাক পেন সাধারণ হয়ে দাঁড়িয়েছে। আমরা অনেকেই মনে করি, সাধারণত পিঠে ব্যথা মানেই বসা বা শোওয়ার কোনও সমস্যা থেকেই এটি দেখা যায়। তবে সব ক্ষেত্রে তা ভাববেন না, এটি শরীরের অভ্যন্তরের কোন গুরুতর সমস্যা থেকেও হতে পারে। তাই রোগটি নির্বাচন করতে ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

৭) দৃষ্টিশক্তি হ্রাস

৭) দৃষ্টিশক্তি হ্রাস

এই লক্ষণকে কখনোই উপেক্ষা করা উচিত নয়। কারণ, হঠাৎ দৃষ্টিশক্তির সমস্যা স্ট্রোকের প্রাথমিক লক্ষণগুলির মধ্যে একটি। তাই অবহেলা না করে একজন ডাক্তারের পরামর্শ নিন।

নিম্ন রক্তচাপে ভুগছেন? সুস্থ থাকতে অনুসরণ করুন এই ঘরোয়া পদ্ধতিগুলি

এছাড়াও এমন কিছু লক্ষণ রয়েছে যা কখনোই আড়াল করা উচিত নয়, যেমন - ব্রেস্টে লাম্প (Breast Lump), টেস্টিকলস-এ লাম্প (Testicles Lump), মলে রক্ত, ওজন হ্রাস, হঠাৎ জ্বর, গলা ব্যাথা বা মুখে ঘা, ক্রমাগত কাশি ইত্যাদি।

English summary

National Doctors' Day 2020 : 7 Symptoms You Should Not Hide From Your Doctor

On this National Doctors' Day 2020, let us take a look into the different types of symptoms and signs that require immediate attention from a doctor.
X