For Quick Alerts
ALLOW NOTIFICATIONS  
For Daily Alerts

ডায়াবেটিসে ভুগছেন? চিন্তা নেই নিশ্চিন্তে খেতে পারেন পেঁপে!

By Swaity Das
|

ডায়াবেটিস হয়েছে শুনলেই আমরা ভয় পেয়ে যাই। তাই প্রায় সব রকম মিষ্টি খাবার জীবন থেকে বাদ দিতে বাধ্য হই। আমাদের আশেপাশে এমন বহু মানুষ আছেন, যারা ডায়াবেটিসে ভুগছেন। হাজারো ওষুধ আর নানারকম খাওয়া দাওয়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা- এই তাঁদের প্রতিদিনের রুটিন।

আমাদের শরীর যখন প্রয়োজনীয় পরিমাণে ইনসুলিন নিঃসরণ করতে পারে না। তখন ডায়াবেটিস রোগ শরীরে এসে বাসা বাঁধে। প্রসঙ্গত,
ইনসুলিন অগ্নাশয় থেকে নিঃসৃত এক ধরনের হরমোন, যা আমাদের শরীরের প্রয়োজন অনুযায়ী শর্করা বা সুগার হজম করাতে এবং জমিয়ে রাখতে সাহায্য করে। যখন অগ্নাশয় এই কাজ করতে বাধাপ্রাপ্ত হয় এবং ইনসুলিন নিঃসরণের হার কমে যায়, তখন আমাদের শরীরে ধীরে ধীরে ডায়াবেটিসের মতো অসুখ দানা বাঁধতে শুরু করে। আর ঠিক এই কারণেই ডায়াবেটিসে আক্রান্ত রোগীরা ইনজেকশনের মাধ্যমে ইনসুলিন নিয়ে থাকেন।

ডায়াবেটিস মানেই সবরকম মিষ্টি খাবারকে বিদায় জানাতে হয়। এমনকি মিষ্টি জাতীয় ফলও খাদ্যতালিকা থেকে বাদ পরে। কারণ বেশিরভাগ লোকেরই ধারণা, মিষ্টি জাতীয় খাবার খেলে ব্লাড সুগারের সমস্যায় আরও বেড়ে যায়। কিন্তু আমরা ক'জন জানি যে, এমন কিছু ফল আছে, যা আমাদের ডায়াবেটিসের সমস্যা থেকে দূরে রাখতে সাহায্য করে! যেমন, পেঁপের কথাই ধরা যাক। পেঁপে ডায়াবেটিসের সমস্যাকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে খুব ভালো কাজ দেয়। খেতে মিষ্টি হলেও, এই ফলটি কিন্তু কোনওভাবেই সুগারের সমস্যা বাড়িয়ে তোলে না। যদিও লেবু জাতীয় ফল ডায়াবেটিসে আক্রান্তদের জন্য একদমই ভালো নয়।

তাহলে আর অপেক্ষা কেন, দেখে নেওয়া যাক কিভাবে পেঁপে দারুণ ভাবে কাজ করে ডায়াবেটিসের সমস্যায়-

শর্করার পরিমাণ খুবই কম থাকে:

শর্করার পরিমাণ খুবই কম থাকে:

পেঁপের মধ্যে সুগারের পরিমাণ খুবই কম থাকে। প্রতি এক কাপ পেঁপেতে ৮.৩ গ্রাম মিষ্টি থাকে। তাছাড়াও গবেষণায় দেখা গেছে পেঁপে টাইপ ২ ডায়াবেটিস রোধ করতে দারুণভাবে সাহায্য করে। পেঁপের মধ্যে ‘পাপাইন' নামক এক ধরনের এনজাইম থাকে, যা আমাদের শরীরকে ভিতর থেকে ক্ষতির হাত থেকে রক্ষা করে এবং ডায়াবেটিস সহ নানা রোগের থেকে বাঁচায়।

প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন পাওয়া যায়:

প্রচুর পরিমাণে ভিটামিন পাওয়া যায়:

পেঁপের মধ্যে ভিটামিন এ এবং ভিটামিন সি পাওয়া যায়। এছাড়াও ক্যালসিয়াম, আয়রন, ম্যাগনেসিয়াম ইত্যাদিও প্রচুর পরিমাণে থাকে। এখানেই শেষ নয়, পেঁপে যেহেতু হাইপোগ্লাইকেমিক বা ব্লাড সুগার নিয়ন্ত্রণ করতে পারে, তাই হৃদযন্ত্রের যত্নেও দারুণ উপকারী এই ফল।

ফাইবার সমৃদ্ধ:

ফাইবার সমৃদ্ধ:

পেঁপের মধ্যে প্রচুর পরিমাণে ফাইবার আছে, যার ফলে খিদের সময় এই ফলটি খেলে অনেকক্ষণ যেমন পেট ভরা থাকে, তেমনি শরীরও উপকারী উপাদান দ্বারা পরিপুষ্ট হয়ে ওঠে।

সুগার নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে:

সুগার নিয়ন্ত্রণে সাহায্য করে:

পেঁপে আমাদের শরীর থেকে অতিরিক্ত সুগার বের করে দিতে সাহায্য করে। যার ফলে আমাদের শরীরে ডায়াবেটিসের মতো মারণ রোগ বাসা বাঁধতে পারে না। তবে, শুধুমাত্র পেঁপে নয়। জাম, অ্যাভোকাডো, তরমুজ, প্লাম এবং পেয়ারাও ডায়াবেটিস রোগকে নিয়ন্ত্রণে রাখতে বিশেষ ভূমিকা পালন করে থাকে। তাই, ডায়াবেটিসকে আর ভয় না পেয়ে, রোগটিকে কাবু করতে প্রতিদিন পরিমাণ মতো ফল খাওয়া শুরু করুন। দেখবেন উপকার পাবেন।

English summary

এমন কিছু ফল আছে, যা ডায়াবেটিসের মতো শারীরিক সমস্যাকে দূরে রাখতে সাহায্য করে!

In today's world, all of us must have heard of diabetes. People dread the very term, thinking that it is an end to all their sweet binges. But how much about it do we know anyway?
Story first published: Wednesday, July 19, 2017, 17:02 [IST]
X